২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

যশোরে অর্থ আত্মসাত ॥ ১৭ মাওলানার বিরুদ্ধে মামলা

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর অফিস ॥ যশোরের আলোচিত এহসান ইসলামী মাল্টিপারপাস সোসাইটির ১৮ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ফের আত্মসাতের অভিযোগে মামলা হয়েছে। কোতয়ালি থানায় রবিবার রাতে মামলাটি করেছেন সদর উপজেলার বালিয়া ভেকুটিয়া গ্রামের বসু মিয়ার ছেলে হানিফ মিয়া।

আসামিরা হলো কোম্পানির প্যানেল এমডি মুফতি মাও. ইউনুস আলী, পরিচালক মুফতি মাও. আব্দুল হালিম, মুফতি মাও. আতাউল্লাহ, মুফতি মাও. আইয়ুব আলী, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মুফতি মাও. জুনায়েদ আলী, পরিচালক মুফতি মাও. মনিরুজ্জামান, মুফতি মাও. মিজানুর রহমান, ম্যানেজার মুফতি মাও. শামছুল হক টিটো, মুফতি মাও. মঈনুল হক, কাজী রবিউল ইসলাম, মুফতি মাও. আবু তাহের নদবী, মুফতি মাও. আজিজুল হক, মুফতি মাও. গোলাম রহমান, মুফতি মাও. আব্দুল মতিন. মুফতি মাও. আমিনুল হক, মুফতি মাও. কলিমুল্লাহ কলি, মুফতি মাও. ফোরকান এবং দড়াটার মাদ্রাসার পরিচালক ও কোম্পানির মাঠকর্মী মাওলানা নাসিরুল্লাহ।

এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, আসামিরা বিভিন্নভাবে প্রভাবিত করে ২০১২ সালে ৩ জানুয়ারি মেমোর মাধ্যমে ২ লাখ টাকা নেয়। আসামিরা তাকে প্রতিমাসে তিন হাজার দুইশ’ টাকা করে দেব বলে অঙ্গীকার করে। কিন্তু আজ অবধি কোন টাকা দেয়নি। আজ কাল দেবে বলে ঘুরাতে থাকে। তাদের কাছ টাকা চেয়ে না পেয়ে মুনাফা চেয়েও পাওয়া যায়নি। পরে তাদের ওপর চাপ সৃষ্টি করলে তারা টাকা ফেরত দেয়ার জন্য চলতি বছরের ২৪ এপ্রিল সময় বেঁধে দেয়। কিন্তু এ সময়ের মধ্যে তারা কোন টাকা ফেরত দেয়নি। পরবর্তীতে তারা কোন টাকা ফেরত দেবে না বলে শাসায় এবং হুমকি দেয়। এ কারণে তিনি মামলা করেছেন।

কোতয়ালি থানার ওসি সিকদার আককাছ আলী জানিয়েছেন, এ নিয়ে ৭/৮টি মামলা হয়েছে এহসান ইসলামী পাল্টিপারপাস সোসাইটির বিরুদ্ধে। আসামিদের বিভিন্ন সময় আটক করে জেল হাজাতে পাঠানো হয়েছে।

অতিষ্ঠ বেদে সরদার

নিজস্ব সংবাদদাতা, ঝালকাঠি, ২৭ জুলাই ॥ ঝালকাঠির বেদেপল্লীতে বসবাসকারী বরিশাল বিভাগের বেদে সরদার আব্দুর রহিম সরদার বরিশালের গৌরনদী ও মাদারীপুর এলাকার এক শ্রেণীর বেদে সম্প্রদায়ভুক্ত চাঁদাবাজ ও প্রতারকচক্রের হুমকির মধ্যে রয়েছে। এদের হুমকির মধ্যে শুধু আব্দুর রহিম সরদারই নয়, বেদে সম্প্রদায়ের বিভিন্ন এলাকায় বেদে বহরের ছোট ছোট দলের সরদাররাও রয়েছে। তারা ভাসমান বেদে বহরে চাঁদা দাবি করে এবং না দিলে বেদে বহরে গাঁজা, ইয়াবা আছে মর্মে পুলিশকে মিথ্যা তথ্য দিয়ে হয়রানি করে। এছাড়া গৌরনদী অঞ্চলের প্রতারকচক্র শ্রীশ্রী লোকনাথ বাবার ভক্ত সেজে হিন্দু পরিবারে গিয়ে প্রতারণা করে সোনার গহনা হাতিয়ে নিচ্ছে। ঝালকাঠি থানায় পাঁচটি ও ঢাকার ডিএমপিতে একটিসহ এই চক্রের বিরুদ্ধে ৬টি সাধারণ ডায়েরি এবং ঝালকাঠিতে দুটি মামলা দায়ের হয়েছে। বেদে নেতা আব্দুর রহিম সরদার বাদী হয়ে গৌরনদী উপজেলার টরকীরচর বেদেপাড়ার প্রতারকচক্রের পিন্টু বেদে, নাসির বেদে, স্বপন বেদে, বাদল বেদে, আলম বেদে, নান্নু বেদে ও আঃ মালেক বেদে এবং অপর মামলায় মাদারীপুর জেলার রাজতি পুরানবাজার এলাকার মজিবর বেদে, আব্দুল জলিল বেদে ও মামুন হোসেন খোকন বেদেকেও আসামি করা হয়েছে।