১২ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সার্জেন্টকে ‘ম্যানেজ’ করেই অবৈধ গাড়িটি ১০ বছর ধরে সিরাজগঞ্জ ঢাকা রুটে চলে

স্টাফ রিপোর্টার ॥ শুধু আশ্চর্যজনকই নয়, রীতিমতো অবিশ্বাস্যও বটে। ফিটনেস নেই, রুট পারমিট নেই, নেই কিছুই। তারপরও টানা দশ বছর ধরে গাড়িটি দাপিয়ে বেড়িয়েছে ঢাকার রাজপথ থেকে সিরাজগঞ্জ পর্যন্ত। রাতে-দিনে সারাক্ষণই চলেছে বীরদর্পে। কি কিভাবেÑ এ প্রশ্ন খোদ বিআরটিএর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাছির উল্লাহ খানের। সোমবার যখন হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর গোল চত্বরে অভিযান চালিয়ে গাড়িটি ধরা হলো, তখন কাগজপত্র দেখে তার চোখ তো চড়কগাছ। তিনি বার বার খতিয়ে দেখলেন ন্যূনতম কাগজপত্র আছে কি-না। কিন্তু বাসের হেলপার, চালক দু’জনই তা দেখাতে ব্যর্থ হয়। বার বার জিজ্ঞাসা করেও কোন সদুত্তর মেলেনি। ওরা মাথা নিচু করে দাঁড়িয়ে থাকে।

এমন অবিশ্বাস্য কা- ঘটিয়েছে অভি এন্টারপ্রাইজ (ঢাকা মেট্রো-ব-১৪-০৮৭৭) নামের এই বাসটি। গাড়িটি মহাখালী বাস টার্মিনাল থেকে সিরাজগঞ্জে চলাচল করত। দূরপাল্লার বাস হিসেবে প্রতিদিন মহাখালী থেকে ছেড়ে যেত আবার ফিরত। কিন্তু কিভাবে? নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাছির খানের এমন প্রশ্নের জবাবে মাথা নিচু করে চুপ ছিল তারা। কিছুক্ষণ পর জবাব, ‘স্যার বুঝতেই পারছেন। যখনই চেক করা হতো, কোথাও ধরা হতো, ম্যানেজ করেই ছাড়িয়ে নেয়া হতো। দশ বছর ধরেই এভাবে চলছে।’

তাহলে শুধু ম্যানেজ করেই এমন একটি বিলাসবহুল বাস দশ বছর ধরেই চলেছে। অথচ ঢাকা থেকে সিরাজগঞ্জ পর্যন্ত না হলেও কমপক্ষে ১৮ পয়েন্টে ট্রাফিক পুলিশের চেকপোস্ট রয়েছে, যেখানে কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশের কাজই হচ্ছে এ ধরনের ফিটনেসবিহীন অবৈধ গাড়ি আটক করা। আইনের আওতায় এনে শাস্তি দেয়া। সেটা যে হয়নি তা তো হেলপারের মুখেই বের হয়ে এসেছে। এতগুলো ট্রাফিক পোস্ট থাকা সত্ত্বেও কেন তা কোনদিনও কারোর চোখে পড়েনিÑ কৌতূহলী জিজ্ঞাসা উপস্থিত কর্মচারী ইব্রাহীম খলিল রেজার।

এ বিষয়ে মহাখালী টার্মিনালে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, অভি এন্টারপ্রাইজের মালিক সিরাজগঞ্জের। এমন আরও অনেক বাস এই রুটসহ অন্যান্য রুটে চলছে। পদ্ধতি একই। শুধু সার্জেন্টকে টাকা দিয়ে।

টার্মিনালের টোল আদায়কারী শাহ আলম বলেন, ‘এ ধরনের গাড়ি কিভাবে চলে এটা ওপেন সিক্রেট। যারা ধরেন তারাও জানেন। যারা ছাড়েন তারাও জানেন।’

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ নাছির উল্লাহ খান জানান, গাড়িটি তাৎক্ষণিক ডাম্পিং করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে এ ধরনের আরও ১৪ গাড়িকে জরিমানা করা হয়েছে। বৃষ্টির মধ্যে সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত চালানো এ অভিযানে আরও বিচিত্র ধরনের অবৈধ গাড়ি ধরা পড়ে।