২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

খুনীদের অবশ্যই রাজনীতির বাইরে রাখতে হবে ॥ ইনু

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশে হত্যা-খুনের রাজনীতির চির অবসান করতে হলে খুনীদের অবশ্যই রাজনীতির বাইরে রাখতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু। সোমবার রাজধানীর কর্নেল তাদের মিলনায়তনে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী ইনু বলেন, জিয়াউর রহমান বাংলাদেশকে পাকিস্তানী ভাবধারায় নিয়ে যাওয়ার গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে কর্নেল তাহের খুন করেন। পরবর্তীতে ক্যান্টনমেন্টকে কসাইখানায় পরিণত করেছিলেন। ১৪ দলের অন্যতম এই শরিক নেতা বলেন, আইনের আদালত ও জনতার আদালত জিয়াকে হত্যাকারী হিসেবে চিহ্নিত করে তাকে ‘একজন ঠা-া মাথার খুনী’ হিসেবে রায় দিয়েছে। তিনি বলেন, জিয়া প্রতিপক্ষকে শারীরিকভাবে নিশ্চিহ্ন করার রাজনীতি করেছেন, খালেদা জিয়াও তাই করছেন। জিয়ার মতো খালেদাও ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা করে শেখ হাসিনাকে হত্যা করার চক্রান্তের পৃষ্ঠপোষকতা করেন এবং খুনীদের বাঁচিয়েছেন। খালেদা জিয়া ৭৫-এ বঙ্গবন্ধুর খুনী, ৭১-এ যুদ্ধাপরাধী-খুনী এবং ২১ আগস্টে শেখ হাসিনাকে হত্যা চেষ্টাকারী-খুনীদের সমর্থনকারী ও রক্ষাকারী।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়া সরকারবিরোধী আন্দোলনের নামে ক্ষমতা দখলের জন্য দেড়শর বেশী মানুষ পুড়িয়ে হত্যা করেছেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশে হত্যা-খুনের রাজনীতি চির অবসান করতে হলে, খুনীদের অবশ্যই রাজনীতির বাইরে রাখতে হবে। বিচার করে সাজা দিয়ে কঠোর হস্তে দমন করতে হবে। কর্নেল তাহেরের হত্যাকারী জিয়ার পক্ষ ত্যাগ করে আদালতের রায় মেনে নিয়ে জাতির কাছে মাফ চাওয়ার জন্য বেগম জিয়ার প্রতি আহ্বান জানান ইনু। শহীদ কর্নেল আবু তাহের বীরউত্তম স্মরণে জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটি আয়োজিত “দুর্নীতি-সন্ত্রাস-জঙ্গীবাদ প্রতিরোধ কর : জামায়াত-শিবির নিষিদ্ধ কর” শীর্ষক আলোচনাসভায় দলের কেন্দ্রীয় নেতারাও বক্তব্য রাখেন।

আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন জাসদের কার্যকরী সভাপতি মইনউদ্দিন খান বাদল এমপি, স্থায়ী কমিটির সদস্য শিরীন আখতার এমপি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হক প্রধান এমপি, সহ-সভাপতি এড. শাহ জিকরুল আহমেদ, মোহাম্মদ খালেদ, এড. হাবিবুর রহমান শওকত, নুরুল আখতার, করিম সিকদার, ওবায়দুর রহমান চুন্নু, শওকত রায়হান, নইমুল আহসান জুয়েল, ডা. মোয়াজ্জেম হোসেন, সৈয়দ রফিকুল ইসলাম বীরপ্রতীক, শফি উদ্দিন মোল্লা, এ্যাড. মুহিবুর রহমান মিহির প্রমুখ।