১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শিমুলিয়ায় নাব্য সংকটে ফেরি বন্ধ

স্টাফ রিপোর্টার, মুন্সীগঞ্জ ॥ নাব্য সঙ্কেটর কারণে শিমুলিয়া-কাওড়াকান্দি রুটে মঙ্গলবার বিকাল থেকে রো রো ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। চ্যানেলে পানি স্বল্পতার কারণে অনির্দিষ্ট সময়ের জন্য এই ফেরি বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেন কর্তৃপক্ষ। এসব তথ্য দিয়ে বিআইডব্লিউটিসির শিমুলিয়া ঘাটের ম্যানেজার আব্দুল আলীম জানান, শিমুলিয়া-কাওড়াকান্দি নৌরুটের পদ্মার লৌহজং টানিংয়ে চ্যানেলে মুখে বিশাল এলাকা জুড়ে একটি ডুবো চরের সৃষ্টি হয়েছে। যার ফলে নাব্য সংকট সৃষ্টি হয়েছে। এ চ্যানেলে বর্তমানে পানির গভীরতা মাত্র ৬ ফুট। কিন্তু রো রো ফেরির জন্য গভীরতা প্রয়োজন অন্তত সাড়ে ৭ ফুট। তাই রো রো ফেরিগুলোকে সাময়িক বন্ধ রাখা হয়েছে। পানির গভীরতা বৃদ্ধি না পেলে এখানে রোরো ফেরি চালনা সম্ভব না। তবে এই রুটের তবে মধ্যম ও ছোট আকারের ১৪টি ফেরি চলাচল করছে। এই বহরে তিনটি রো রো ফেরি চলাচল করছিল।

বিআইডব্লিউটিএর ড্রেজিং বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সুলতান আহম্মেদ খান জানান, এটি একটি প্রাকৃতিক দুর্যোগ। শিমুলিয়া-কাওড়াকান্দি নৌরুটের পদ্মার লৌহজং টানিংয়ে চ্যানেলে মুখে প্রায় ৫শ’ থেকে ৬’শ ফুট এলাকা জুড়ে একটি ডুবো চরের সৃষ্টি হয়েছে। ১৯ জুলাই থেকে আমরা ২টি ড্রেজার দিয়ে দিনরাত ড্রেজিং করছি। ইতিমধ্যেই আমাদের আপ কাট শেষ হয়েছে। এখন আর ডাউন কাট চলছে। আর ২ দিন কাটলে সমস্যা থাকবে না। তবে এখনও পানির যে গভীরতা তাতে সব ফেরিই চলাচল সম্ভব।

এছাড়া সকাল থেকেই এই রুটে ছোট লঞ্চ চলাচল বন্ধ রয়েছে। এছাড়া সী-বোট ও ইঞ্জিন চালিত নৌকা চলছে সীমিত আকারে। দেশের নদীবন্দরকে ২ নম্বার সর্তক সংকেত, পদ্মা নদী উত্তাল ও তীব্র স্রোত থাকায় মঙ্গলবার এগুলো বন্ধ রাখা হয়েছে। তবে তবে ৭৩ ফুটের উপর লঞ্চ ও ফেরি চলাচল করছে। এই নৌরুটে ৮৭ টি ছোট বড় লঞ্চ চলাচল করে। এসব তথ্য দিয়ে বিআইডব্লিউটিএর শিমুলিয়া নৌ বন্দর ট্রাফিক ইনেসপেক্টর তোফাজ্জল হোসেন জানান , সকাল থেকে ৭৩ ফুটের উপরে বড় লঞ্চ চলাচল করছে। এছাড়া পদ্মা উত্তাল থাকায় সতর্কতার জন্য ১৪টি ছোট লঞ্চ বন্ধ রাখা হয়েছে। তবে সী-বোট ও ইঞ্জিন চালিত নৌকা চলছে সীমিত আকারে। নদীতে ঢেউ ও বাতাস থাকায় আমরা যাত্রীদের ফেরিতে চলাচলের অনুরোধ করছি।