২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

’২০ সালের আগে স্কটিশ গণভোট নয়

  • স্কটিশ ন্যাশনাল পার্টি নেত্রী স্টারজেন এ ধরনের সিদ্ধান্ত নিলে তা হবে অবৈধ ॥ ক্যামেরন

ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন স্কটল্যান্ডের এসএনপি নেত্রী নিকোলা স্টারজেনের এই দাবি প্রত্যাখ্যান করেছেন যে, তিনিই (স্টার্জন) শেষপর্যন্ত সিদ্ধান্ত নেবেন আরেকটি গণভোট কবে অনুষ্ঠিত হবে। ক্যামেরন আভাস দেন এটিকে অবৈধ বলে গণ্য করা হবে। তিনি পার্লামেন্টের চলতি অধিবেশনে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত গ্রহণের সম্ভাবনাও বাতিল করে দেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, গত সেপ্টেম্বরের ভোটাভুটিতে স্কটরা যে ১১ মাত্রার ব্যবধানে যুক্তরাজ্যের অংশ হিসেবে থেকে যাওয়ার পক্ষে রায় দিয়েছিল সেটিই চূড়ান্ত। খবর টেলিগ্রাফ ও বিবিসির।

সোমবার দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ায় ৫ দিনব্যাপী সফরের শুরুতে ইন্দোনেশিয়ার রাজধানী জাকার্তার উদ্দেশে বিমানযাত্রার সময় তিনি ২০২০ সালে সাধারণ নির্বাচনের আগে আরেকদফা ভোটাভুটির সম্ভাবনা সুষ্ঠুভাবে বাতিল করে দেন। তবে মিস স্টারজেন জোর দিয়ে বলেছেন, দ্বিতীয় দফা ভোটগ্রহণের সময়সূচী প্রশ্নে তিনিই চূড়ান্তভাবে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবেন। তিনি তাঁর পূর্বসূরি ও পরামর্শদাতা এ্যালেক্স স্যামন্ডের সঙ্গে একমত হয়ে বলেন, এটি (গণভোট) অবশ্যই কোন এক সময় অনুষ্ঠিত হবে। তিনি বলেন, আগামী বছর স্কটিশ পার্লামেন্ট নির্বাচনের ইস্তেহারে দ্বিতীয় গণভোটের প্রস্তুতির বিষয়টি থাকবে কিনা তিনি এখন পর্যন্ত সে ব্যাপারে কোন সিদ্ধান্ত নেননি। স্যামন্ড অঙ্গীকারটি অন্তর্ভুক্ত করতে ইতোমধ্যে স্টারজেনের ওপর চাপ সষ্টি করেছেন।

পার্টির নতুন সদস্যদের অনেকে এবং নবাগত এমপিরা যত দ্রুত সম্ভব আরেকটি ভোট অনুষ্ঠানে আগ্রহী। তবে এসএনপি নেতা হিসেবে স্যামন্ডের পূর্বসূরি গর্ডন উইলসন স্টর্জনকে ‘যতদিন না আপনি জানতে পারছেন আপনি জয়লাভ করবেন’ ততদিন বিষয়টি বিলম্বিত করার পরামর্শ দিয়েছে। স্টার্জন ও স্যামন্ড গত বছরের গণভোটের সময় ভোটারদের বলেছিলেন, এ ধরনের গণভোট এক প্রজন্মের মধ্যে, সম্ভবত এক জীবনকালে একবারই অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। ১১ মাত্রার ব্যবধানে সুস্পষ্ট পরাজয়ের পর তিনি তাঁর এই অবস্থান পরিবর্তন করে বলেন, দ্বিতীয় দফা ভোটাভুটির সময় স্কটিশরাই নির্ধারণ করবে। অবশ্য পুনরায় গণভোট অনুষ্ঠান করতে ক্যামেরনের সম্মতির প্রয়োজন পড়বে, কারণ সাংবিধানিক ওয়েস্টমিন্্স্টারের (ব্রিটিশ পার্লামেন্ট ও সরকার) জন্য সংরক্ষিত। প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি মনে করি এটি গুরুত্বপূর্ণ যে, একটি গণভোটকে হতে হবে বৈধ ও সুষ্ঠু এবং যথাযথভাবে সংগঠিত। এরকমই হয়েছে এবং সেটি ছিল নিষ্পত্তিকারক। তাই আমি আরেকদফা, অনুষ্ঠানের কোন প্রয়োজন দেখি না। ‘আমার সুস্পষ্ট মতামত হলো এসব জিনিসকে অবশ্যই বৈধ হতে হবে এবং সেটাই আমার দৃষ্টিভঙ্গি।’ ওয়েস্টমিনস্টার পার্লামেন্টে আরেকবার স্কটিশ ভোটাভুটির বিষয়টি প্রত্যাখ্যাত হওয়ার সম্ভাবনা তিনি দেখেন কিনা প্রশ্ন করা হলে ক্যামেরন বলেন, ‘হ্যাঁ’। স্যামন্ড রবিবার বিবিসির এ্যান্ডু মারকে বলেন, দ্বিতীয় গণভোট অনুষ্ঠান ‘অপরিহার্য।’ ইইউ প্রশ্নে গণভোটে স্কটল্যান্ডের ইচ্ছার বিরুদ্ধে যুক্তরাজ্য ইউরোপ ত্যাগ করলে, আরও কৃচ্ছ্রনীতি চাপিয়ে দিলে কিংবা হলিরুড (প্রস্তাবিত স্কটিশ রাজধানী কেন্দ্র) যথেষ্ট ক্ষমতা না পেলে গণভোট যুক্তিসম্মত বলে প্রতিপন্ন হবে।

আইএস দমনে যৌথ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে সম্মত

লন্ডন-জাকার্তা ॥ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন বলেছেন, যুক্তরাজ্য ও ইন্দোনেশিয়া ইসলামিক স্টেটের (আইএস) জঙ্গীদের দমনে পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য একমত হয়েছে। তিনি বলেন, ৫০ জন ইন্দোনেশীয় পুলিশ কর্মকর্তাকে যুক্তরাজ্যে সন্ত্রাসবিরোধী প্রশিক্ষণ দেয়া হবে। প্রধানমন্ত্রী তার চার দিনের দূরপ্রাচ্য সফরে এসে ইন্দোনেশিয়ায় এ কথা বলেন। বালি ও জাকার্তায় বিমানবন্দরে নিরাপত্তা বৃদ্ধিতে যুক্তরাজ্যের সহায়তার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন ক্যামেরন।

এর আগে তিনি বলেছেন, লিবিয়া বা যে কোন স্থানে সামরিক পদক্ষেপ গ্রহণে ইচ্ছুক যদি ব্রিটেনের প্রতি কোন হুমকি আসে। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ব্রিটেনের, আমাদের জনগণের, আমাদের রাস্তাগুলোর প্রতি কোন হুমকি আসলে এবং এ হুমকির বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক পদক্ষেপ গ্রহণের মাধ্যমে আমরা তা প্রতিরোধে সক্ষমতা থাকলে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে সব সময় আমি সে পদক্ষেপ গ্রহণ করতে চাই।