২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সাকা চৌধুরীর মৃত্যুদণ্ড বহাল রাখার দাবি গণজাগরণ মঞ্চের

সাকা চৌধুরীর মৃত্যুদণ্ড বহাল রাখার দাবি গণজাগরণ মঞ্চের

স্টাফ রিপোর্টার ॥ প্রমাণিত অন্য অপরাধগুলোতেও কুখ্যাত যুদ্ধাপরাধী সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর মৃত্যুদ-ের দাবি জানিয়েছে গণজাগরণ মঞ্চ। মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে অভিযুক্ত যুদ্ধাপরাধী সাকা চৌধুরীর সর্বোচ্চ সাজা মৃত্যুদ-ের রায় বহালের দাবিতে টানা পঞ্চম দিনের মতো শাহবাগে গণজাগরণ মঞ্চের গণঅবস্থান কর্মসূচীতে এ দাবি জানানো হয়। মঙ্গলবার বিকেল চারটা থেকে পূর্বঘোষণা অনুযায়ী মঞ্চের মুখপাত্র ডাঃ ইমরান এইচ সরকারের নেতৃত্বে শাহবাগে অবস্থান নেন মঞ্চের নেতাকর্মীরা। এদিকে আজ বুধবার সাকার রায়কে কেন্দ্র করে সকাল থেকে প্রজন্ম চত্বরে অবস্থান নেবে গণজাগরণ মঞ্চসহ সামাজিক, সাংস্কৃতিকসহ বিভিন্ন সংগঠন।

বিকেলে চিরাচরিত সেøাগান আর প্রতিবাদী গানের মধ্য দিয়ে দিনের কর্মসূচী শুরু হয়। সেøাগানে সেøাগানে তারা আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল কর্তৃক প্রদত্ত যুদ্ধাপরাধী সালাউদ্দিন কাদেরের ফাঁসির রায় বহালের দাবি জানান।

এ সময় এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকার বলেন, কুখ্যাত সালাউদ্দিন কাদের যে অপরাধ করেছে তাতে এক শ’ বার ফাঁসিও তার জন্য যথেষ্ট নয় বলে আমরা মনে করি। আমরা আশা করছি, আপীল বিভাগ এই কুখ্যাত যুদ্ধাপরাধীকে তার প্রাপ্য সাজাই দেবে। আমরা এও আশা করছি, বাকি অপরাধগুলো প্রমাণিত হয়েছে কিন্তু মৃত্যুদ-ের রায় দেয়া হয়নি, সেগুলোতেও সাকা চৌধুরীকে মৃত্যুদ-ের রায় দেবে আপীল বিভাগ। এই রায় হবে আইন ও ন্যায়বিচারের বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার দিকে এক মাইলফলক।

যুদ্ধাপরাধী সালাউদ্দিন কাদের ও তাদের রক্ষাকারীদের প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে ইমরান এইচ সরকার বলেন, জনগণ সজাগ রয়েছে। বুধবারের রায় নিয়ে কোন রকম ষড়যন্ত্রের চেষ্টা করা হলে ২০১৩ সালের ৫ ফেব্রুয়ারির মতো আবারও সারাদেশের জনগণ রাজপথে নেমে আসবে। সকল ষড়যন্ত্রের দাঁতভাঙ্গা জবাব দিয়ে ন্যায্য বিচার নিয়েই ঘরে ফিরবে।

তিনি বলেন, আমরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। আমরা চাই মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে অর্জিত এই বাংলাদেশের ওপর বিচারহীনতার যে অপসংস্কৃতি ভর করেছে, সকল যুদ্ধাপরাধীর বিচার নিশ্চিত করার মাধ্যমে সেই অপসংস্কৃতির অবসান হবে। আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, বিচার বিভাগকে তার স্বাভাবিক গতিতে চলতে দিলে, কোন ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে বিচার প্রক্রিয়াকে প্রভাবিত করার অপচেষ্টা করা না হলে সকল যুদ্ধাপরাধী তাদের প্রাপ্য সাজাই পাবে। আমরা ন্যায়বিচারের দাবি নিয়ে রাজপথে এসেছি, আমাদের ন্যায্য বিচার নিয়েই আমরা ঘরে ফিরে যাব।

সন্ধ্যায় মঞ্চের কর্মীরা যুদ্ধাপরাধী সালাউদ্দিন কাদেরের হাতে শহীদ নূতন চন্দ্রের প্রতিকৃতিতে আলোক প্রজ্বলন করে মহান মুক্তিযুদ্ধের সকল শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। শাহবাগে স্থাপিত গণজাগরণ মঞ্চের মিডিয়া সেল থেকে জানানো হয়েছে, গণঅবস্থান কর্মসূচী চলমান থাকবে। আজ রায়ের দিন সকাল আটটা থেকে শাহবাগে অবস্থান নেবে গণজাগরণ মঞ্চ। এদিকে কুখ্যাত খুনী এই ঘৃণ্য মানবতাবিরোধী অপরাধী রাজাকার সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর আপীল বিভাগের রায়কে কেন্দ্র করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণকারী সকল বন্ধু, গণজাগরণের সকল সহযোদ্ধাকে সকাল ৯ টায় শাহবাগে অবস্থান করার আহ্বান জানানো হচ্ছে। চূড়ান্ত রায়েও মৃত্যুদ- বহাল থাকবে- এ আশাবাদ নিয়ে এখন দেশের সর্বোচ্চ আদালতের দিকে তাকিয়ে আছেন মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী দেশবাসী। সকালে যুদ্ধাপরাধীদের সর্বোচ্চ বিচারের দাবিতে গড়ে ওঠা সংগঠন বোয়ান, প্রাণের-’৭১, গৌরব-’৭১ ও গণজাগরণ মঞ্চ একযোগে অবস্থান নেবে। এদিকে আজ জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে জামায়াত-শিবিরের রাজনীতি নিষিদ্ধ ও সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীসহ সকল যুদ্ধাপরাধীকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে জাতিকে কলঙ্কমুক্ত করার দাবিতে সমাবেশ ও মানববন্ধন কর্মসূচীর আয়োজন করেছে সাংস্কৃতিক জোট কেন্দ্রীয় কমিটি।