২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ম্যানচেস্টার সিটির গোলবন্যা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ নতুন মৌসুম (২০১৫-১৬) শুরুর আগে প্রাক-মৌসুম প্রস্তুতি ম্যাচে বিশাল জয় পেয়েছে ইংলিশ ক্লাব ম্যানচেস্টার সিটি। সোমবার প্রীতি ম্যাচে ম্যানসিটি ৮-১ গোলের বিশাল ব্যবধানে পরাজিত করে ভিয়েতনামকে। সিটির জয়ে অসাধারণ নৈপুণ্য প্রদর্শন করেন নবাগত তারকা রাহিম স্টার্লিং। সাবেক লিভারপুল তারকা করেন জোড়া গোল। যে কারণে কোচ ম্যানুয়েল পেলেগ্রিনির প্রশংসায়ও ভেসেছেন। ইন্টারন্যাশনাল চ্যাম্পিয়ন্স কাপে মেলবোর্নে স্প্যানিশ পরাশক্তি রিয়াল মাদ্রিদের কাছে ৪-১ গোলের ব্যবধানে হারের পর এই জয়টা বড্ড প্রয়োজন ছিল সিটির। ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের নতুন মৌসুম শুরুর আগে দারুণ এই জয় দলকে অনুপ্রাণিত করবে বলে মনে করছেন কোচ পেলেগ্রিনি। নিজেদের শেষ তিন ম্যাচের কোনটিতেই জয় না পাওয়া ভিয়েতনামের বিপক্ষে ম্যানসিটি শক্তিশালী একাদশই মাঠে নামায়। ফল পেতেও বিলম্ব হয়নি। স্টার্লিং ছাড়াও ম্যানসিটির হয়ে জোড়া গোল করেন আলেকজান্ডার কোলারভ ও ডেভিড সিলভা। এছাড়া একটি করে গোল করেন মার্কোস লোপেজ ও জোশে এ্যাঞ্জেল। আর ভিয়েতনামের হয়ে একমাত্র গোল করেন ফন কোয়েট। ম্যাচের ১১ ও ৫১ মিনিটে সিটির হয়ে গোল করেন সার্বিয়ার ২৯ বছর বয়সী তারকা কোলারভ। ইংল্যান্ডের উঠতি তারকা স্টার্লিং তার জোড়া গোল পূরণ করতে সময় নেন মাত্র ৩১ মিনিট। লিভারপুল ছেড়ে এ মৌসুমে ম্যানসিটির হয়ে নাম লেখানো এ তারকার প্রথম গোল আসে ম্যাচের ১৯ মিনিটে। এছাড়া স্প্যানিশ তারকা স্ট্রাইকার ডেভিড সিলভা ম্যাচের ২১ ও ৬৫ মিনিটে দুটি গোলক করেন। গোলবন্যার ম্যাচে ম্যানসিটির হয়ে ম্যাচের ৭৩ মিনিটে পর্তুগালের অনুর্ধ ১৯ দলের মিডফিল্ডার মার্কোস লোপেজ সপ্তম গোল করেন। এর তিন মিনিট পর ভিয়েতনামের জালে দলের হয়ে অষ্টম গোল করেন স্পেনের অনুর্ধ ১৯ দলের স্ট্রাইকার এ্যাঞ্জেল। ভিয়েতনামের হয়ে ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ে ব্যবধান কমানো একমাত্র গোল করেন কোয়েট। দলের উড়ন্ত নৈপুণ্যের পর সিটি কোচ পেলেগ্রিনি বলেন, প্রতিপক্ষ দুর্বল হলেও এই পারফর্মেন্স অনেক আশা জাগানিয়া। আশা করছি ইপিএলের নতুন মৌসুমে আমরা প্রত্যাশিত সাফল্য পাব। আমরা শিরোপা পুনরুদ্ধারের লক্ষ্য নিয়ে মিশন শুরু করতে চাই। দলের নতুন তরকা রাহিম স্টার্লিংয়ের নৈপুণ্যে সন্তোষ প্রকাশ করেন তিনি। সিটির হয়ে অভিষেক ম্যাচেই গোল করার পর এবার তিনি করেছেন দুই গোল। পেলেগ্রিনি বলেন, আমি খুশি স্টার্লিংয়ের খেলায়। সে শুধু দামী ফুটবলাই নয়, আমাদের গুরুত্বপূর্ণ তরুণ ফুটবলার। আশা করছি তার ভবিষ্যত আরও উজ্জ্বল হবে। ইয়াইয়া তোরে, ডেভিড সিলভা, সার্জিও এ্যাগুয়েরোদের সঙ্গে সে নিজেকে মানিয়ে নিতে পারবে।