১৯ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিশ্বকাপ জয় সবচেয়ে আনন্দের ॥ হোপ সোলো

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ প্রমীলা ফুটবলের ইতিহাসের অন্যতম সেরা গোলরক্ষক হিসেবে ধরা হয় আমেরিকার হোপ সোলোকে। সম্প্রতি জাপানাকে হারিয়ে বিশ্বকাপের শিরোপাটাও ছোঁয়া হয়েছে তার। আর বিশ্বকাপ জেতার অনুভূতিটা খুবই আনন্দের বলে বুধবার এক সাক্ষাতকারে জানিয়েছেন তিনি। এ বিষয়ে ৩৩ বছর বয়সী আমেরিকান গোলরক্ষক বলেন, ‘জাপানের বিপক্ষে বিজয়ের মুহূর্তটা দারুণ। প্রকৃতপক্ষে আমাদের দল যা করেছে তা খুবই চমৎকার। কঠিন বাধা অতিক্রম করেই আমাদের এই অর্জন। বিশ্বকাপ জেতাটা খুব সহজ কাজ নয় তারপরও সবসময়ই আত্মবিশ্বাস ছিল আমাদের এবং শেষ পর্যন্ত বিশ্বকাপ জিততে পেরেছি। এটা খুবই আনন্দের।’

মার্কিন দলের অন্যতম ভরসার নাম হোপ সোলো। দুই পোস্টের মাঝখানে সোলোর অবস্থান যেন পুরো দলের জন্যই আশার প্রদীপ। অথচ ফুটবল খেলার শুরুটা কিন্তু করেছিলেন স্ট্রাইকার হিসেবে। পরবর্তীতে গোলপোস্টের নিচে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নেন তিনি। ওয়াশিংটনে জন্ম নেয়া এই দীর্ঘদেহী প্রমীলা ফুটবলারের জাতীয় দলের পক্ষে অভিষেক হয় ২০০০ সালে। তার আগে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে দুর্দান্ত খেলে সকলের মন জয় করেছিলেন তিনি। ২০০৯ সালে বছরের সেরা গোলরক্ষক হিসেবে স্বীকৃতি পান তিনি। গোল পোস্টের সামনে তার অসাধারণ ক্ষিপ্রতা এবং বলের ওপর কড়া নজর তাকে ফুটবল জগতের অন্যতম সেরা গোলরক্ষকে পরিণত করেছে।

কানাডায় অনুষ্ঠিত এবারের ফিফা মহিলা বিশ্বকাপের শুরু থেকেই দুর্দান্ত খেলেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। শেষ পর্যন্ত তাদের চেষ্টার ফলও পেয়েছে। গতবারের চ্যাম্পিয়ন জাপানকে পেনাল্টি শূটআউটে হারিয়ে স্বপ্নের বিশ্বকাপ নিজেদের করে নেয় আমেরিকার প্রমীলারা। সেই সঙ্গে মধুর প্রতিশোধটাও নিয়ে নেয় হোপ সোলোর দল। কেননা ২০১১ বিশ্বকাপেও ফাইনালে উঠেছিল তারা। কিন্তু সেই বিশ্বকাপে তাদের হারিয়ে শিরোপা-উচ্ছ্বাসে ভেসেছিল জাপানের মহিলারা। এবার কানাডায় সেই প্রতিশোধটাই নিয়ে নিল আমেরিকার মেয়েরা। এর আগে ১৯৯৯ সালে ফিফা মহিলা বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল আমেরিকা। এবার তাই দেড় দশকেরও বেশি সময় পর শিরোপা জেতার সুযোগ আসে তাদের। অন্যদিকে বিশ্বের সেরা গোলরক্ষকের তকমাটা গায়ে মাখানো হোপ সোলোরও এটা ছিল শেষ সুযোগ। শেষ পর্যন্ত সুযোগ কাজে লাগিয়ে আমেরিকার প্রমীলারাই বিশ্বকাপ পুনরুদ্ধার করল।