২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সাতক্ষীরায় পঙ্গু মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের ওপর জামায়াতের হামলা

সাতক্ষীরায় পঙ্গু মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের ওপর জামায়াতের হামলা
  • আহত ৩, হাসপাতালে ভর্তি ॥ জমি থেকে উচ্ছেদ চেষ্টার অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার, সাতক্ষীরা থেকে ॥ প্রায় ৩০ বছর ধরে সরকারী খাস জমিতে বসবাসরত এক ভূমিহীন পঙ্গু মুক্তিযোদ্ধা, তার স্ত্রী ও কন্যার ওপর হামলা চালিয়েছে এলাকার চিহ্নিত জামায়াত ক্যাডাররা। দীর্ঘদিন ধরে এই জমি থেকে উচ্ছেদ করতে ব্যর্থ জামায়াত ক্যাডার আব্দুর রউপ, হাফিজুর রহমান, নুরুল ইসলাম, হাবিবুর রহমান, হান্নান গাজীসহ তাদের সঙ্গীরা বুধবার ভোরে পরিবারটির ওপর হামলা চালায় বলে অভিযোগ করেছেন হামলায় আহত মুক্তিযোদ্ধা সুন্নত আলি মল্লিক (৬৫)। হামলা ও মারপিটে আহত হয়েছেন সুন্নত আলির স্ত্রী সরবানু বেগম (৫০) ও কন্যা নাজমা পারভীন ( ২০)। লুট করা হয়েছে নগদ টাকাসহ মূল্যবান কাগজপত্র। ভেঙ্গে দেয়া হয়েছে ঘরের চাল। হামলা ও মারপিটের পর প্রায় ৫ ঘণ্টা অবরুদ্ধ করে রাখার পর পুলিশের সহযোগিতায় সকাল এগারোটায় আহতদের শ্যামনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে জেলার শ্যামনগর উপজেলার চিংড়াখালি গ্রামে। হামলার ঘটনা ঘটেছে স্বীকার করে শ্যামনগর থানার ওসি বুধবার দুপুরে জনকণ্ঠকে বলেন, জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে এই ঘটনা ঘটেছে বলে তিনি শুনেছেন। অবরুদ্ধ করে রাখার ঘটনা ঠিক নয় দাবি করে ওসি বলেন এর আগেও গত মাসে একবার হামলার ঘটনা ঘটে। আসামিরা জামিনে রয়েছে। বাড়িতে অবরুদ্ধ করে রাখার বিষয়ে আহত সুন্নত আলি বলেন, থানা থেকে ২ জন পুলিশ গিয়ে তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করতে সহায়তা করেছে। কালিগঞ্জ সার্কেলের এসএসপি মনিরুজ্জামান বিকেল সোয়া পাঁচটায় জনকণ্ঠকে বলেন, হামলা নয়, একটি দোকান নির্মাণ নিয়ে সামান্য ধাক্কাধাক্কি হয়েছে বলে তিনি শুনেছেন। সুন্নত আলির প্রতিপক্ষ সংখ্যাগরিষ্ঠ উল্লেখ করে তিনি বলেন, এ বিষয়ে মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। শ্যামনগর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ নজরুল ইসলাম বিকেল পাঁচটায় হাসপাতালের রেজিস্টার দেখে সুন্নত আলিসহ ৩ জনকে স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তির বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, সুন্নত আলির উপরে ও নিচের দুটি দাঁত ভেঙ্গে গেছে বলে রেজিস্টারে উল্লেখ রয়েছে।

পঙ্গু মুক্তিযোদ্ধা সুন্নত আলির অভিযোগ, প্রায় ৩০ বছর ধরে তিনি এই সরকারী খাস জমিতে বসবাস করছেন। সরকারীভাবে তার নামে জমির কাগজপত্র হয়েছে। এই জমি দখল করার জন্য এলাকার প্রভাবশালী জামায়াত রাজনীতির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট নেতাকর্মীরা গত ১০ থেকে ১২ বছর ধরে পাঁয়তারা চালাচ্ছে । ইতোমধ্যে তারা তার ভাইয়ের নামে থাকা ২৬ শতক জমি দখল করে নিয়েছে। তার বসবাসরত জমি দখল করতে গত ২০ জুন তার ওপর হামলা চালানো হয়। থানায় মামলা করলে পুলিশ দুর্বল ধারায় মামলা রেকর্ড করলে আসামিরা জামিনে ছাড়া পেয়ে বুধবার ফের হামলা চালিয়েছে বলে তিনি অভিযোগ করেন। হামলায় সুন্নত আলির দুটি দাঁত ভেঙ্গেছে। তার স্ত্রী ও কন্যার শরীরে চোট লেগেছে। চিকিৎসাধীন সুন্নত আলি তার ও পরিবারের ওপর হামলাকারীদের বিচার ও পরিবারের নিরাপত্তার জন্য সরকারের উচ্চ পর্যায়ের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।