২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কনডেম সেলে রেডিওতে রায় শুনেছেন সাকা

নিজস্ব সংবাদদাতা, গাজীপুর, ২৯ জুলাই ॥ যুদ্ধাপরাধের মামলায় ফাঁসিতে মৃত্যুদ-প্রাপ্ত আসামি বিএনপি নেতা সালাউদ্দিন কাদের (সাকা) চৌধুরী বুধবার গাজীপুরের কাশিমপুরের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার-১-এর কনডেম সেলে বসেই রেডিওতে রায় শুনেছেন। রায় শোনার পর তিনি স্বভাবসুলভ বেশ হাসি-খুশি রয়েছেন। সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী রিভিউ করবেন বলে কারা কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছেন। গাজীপুরের কাশিমপুরের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার-১-এর জেলার মোঃ ফরিদুর রহমান রুবেল জানান, যুদ্ধাপরাধের মামলায় ফাঁসিতে মৃত্যুদ-প্রাপ্ত আসামি সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী বুধবার সকালে জেলখানায় তার কনডেম সেলে বসেই রেডিওতে ও কারা কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে আপীল বিভাগের দেয়া রায় শুনেছেন। ট্রাইবুনালের দেয়া রায়ে তার মৃত্যুদ-ের পূর্বের রায় বহাল রেখেছে আপীল বিভাগ। মৃত্যুদ- বহালের খবর শোনার পরও সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর মনোবল শক্ত ও স্বাভাবিক ছিল। তিনি স্বভাবসুলভ খুবই হাসি-খুশি ছিলেন। রায় শোনার পর এক প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, তিনি আইনের সর্বোচ্চ লড়াই লড়বেন। এ সময় তিনি বলেন, আমি রিভিউ করব। আমি আশাবাদী আমার রিভিউ টিকবে এবং ন্যায় বিচার পাব। সাকা চৌধুরী আরও বলেন, আমি দেশের জন্য, জনগণের জন্য রাজনীতি করেছি। আমি তো ফেলনা কোন লোক নই। আমার কিছু কথার কারণে আজ হয়ত অনেকেই ক্ষুব্ধ। আজ আমাকে হয়রানি করা হচ্ছে। তিনি বলেন, আমি নির্দোষ, আমি রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার, আমাকে মিথ্যাভাবে ফাঁসানো হয়েছে। যুদ্ধাপরাধের মামলায় গ্রেফতার হয়ে তিনি বর্তমানে গাজীপুরের কাশিমপুরের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার-১-এর কনডেম সেলে বন্দী রয়েছেন। তিনি ২০১২ সালের ২৩ অক্টোবর থেকে এ কারাগারেই আছেন। এর আগে তিনি ২০০৯ সাল থেকে কাশিমপুরের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার-২-এ বন্দী ছিলেন।

কাশিমপুরের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার-১-এর সুপার সুব্রত কুমার জানান, গণমাধ্যমে রায় শোনার পর জেলার ফরিদুর রহমানকে সঙ্গে নিয়ে জেল সুপার সুব্রত কুমার বুধবার সকাল ১০টার দিকে সাকা চৌধুরীর সেলে যান। এ সময় তারা তার রায়ের কথা জানান। তবে রায়ের কপি হাতে পেলেই আনুষ্ঠানিকভাবে ব্যাবস্থা নেয়া হবে। এর আগে সেলে বসে সাকা চৌধুরী নিজেই রেডিওর মাধ্যমে তার রায় শুনেছেন। এ রায়কে কেন্দ্র করে আমরা আগে থেকেই সতর্ক রয়েছি, কারাগার এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার করেছি, নজরদারিও বাড়ানো হয়েছে।

এদিকে রায়ের ব্যাপারে সাকা চৌধুরীর ছেলে হুমায়ুন কাদের চৌধুরীর প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে তিনি কোন প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত না করে সকলের কাছে দোয়া চেয়ে মোবাইল ফোনটি কেটে দেন।