২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

‘কালাম স্যার কখনই বাড়িতে টিভি রাখতেন না’

  • পার্সোনাল সেক্রেটারি হ্যারি শেরিডন

বাড়িতে টিভি ছিল না আবদুল কালামের। অল ইন্ডিয়া রেডিও শুনতেন তিনি। জানালেন ২৪ বছর ধরে তাঁর পার্সোনাল সেক্রেটারির পদে কাজ করা হ্যারি শেরিডন। মৃত্যু সংবাদ বিশ্বাস করতে পারছিলেন না তিনি। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় যে মানুষটির ফিরে আসার কথা ছিল, পরের দিন সকালেই যে তাঁর মরদেহ ফিরবে তা তিনি কল্পনাতেই আনতে পারেননি। সোমবার সন্ধ্যায় প্রথম ফোনটি আসে যে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন কালাম। পরের ফোনটিতেই আসে তাঁর মৃত্যুসংবাদ। খবর ওয়েবসাইটের।

স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে হ্যারি বলেন, ‘স্যার বাড়িতে কোনদিনই টিভি রাখতেন না। সাধারণত রেডিও শুনতেন। বেশিরভাগ সময় অল ইন্ডিয়া রেডিও শুনতেন তিনি। সকাল সাড়ে ছয়টা থেকে সাতটার মধ্যে দিন শুরু হতো তাঁর। রাত দু’টো পর্যন্ত জেগে থাকতেন স্যার।’

প্রতিদিন নিজের ই-মেইল চেক করতেন কালাম। প্রতি সপ্তাহেই কোথাও না কোথাও নিমন্ত্রণ পেতেন তিনি। নিয়মিত তাঁকে চেক করতে আসতেন তাঁর ফিজিশিয়ান। কিন্তু, কখনও কোনও অস্বাভাবিকতা ধরা পড়েনি। সবশেষে তিনি বলেন, ‘এপিজে কালাম স্যার খুব ভাল মানুষ ছিলেন। দেশে তাঁর মতো মানুষ আরও বেশি দরকার।’

১৯৩১ সালের ১৫ অক্টোবর তামিলনাড়ুর একটি ছোট শহরে জন্ম কালামের। শহর ছোট্ট হলেও বড় স্বপ্ন নিয়েই পৃথিবীর পথে যাত্রা শুরু করেছিলেন তিনি। তিনি বলতেন, ‘স্বপ্নকে হতে হবে বিশাল। জীবনে ছোট লক্ষ্য নির্ধারণ একটি অপরাধ।’ সচ্ছলতার শৈশব ছিল না কালামের, খাবার জোটাতে আট বছর বয়সে তিনি খবরের কাগজও বিক্রি করেন। পরে বিজ্ঞানী হিসেবে নাম কুড়ালেও সেই শৈশবে পারস্যের কবি জালালউদ্দিন রুমির একটি কবিতাই কালামের হৃদয়ে স্বপ্নের বীজ বুনে দিয়েছিল, যে কবিতাটি গত বছর ঢাকার তরুণদের আবৃত্তি করে শোনান তিনি।

সেই স্বপ্নের পথে ছুটে অ্যারোনটিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পড়াশোনা করে ভারতের প্রথম মহাকাশ যান এসএলভি-৩ তৈরিতে প্রধান ভূমিকা রাখেন কালাম। ওই মহাকাশ যান দিয়েই ১৯৮০ সালে ভারত প্রথম ক্ষেপণাস্ত্র রোহিনী উৎক্ষেপণ করে।

ভারতের কৌশলগত ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থাপনা (স্ট্র্যাটেজিক মিসাইল সিস্টেমস) এবং ১৯৯৮ সালে পারমাণবিক অস্ত্রের পরীক্ষায়ও প্রধান ভূমিকা রাখেন এ বিজ্ঞানী। রাষ্ট্রপতি হওয়ার আগে তিনি প্রতিরক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন সংস্থা এবং ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থায় কাজ করেন। অবশ্য পরে নিজেকে পরমাণু অস্ত্রমুক্ত বিশ্ব গড়ার প্রচারে যুক্ত করেন কালাম।