২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ইয়াকুব মেমনের ফাঁসি আজ কার্যকর

ভারতের মুম্বাই হামলার মৃত্যুদ-প্রাপ্ত আসামি ইয়াকুব মেমনের দায়ের করা আপীল বুধবার সুপ্রীমকোর্টের তিন সদস্যের ডিভিশন বেঞ্চ খারিজ করে দিয়েছে। একই সঙ্গে শেষ মুহূর্তে করা প্রাণভিক্ষা চেয়ে গবর্নর বিদ্যাসাগর রাওয়ের কাছে করা পিটিশনও খারিজ হয়ে গেছে। ফলে ৩০ জুলাই বৃহস্পতিবার মেমনের ৫৪তম জন্মদিনেই ফাঁসি হচ্ছে ১৯৯৩ সালে সংগঠিত মুম্বাই বোমা হামলার অন্যতম আসামি। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়া অনলাইনের।

প্রধান বিচারপতি এইচ এল দাত্তুর গঠিত তিন সদস্যের ডিভিশন বেঞ্চ বুধবার জানায়, বিচারের প্রক্রিয়া এবং মৃত্যু পরোয়ানায় কোন ঘাটতি ছিল না। এ দিন সকাল থেকে এই বিষয়ে শুনানি শুরু হয়। শুনানি শেষে ওই বেঞ্চ মেমনের আর্জি খারিজ করে দেয়। ইতোমধ্যে রাষ্ট্রপতির কাছে এ দিন আরও একবার ফাঁসি মওকুবের আর্জি জানিয়েছে মেমন। পাশাপাশি, মহারাষ্ট্রের রাজ্যপালের কাছেও একই আবেদন করেছিল মেমন। এ দিন রাজ্যপাল সেই আর্জিও খারিজ করে দিয়েছে। বৃহস্পতিবার তার ফাঁসি হবে কি না তাই নিয়ে মঙ্গলবার দু’ভাগ হয়ে গিয়েছিল শীর্ষ আদালতের দুই বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ। ওইদিন এক বিচারপতি ইয়াকুবের শেষ আর্জি মেনে তার ফাঁসিতে স্থগিতাদেশ দিয়েছিলেন। অন্য বিচারপতি খারিজ করে দিয়েছিলেন তার সেই আর্জি। শেষে ইয়াকুবের আর্জি শুনতে তিন বিচারপতিকে নিয়ে নতুন ডিভিশন বেঞ্চ গঠন করেন প্রধান বিচারপতি দাত্তু। ওই বেঞ্চের তিন সদস্য বিচারপতি দীপক মিশ্র, বিচারপতি অমিতাভ রায় এবং বিচারপতি পি সি পন্থ এ দিন সকালেই এজলাসে বসেন। এই ডিভিশন বেঞ্চ টাডা কোর্টের নির্দেশ বহাল রাখলে বৃহস্পতিবার অর্থাৎ ৩০ জুলাই নাগপুর জেলে ফাঁসি হবে ইয়াকুবের। ১৯৯৩-এর মুম্বাই বিস্ফোরণে প্রায় আড়াইশ’ মানুষ মারা যায়। ওই বিস্ফোরণে মূল অভিযুক্ত ইয়াকুম মেমন। এ দিন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবীশের কাছে ওই বিস্ফোরণে ক্ষতিগ্রস্তদের পরিবারের সদস্যরা দেখা করেন। তাঁদের দাবি, মেমনকে ফাঁসি দেয়া হোক।

নির্বাচিত সংবাদ