২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

এবার বড় আকারে স্মার্টফোন ও ট্যাব এক্সপো

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ আগামী ১৩ আগস্ট থেকে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ‘স্মার্টফোন ও ট্যাব এক্সপো ২০১৫’। বিগত আয়োজনগুলোর তুলনায় এবারের প্রযুক্তিপণ্যের প্রদর্শনীটির আয়োজন করা হচ্ছে বড় পরিসরে।

দেশের প্রযুক্তিপ্রেমীদের আধুনিক স্মার্টফোন ও ট্যাবলেট কম্পিউটার পরখ করে দেখার ও কেনার সুযোগ করে দিতে দেশে চতুর্থবারের মতো আয়োজনটি করছে এক্সপো মেকার। এতে বিশ্বখ্যাত সব ব্র্যান্ডের স্মার্টফোন ও ট্যাবলেট পাওয়া যাবে। ইতোমধ্যে স্যামসাং, সিম্ফনি, স্টাইলাস, গোল্ডবার্গ, জেডটিই, অপ্পো, এলিট, আসুস, লেনোভো, মাইসেল, টুইনমস, প্রেস্টিজিও, শাওমি, জিওনি, এইচটিএস, এডাটা, এইচপিএস, আর এন, গ্যাজেট গ্যাং সেভেন, মিউজু, আইনল, ডিএক্স জেনারেশনসহ আরও অনেকে প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণ নিশ্চিত করেছে।

প্রদর্শনী উপলক্ষে অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর পক্ষে বরাবরের মতো থাকছে বিশেষ ছাড় ও উপহার। এছাড়া দর্শনার্থী, ক্রেতারা প্রযুক্তির আধুনিক সব স্মার্ট ডিভাইস যাচাই-বাছাই করে দেখা ও কেনার সুযোগ পাবেন।

এক্সপো মেকারের হেড অব অপারেশনস নাহিদ হাসনাইন সিদ্দিকী জানান, দর্শনার্থী ও বিক্রেতাদের সুবিধার্থে এবার মেলার পরিধি বাড়ানো হচ্ছে। সর্বশেষ প্রযুক্তি ও মডেলের ডিভাইস প্রদর্শনী ও বিক্রির পাশাপাশি থাকছে অন্যান্য আয়োজনও।

তিন দিনব্যাপী এই প্রদর্শনী প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত উন্মুক্ত থাকবে।

টয়োটাকে টপকে গাড়ি বিক্রিতে শীর্ষে ভক্সওয়াগন

চলতি বছরের জানুয়ারি-জুন অর্ধবার্ষিকীতে জাপানের টয়োটাকে টপকে গাড়ি বিক্রিতে শীর্ষ স্থান অধিকার করেছে জার্মানির ভক্সওয়াগন। এ নিয়ে প্রথমবারের মতো তীব্র প্রতিযোগিতামূলক ট্যালিতে শীর্ষে উঠল প্রতিষ্ঠানটি। এক বিবৃতিতে টয়োটা বলেছে, চলতি বছরের প্রথম ছয় মাসে ৫.০২ মিলিয়ন গাড়ি গাড়ি বিক্রি করেছে প্রতিষ্ঠানটি। যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ১.৫ শতাংশ কম। জাপানের বাজারে কোম্পানিটির গাড়ি বিক্রি ভালো না হওয়ায় এমনটি ঘটেছে বলেও জানায় তারা। এ নিয়ে প্রথমবারের মতো ‘জ্বালানি সাশ্রয়ী’ কনসেপ্ট নিয়ে বাজারে আসা টয়োটা ভক্সওয়াগনের কাছে শীর্ষ স্থান হারাল। এর আগে ২০১১ সালে জাপানের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে সুনামি ও ভূমিকম্পের আঘাতে উৎপাদন ব্যাহত হওয়ায় জেনারেল মোটরস’র কাছে শীর্ষ স্থান হারায় টয়োটা। -অর্থনৈতিক রিপোর্টার

ভারতে পাঁচ শর বেশি স্টোর খুলছে এ্যাপেল

অনুমোদিত এবং সক্রিয় রিসেলারদের নিয়ে ভারতে ৫০০টিরও বেশি স্টোর খুলতে যাচ্ছে এ্যাপল। স্টোরগুলো অ্যাপলের দিক নির্দেশনায় পরিচালিত হবে এবং অনুমোদিত এসব বিক্রেতারা তাদের ব্যক্তিগত মালিকানা পাবে, এ মুহূর্তের এক খবরে এ তথ্য জানানো হয়। ভারতে এ্যাপল পণ্যের বব্যসা সংক্রান্ত এক রিপোর্টের তথ্য মতে, ৯৩ শতাংশ আইফোন বিক্রির মাধ্যমে ভারতের বাজারে অ্যাপল পণ্যের কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। তাই প্রতিষ্ঠানটি সেখানে ফিজিক্যাল স্টোর বাড়ানো চিন্তাভাবনা করছে অথোরাইজড মোবিলিটি রিসেলার (এএমআর) প্রোগ্রামের মাধ্যমে। উল্লেখ্য, গত বছর পর্যন্ত ভারত এ্যাপলের প্রত্যাশার তালিকায় কখনও শীর্ষে ছিল না। এছাড়া কিছুদিন আগেও রিপোর্ট হয় ভারতে এ্যাপলের বিশেষ ধরনের স্টোর খোলা নিয়ে। তাই এখনকার এই খবরটি সেই সম্ভাবনামূলক প্রশ্নেরই উত্তর বলে মনে করা হচ্ছে। কিন্তু রিটেইলার বাছাইয়ের বিষয়ে এ্যাপল খুব ভেবেচিন্তায় কাজ করছে বলে প্রতীয়মান। -অর্থনৈতিক রিপোর্টার