১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

যানজটে বিপন্ন গাইবান্ধা জেলা শহর

যানজটে বিপন্ন গাইবান্ধা জেলা শহর

নিজস্ব সংবাদদাতা, গাইবান্ধা ॥ গাইবান্ধা শহরে বাইপাস সড়ক না থাকায় যানজটে বিপন্ন জনগণকে পথ চলাচলে চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। অথচ বাইপাস সড়ক নির্মাণ প্রকল্পটি ১৬ বছরেও অনুমোদন পায়নি। কবে নাগাদ হবে তা কেউ নিশ্চিত করে বলতে পারছেন না।

গাইবান্ধা সড়ক ও জনপদ (সওজ) বিভাগ সুত্র জানায়, ১৯৯৮ সালে বাইপাস সড়কের জন্য একটি প্রকল্প প্রনয়ণ ও নকশা তৈরি করা হয়। শহরের সুংসুংগির মোড় এলাকার আনসার ক্লাব থেকে প্রফেসর কলোনি সংলগ্ন তিনগাছতল হয়ে পূর্বপাড়ার বালাসি সড়ক পর্যন্ত বাইপাস সড়ক নির্মাণের প্রস্তাব দেয়া হয়। সড়কের দৈর্ঘ্য প্রায় ৯ কি.মি ও প্রস্থ ৯ দশমিক ৭৬ মিটার। জমি অধিগ্রহনসহ এই সড়কে একটি সেতু ও চারটি কালভার্ট নির্মাণের প্রস্তাব দেয়া হয়। এজন্য জমি অধিগ্রহণসহ ব্যয় ধরা হয়েছে ৫৬ কোটি টাকা। বাইপাস সড়কটি নির্মাণে প্রাথমিকভাবে ব্যয় ধরা হয়েছিল মোট ১২ কোটি টাকা। প্রকল্প প্রণয়নের পর তা যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হলেও অনুমোদন মেলেনি। সেসময় শহরের বুকচিরে নির্মিত পলাশবাড়ি-গাইবান্ধা-বালাসিঘাট সড়কটি ফিডার রোড হিসাবে চিহ্নিত ছিল। যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের নিয়মানুযায়ি ফিডার রোডে বাইপাস সড়ক হয়না। তাই মন্ত্রণালয় বাইপাস সড়ক নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দেয়। কিন্তু ২০০৫ সালে এই সড়কটি আঞ্চলিক মহাসড়ক হিসেবে স্বীকৃতি পায়। এরপরেও বাইপাস সড়ক বাস্তবায়নের কোন অগ্রগতি হয়নি।

এদিকে শহরে প্রয়োজনীয় অটোবাইক, সিএনজি, ম্যাজিক, ট্রাক, টেম্পু ও রিকসা ষ্ট্যান্ড নেই। ফলে জেলা শহরের সংকীর্ণ রাস্তায় যত্রতত্র যানবাহন দাঁড়িয়ে থেকে যানজটকে আরও বাড়িয়ে দেয়। এছাড়া শহরের ধারণ ক্ষমতার অতিরিক্ত যানবাহন চলাচল করার ফলে যানজট এখন চরম আকার ধারণ করেছে। বিশেষ করে পোষ্ট অফিস ও পুরাতন জেলখানা সংলগ্ন সড়ক, পুরাতন বাজার-বালাসি সড়ক, বড় মসজিদ থেকে কালিবাড়ি ভিএইড সড়ক, জেলখানার মোড় থেকে জেলা প্রশাসক কার্যালয় পর্যন্ত পলাশবাড়ি সড়কটিতে সীমাহিন যানজটে স্থবির হয়ে থাকে। ফলে যানবাহন ও পথচারি চলাচলে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। অথচ সংশ্লি¬ষ্ট কর্তৃপক্ষের এব্যাপারে টনক নড়ছে না।

সড়ক ও জনপদ বিভাগ সুত্রে জানা গেছে, বাইপাস সড়ক নির্মাণ প্রকল্পটি অনুমোদনের জন্য পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। অনুমোদন পাওয়া গেলে প্রকল্প বাস্তবায়নে কাজ শুরু হবে।