১২ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সার্কের সাংস্কৃতিক রাজধানী ॥ এগিয়ে বগুড়া

  • এক মাসের মধ্যে চূড়ান্ত ঘোষণা

সমুদ্র হক ॥ দক্ষিণ এশীয় আঞ্চলিক সহযোগিতা সংস্থার (সার্ক) কালচারাল ক্যাপিটাল (সাংস্কৃতিক রাজধানী) হওয়ার পালায় বাংলাদেশের নির্বাচিত তিনটি বড় ও ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপটের শহরের মধ্যে এখন পর্যন্ত বগুড়া অগ্রাধিকারে আছে। এক মাসের মধ্যে চূড়ান্ত ঘোষণা দেয়া হবে। এক বছরের জন্য ঘোষিত ওই শহরে ২ হাজার ১৬ সাল জুড়ে ইতিহাস, ঐতিহ্য এবং সংস্কৃতির প্রতিটি শাখা প্রশাখার আদ্যপান্ত নিয়ে সার্কভুক্ত ৮টি দেশের শিল্পী সাহিত্যিক গবেষক বুদ্ধিজীবী সাংস্কৃতিক সংগঠন যোগ দেবে। ইতোমধ্যে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সকল প্রতিষ্ঠানের উর্ধতন কর্মকর্তার সঙ্গে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর কয়েক দফায় বৈঠক করেছেন। প্রাথমিক সকল কার্যক্রম শুরু হয়েছে। একটি ওয়ার্কিং কমিটিও গঠন করা হয়েছে। কালচারাল ক্যাপিটাল ঘোষণা হলে কর্মকা-কে সফল করে তুলতে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ও যোগ হবে। যাতায়াতের পথঘাট ও অবকাঠামো ঠিক রাখার জন্য সড়ক ও সেতু মন্ত্রণালয় এবং গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ও মাঠে নামবে। কালচারাল ক্যাপিটাল ঘোষণাকারী সার্কের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান শ্রীলঙ্কায় অবস্থিত সার্ক কালচারাল সেন্টারের উচ্চ পদের দুই কর্মকর্তা বগুড়া, কুষ্টিয়া ও কুমিল্লা শহর পরিদর্শন করেছেন। সার্ক কালচারাল সেন্টারের পরিচালক ওয়াসেনফি কতুয়েলা ও উপ-পরিচালক সুন্দরিয় ডেভিড রোড্রিগো জানিয়েছেন, ইতিহাস ও ঐতিহ্যের বিষয়কে সামনে রেখে এক বছরের জন্য সাংস্কৃতিক রাজধানী হওয়ার সকল কাঠামো ও অবকাঠামো বিবেচনায় এনে তারা তিনটি শহরের খুঁটিনাটি সকল দিক বিশ্লেষণ করছেন। বেশকিছু রিপোর্টে তারা শ্রীলঙ্কায় পাঠিয়েছেন। শ্রীলঙ্কার প্রতিনিধিদলের সঙ্গে থাকা শিল্পকলা একাডেমি বগুড়ার কালচারাল অফিসার সাগর বসাক জানিয়েছেন বগুড়া কালচারাল ক্যাপিটাল হলে এক বছরের জন্য শিল্পকলা একাডেমির উল্লেখযোগ্য ইউনিট যেন ঠিকমতো দায়িত্ব পালন করে সেই প্রস্তুতিও নেয়া হচ্ছে। চলতিবছর থেকেই সার্ক কালচারাল ক্যাপিটাল ধারণাটি বাস্তবায়িত হচ্ছে। এই কনসেপ্টের উদ্ভাবক সার্কভুক্ত দেশ শ্রীলঙ্কা। এই ধারণাকে সমর্থন দেয় সার্কের ৮টি দেশ। উল্লেখ্য দক্ষিণ এশিয়ার ৭টি দেশ নিয়ে গঠিত সার্কের সঙ্গে আফগানিস্তান নতুন যোগ হয়ে সংখ্যা দাঁড়ায় ৮ এ। নতুন যোগ হওয়া আফগানিস্তানের ইতিহাসখ্যাত বড় শহর বামিয়ানকে এক বছরের জন্য সার্কের প্রথম কালচারাল ক্যাপিটাল ঘোষণা করা হয়। চলতি বছর (২০১৫) জুড়ে সেই দেশের রাজধানী কাবুল থেকে অনেকটা দূরে বামিয়ানে সাংস্কৃতিক কর্মকা- হচ্ছে। বাংলাদেশ সার্কের কালচারাল ক্যাপিটাল হওয়ার দ্বিতীয় দেশ। বাংলাদেশের তিনটি শহরকে সেন্টার বিবেচনায় নেয়। যাচাইয়ে পরিদর্শনরত সার্ক কালচারাল সেন্টারের পরিচালক ওয়াসেনফি কতুয়েলা সে দেশর প্রথম সারির পত্রিকায় সাংবাদিকতা করেছেন। তিনি বাংলাদেশের মহাস্থানগড় সম্পর্কে অবগত। নব্বইয়ের দশকের শুরুতে শ্রীলঙ্কার প্রয়াত সাবেক প্রেসিডেন্ট প্রেমাদাসা মহাস্থনগড় সফর করেন। মহাস্থানগড়ের কাছে গোকুল মেড় (বেহুলার বাসরঘর নামে জনশ্রুতি) এবং ভাসুবিহার যা যথাক্রমে বৌদ্ধ ভিক্ষুদের ধর্মশালা এবং বৌদ্ধদের নির্মিত উচ্চ শিক্ষার বিদ্যায়তন হিসাবে ইতিহাসে উদঘাটিত হয়েছে। এ ছাড়াও ইতিহাসের সবচেয়ে বড় কীর্তি প্রাচীন পুন্ড্রবর্ধন ভুক্তির রাজধানী পুন্ড্রনগর খ্যাত মহাস্থানগড় এখন পর্যন্ত দেশের সবচেয়ে প্রাচীন নগরী হিসাবে স্বীকৃত। এই মহাস্থানগড়ের মাটির নিচে আছে কয়েকটি কালের সভ্যতার নিদর্শন। যা প্রতিবছর বাংলাদেশ-ফ্রান্স প্রতœতাত্ত্বিক যৌথ উদ্যোগের খননে উদঘাটিত হচ্ছে। প্রতœতত্ত্ব অধিদফতরের কর্মকর্তাগণের ফাইন্ডিংস- খ্রিস্টপূর্ব চতুর্থ শতকেরও আগে থেকে পরবর্তী সময়ে এই অঞ্চলে যে কয়েকটি যুগের সন্ধান মেলে তার মধ্যে আছে মৌর্য, সুঙ্গ, গুপ্ত, পাল, সেন, কুশান শশাঙ্ক, আরও কয়েক যুগ পর আসে মুসলিম সভ্যতা এবং তারপরই ব্রিটিশরা এসে দখল করে নেয়। এর পরের ইতিহাস সকলেরই জানা। বগুড়ার মহাস্থনগড় প্রাচীন ইতিহাসের বিশাল ডালায় বহু ভা-ার নিয়ে আছে।

এই ভা-ারের ওপরই সার্ক কালচারাল ক্যাপিটাল হওয়ার সর্বপ্রথম অগ্রাধিকার দেয়া আছে, এমনটিই জানিয়েছে সূত্র। ওই সূত্রের সঙ্গে টেলিফোনে যোগাযোগ করা হলে জানান, বগুড়াকে সার্ক কালচারাল রাজধানী ঘোষণার জন্য নীতিনির্ধারণী পর্যায়ে প্রাথমিক সিদ্ধান্ত হয়েছে। ইতিহাস ও ঐতিহ্যের সঙ্গে ঢাকা থেকে যাতায়াত, আবাসন, মিলনায়তন আপ্যায়ন সবদিক বিবেচনা করা হয়েছে। বগুড়ায় আন্তর্জাতিক মানের (ফোর স্টার) একটি হোটেলসহ অধিক উন্নতমানের কয়েকটি শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত হোটেল ও মিলনায়তন আছে। বগুড়া পল্লী উন্নয়ন একাডেমি চত্বর আন্তর্জাতিক মানের। ঢাকা থেকে বগুড়ার দূরত্ব মোটর গাড়িতে সর্বোচ্চ চার ঘণ্টা। বগুড়া শহর থেকে মহাস্থনগড় ১০ কিলোমিটার এবং উন্নত পাকা সড়ক। উন্নত সড়ক যোগাযোগ বগুড়া থেকে সরাসরি কুষ্টিয়ার রবীন্দ্রনাথের কুঠিবাড়ি ও লালন শাহর ছেউরি আখড়াবাড়িতে যাওয়া যায়। সার্কের ক্যাপিটাল সিটি ঘোষিত হলে সার্কের দেশ ছাড়াও এইসব কর্মকা-ে বিশ্বের অনেক দেশ অংশ নেবে। কালচারাল ক্যাপিটালের স্বাগতিক দেশ ও অতিথি দেশ সকলেই চাইবে নিজ নিজ দেশের কালচারকে তুলে ধরতে। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান চলচ্চিত্র প্রদর্শন সেমিনার সিম্পোজিয়াম পরিদর্শন নিয়েই একটি বছর সংস্কৃতির ইতিহাসের পাতা মেলে ধরার সুযোগ পাবে। বাংলাদেশ সেই সুযোগটি পাচ্ছে আগামী বছর। কালচারাল ক্যাপিটালে সম্ভাব্যতায় এগিয়ে আছে বগুড়া।