২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

অনৈতিক কাজ দেখে ফেলায় কিশোরকে পিটিয়ে হত্যা

নিজস্ব সংবাদদাতা, মির্জাপুর, ৩১ জুলাই ॥ অনৈতিক কাজ দেখে তা প্রকাশ করার হুমকি দেয়ায় মির্জাপুরে কিশোর আশিক দেওয়ানকে জীবন দিতে হলো। সে উপজেলার আজগানা ইউনিয়নের বেলতৈল গ্রামের আলী হোসেনের ছেলে।

পুলিশ সূত্র জানায়, ১৪ জুলাই চিতেশ্বরী কাঠ বাগান থেকে আশিকের লাশ উদ্ধার হয়। এ ব্যাপারে তার বাবা আলী হোসেন ১৬ জুলাই অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে মির্জাপুর থানায় মামলা করেন। আদালতে দেয়া তার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দীর পর তাঁর দেয়া তথ্যমতে ঘটনায় জড়িত মির্জাপুরের বেলতৈল গ্রামের মোঃ শরিফ (১৯) ও আলমগীর হোসেন (১৫) কে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এদিকে তাদের গ্রেফতারের পর সুজন পুলিশকে জানায়, সে আশিকের চাচা ট্রাক চালক খাজা দেওয়ানের সহকারী হিসেবে কাজ করতো। কয়েকদিন আগে সুজন তার সহযোগী শরিফ, আলমগীর ও শুকুর মিয়াকে নিয়ে চিতেশ্বরীর কাঠ বাগানে এক মহিলার সঙ্গে অনৈতিক কাজে লিপ্ত হয়। যা শুকুর মিয়া মোবাইল ফোনে ভিডিও চিত্র ধারণ করেন। ওই ভিডিও চিত্রটি দেখে তা চাচার কাছে প্রকাশ করবে বলে শুকুরকে আশিক হুমকি দেয়।

এ হুমকিই আশিকের জীবনে কাল হয়ে দাঁড়ায়।

পরে তারা গত ১৩ জুলাই সন্ধ্যার পর জরুরী কথা আছে বলে আশিককে ডেকে চিতেশ্বরী কাঠবাগান এলাকায় নিয়ে হাত-পা বেঁধে পিটিয়ে হত্যা করে লাশ জঙ্গলের পাশে পানি বোঝাই একটি খাদে ফেলে রাখে। পরদিন পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে।

এ ব্যাপারে মির্জাপুরের বাঁশতৈল পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই জাকির হোসেন জানান, ঘটনার সঙ্গে জড়িত সুজনকে প্রথমে গ্রেফতার করা হয়। পরে তার দেয়া তথ্যে হত্যাক-ের রহস্য বেরিয়ে আসে। সেই সঙ্গে তার দুই সহযোগীকে গ্রেফতার করা হয়। এছাড়া অপর এক সহযোগী শুকুরকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।