২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পাখিই কি খাগড়াগড় বোমা বিস্ফোরণের তালহা শেখ?

  • ঢাকার কাছে জানতে চায় এনআইএ

শংকর কুমার দে ॥ ঢাকায় আটক কারাবন্দী জঙ্গী সংগঠন জেএমবির একাংশের ভারপ্রাপ্ত আমির আবু তালহা মহম্মদ ফাহিম ওরফে পাখিই কি কলকাতার বর্ধমান খাগড়াগড়ের বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় ১০ লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষিত তালহা শেখ? ঢাকার কাছে জানতে চাইছে কলকাতার তদন্ত সংস্থা এনআইএ। এ জন্য খুব শীঘ্রই জেএমবির আমির আবু তালহা মহম্মদ ফাহিম ওরফে পাখিকে কারাগার থেকে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। এ খবর দিয়েছে গোয়েন্দা সংস্থা।

গোয়েন্দা সংস্থার কর্মকর্তা বলেন, পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদের ডোমকলের বাসিন্দা নইমকে হাওড়া স্টেশনের কাছ থেকে গ্রেফতার করা হয় গত ১৮ জুনে। গ্রেফতারের পর নইমকে জিজ্ঞাসাবাদ করে কলকাতার তদন্ত সংস্থা এনআইএ। এনআইএর বক্তব্য, জঙ্গী সংগঠন জামাতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশ (জেএমবি)-এ নইম ছিল তালহা শেখের ঘনিষ্ঠ অনুগামী। ঢাকায় গ্রেফতার হওয়া আবু তালহা মহম্মদ ফাহিম ওরফে পাখি সত্যিই বর্ধমান খাগড়াগড়ের তালহা শেখ কিনা তার সত্যতা যাচাই করা যাবে, নইমের ছবি দেখে, তা গোয়েন্দাদের দাবি। ‘ঢাকায় বন্দী ফাহিম কি তালহা, অনুসন্ধানে এনআইএ’- এই শিরোনামে ভারতের আনন্দবাজার পত্রিকায় প্রতিবেদন প্রকাশ করে। প্রতিবেদনে বলা হয়, ঢাকায় ধৃত জঙ্গীদের মধ্যে খাগড়াগড় কা-ের এক চাঁই আছে কি না, সে ব্যাপারে দিশা দেখাবে আর এক বন্দী!

ভারতের জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা (এনআইএ)-র অফিসারদের কারও কারও সন্দেহ, খাগড়গড় কা-ের অন্যতম মূল অভিযুক্ত তালহা শেখ এখন বাংলাদেশ পুলিশের হাতে বন্দী। ধৃত ব্যক্তিই তালহা কি না, সেই সম্পর্কে নিশ্চিত হতে খাগড়াগড় কা-ের আরও এক অভিযুক্ত ও ধৃত নুরুল হক ওরফে নইমকে ফের জেরা করতে পারেন গোয়েন্দারা। এনআইএর কর্তাদের একাংশের সন্দেহ, ওই পাখি আসলে খাগড়াগড় কা-ের অন্যতম অভিযুক্ত তালহা শেখ। তবে এনআইএ-র এক শীর্ষকর্তা বলেন, এখনই নিশ্চিতভাবে কিছু বলা যাচ্ছে না। ধৃত পাখিই খাগড়াগড় কা-ের অভিযুক্ত তালহা কি না, আমরা খোঁজ নিচ্ছি।

তদন্ত সংস্থা এনআইএ-এর দাবি, যেই তালহা শেখ ঢাকায় বন্দী, সেই তালহা শেখই জেএমবির একাংশের ভারপ্রাপ্ত আমির হিসেবে আবু তালহা মহম্মদ ফাহিম ওরফে পাখি নামে গ্রেফতার হয় গত ২৭ জুলাইয়ে। রাজধানী ঢাকার উত্তরা এলাকা থেকে জামাতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশ (জেএমবি)-এর ৮ জেএমবির জঙ্গীকে পুলিশ গ্রেফতার করে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদে করে কারাগারে পাঠিয়ে দেয়। গ্রেফতারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে আছে, খোদ জেএমবির ভারপ্রাপ্ত আমির বা প্রধান আবু তালহা মহম্মদ ফাহিম ওরফে পাখি।

চলতি বছর মার্চ মাসে খাগড়াগড় কা-ের চার্জশিট জমা দেয় তদন্ত সংস্থা এনআইএ। সেখানেই ফেরার অভিযুক্ত হিসেবে তালহার নাম ছিল। তালহার হদিস পেতে ১০ লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করে এআইএ। তদন্তকারী সংস্থা এনআইএ গোড়া থেকেই তালহাকে বাংলাদেশী হিসেবে সন্দেহ করেছিলেন। তালহা গত কয়েক বছর ধরে নদিয়ার দেবগ্রামের ডাঙাপাড়া ও বীরভূমের বোলপুরের শান্তিপল্লীতে ঘাঁটি গেড়ে জঙ্গী সংগঠনের কার্যকলাপ চালাচ্ছিল বলে জানতে পারে এনআইএ। গত ২ অক্টোবর খাগড়াগড় কা-ের বিস্ফোরণের পর থেকে পলাতক তালহা।

নির্বাচিত সংবাদ