২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ঢাকার টেস্টের চতুর্থদিনও বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ঢাকা টেস্টের প্রথম দিনে স্কোরবোর্ডে যে ২৪৬/৮ লেখা ছিল, চতুর্থ দিন শেষেও তাই থাকল। চার দিনের মধ্যে শুধু প্রথম দিন খেলা হয়েছে। তাও ৮৮.১ ওভার। দ্বিতীয়, তৃতীয় ও চতুর্থ দিনের ম্যাচও বৃষ্টিতেই ভেসে গেল। তিন দিন একটি বলও মাঠে গড়ায়নি। তবে দ্বিতীয় ও তৃতীয় দিন পরিত্যক্ত হওয়ার ঘোষণা মেনে নেয়া গেছে। চতুর্থ দিন এসে যে দ্রুতই দিনের খেলা পরিত্যক্ত হওয়ার ঘোষণা দেয়া হলো, তা সবার মনেই প্রশ্ন জাগাল। আরও সময় কেন অপেক্ষা করা হলো না?

দুপুর একটা ৫ মিনিটে দিন পরিত্যক্ত হওয়ার ঘোষণা দিলেন ম্যাচ রেফারি ক্রিস ব্রড। এরপর সন্ধ্যা ছয়টা পর্যন্ত বৃষ্টির কোন আলামতই মিলল না ছিল রোদ ঝলমলে আকাশ। তাই প্রশ্নটি আরও গভীর হলো। তৃতীয় দিন এত বৃষ্টি থাকার পরও যেখানে দুপুর তিনটা ৫ মিনিট পর্যন্ত অপেক্ষা করা হয়েছে, সেখানে চতুর্থদিন সে রকম বৃষ্টি না থাকার পরও অপেক্ষা এত কম করা হলো কেন? বৃষ্টি থামলেও টানা দু’দিন বৃষ্টি হওয়াতে মাঠ খেলার অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। আজ বাংলাদেশ-দক্ষিণ আফ্রিকা দ্বিতীয় টেস্টের পঞ্চম ও শেষ দিন। এদিন খেলা হলেও যা হবে, খেলা না হলেও একই পরিণতি হবে। ড্র হবে টেস্ট। সেই সঙ্গে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজও ড্র হয়ে যাবে। বাংলাদেশ কিংবা দক্ষিণ আফ্রিকা নয়, জয়ী হবে শুধুই বৃষ্টি।

তৃতীয় দিনের মতো চতুর্থ দিনেও দুই দলের ক্রিকেটাররা খেলার জন্য প্রস্তুত ছিলেন। মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামেও এসেছিলেন। কিন্তু আবারও দুই টিমকে হোটেলেই ফিরতে হয়েছে। হোটেলে ফেরার আগে বাংলাদেশ দলের অলরাউন্ডার মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ হতাশাই প্রকাশ করেছেন। বলেছেন, পাঁচদিন মাঠে নামার পরিকল্পনা ও মানসিক প্রস্তুতি থাকার পর টানা তিন দিন খেলা পরিত্যক্ত হওয়া স্বাভাবিকভাবেই বিরক্তিকর। আমরা খেলতে এসেছি। আমরা যদি খেলাটাই না খেলতে পারি তাহলে তো আর কিছুই হলো না।’

দক্ষিণ আফ্রিকার উইকেটরক্ষক ড্যান ভিলাস প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে নেমেছেন। জাতীয় দলের জার্সি গায়ে জড়িয়ে প্রথমবার টেস্ট খেলছেন অথচ প্রথমবারেই এমন বিরক্তিকর পরিস্থিতির মুখে পড়েছেন। তার হতাশা যেন একটু বেশিই। তা প্রকাশও করেছেন। বলেছেন, ‘দক্ষিণ আফ্রিকা দলে খেলাটা সব সময়ই আমার কাছে স্বপ্ন ছিল। প্রথম দিনে ক্যাপ পাওয়ার জন্য অবশ্যই মুখিয়ে ছিলাম। কিন্তু বৃষ্টির কারণে সত্যিই হতাশা কাজ করেছে।’

সেই হতাশা সবাইকেই ঘিরে ধরেছে। এ হতাশা থেকে আজই মুক্তিও মিলে যাবে। শেষ হয়ে যাবে দক্ষিণ আফ্রিকার বাংলাদেশ সফর। চট্টগ্রাম টেস্ট বৃষ্টির জন্য ড্র হয়। ঢাকা টেস্টেও একই পরিণতি হচ্ছে। তাতে টেস্ট সিরিজ ড্র’ই হচ্ছে।