২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বেয়ার্নকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন উলফসবার্গ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ নতুন মৌসুম (২০১৫-১৬) শুরুর আগেই ধাক্কা খেল বেয়ার্ন মিউনিখ। মৌসুম শুরুর টুর্নামেন্ট জার্মান সুপার কাপের শিরোপা বঞ্চিত হয়েছে পেপ গার্ডিওলার দল। শনিবার রাতে ফাইনালে বাভারিয়ানদের টাইব্রেকারে ৫-৪ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে উলফসবার্গ। নির্ধারিত সময়ের খেলা ১-১ গোলে অমীমাংসিত ছিল।

উলফসবার্গ এ্যারানায় ম্যাচের প্রথমার্ধ কোন গোল না হলেও দ্বিতীয়র্ধের শুরুতেই (৪৯ মিনিট) ডাচ্ তারকা আরিয়েন রোবেনের গোলে এগিয়ে যায় জার্মান বুন্দেসলিগার চ্যাম্পিয়ন বেয়ার্ন। খেলার নির্ধারিত সময় শেষের এক মিনিট আগে নিকলাস বেন্ডটনার গোল করলে সমতায় ফেরে স্বাগতিক উলফসবার্গ (১-১)। নির্ধারিত সময় শেষ হলে খেলা গড়ায় ভাগ্যনির্ধারণী টাইব্রেকারে। সেখানে উলফসবার্গ প্রতি শটে গোল পেলেও বেয়ার্নের হয়ে গোল করতে ব্যর্থ হন স্প্যানিশ ফুটবলার জাবি এ্যালানসো। ফলে ৫-৪ গোলের জয় নিয়ে প্রথমবারের মতো জার্মান সুপার কাপ জয়ের উল্লাসে মেতে ওঠেন উলফসবার্গের ফুটবলাররা।

আগের দুই বছরই বরুসিয়া ডর্টমুন্ডকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল বেয়র্ন মিউনিখ। এবার তাই সুপার কাপের হ্যাটট্রিক শিরোপার হাতছানি ছিল মিউনিখের ক্লাবটির। এ লক্ষে শক্তিশালী দলই মাঠে নামান কোচ পেপ গার্ডিওলা। এরপরও হতাশ হতে হয়েছে সাবেক ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নদের। মূলত গোল মিসের মহড়ার কারণেই হারতে হয়েছে বেয়ার্নকে। গোলপোস্টে ব্রাজিল বিশ্বকাপের সেরা গোলরক্ষক ম্যানুয়েল নিউয়েরও হতাশ করেন। এই হারে বেয়ার্নে গার্ডিওলার ভবিষ্যত আরেকবার অনিশ্চয়তার মধ্যে পড়ল। এমনিতেই কয়েক মাস ধরে গুঞ্জন আছে সাবেক বার্সিলোনা কোচ মিউনিখ ছাড়বেন। এটি আরও ত্বরান্বিত হয়েছে টানা দুটি আসরে ব্যর্থ হওয়ায়। উয়েফা চ্যাম্পিয়ন লীগের সেমিফাইনালে বার্সিলোনার কাছে হেরে মৌসুম শেষ করেছিল বেয়ার্ন। এবার মৌসুমের শুরুটাও হার দিয়ে হলো। হারটা উলফবার্গের কাছে হওয়ায় গার্ডিওলার উপর চাপটাও বেড়েছে।

তবে ফাইনালে হারলেও দলের পারফর্মেন্স নিয়ে সন্তুষ্টির কথা জানিয়েছেন গার্ডিওলা। ৪৪ বছর বয়সী এই কোচ বলেন, পুরো ম্যাচেই দল ভাল খেলেছে। কয়েক মিনিটের আধিপত্য হারানোর খেসারত দিতে হয়েছে আমাদের। পেনাল্টি মূলত ভাগ্যনির্ধারণী বিষয়। সেখানে আমরা হেরেছি। তিনি আরও বলেন, গত মৌসুমে দল ভাল করেছে। এবারও আমাদের লক্ষ্য অভিন্ন। বিশেষ করে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের শিরোপা জিততে চাই। ফাইনালে হারলেও প্রতিপক্ষের প্রশংসা করতে ভুল করেননি গার্ডিওলা। বলেন, উলফবার্গ কৌশলী ফুটবল খেলেছে। সেখানে তারা সফল হয়েছে। তাদের অভিনন্দন।

বর্তমান চুক্তি অনুযায়ী ২০১৬ সালের জুন পর্যন্ত বেয়ার্নের তাঁবুতে আছেন গার্ডিওলা। তবে গুজব আছে হয়ত বা ম্যানচেস্টার সিটি বা অন্য কোথাও যোগ দিতে পারেন তিনি। কিন্তু সব আশঙ্কাকে উড়িয়ে দিয়ে বেয়ার্নেই থাকার ইচ্ছা পোষণ করেন সাবেক বার্সিলোনা কোচ। সাবেক কোচ জাপ হেইঙ্কেসের অধীনে ২০১৩ সালে বেয়ার্ন ট্রেবল জয় করেছিল। গত মৌসুমে ওই সাফল্যের পুনরাবৃত্তির স্বপ্নে বিভোর ছিল বাভারিয়ানরা। কিন্তু গত মে মাসে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের সেমিতে বার্সিলোনার কাছে হেরে সেই স্বপ্ন পূরণ হয়নি। ২০০৮-০৯ মৌসুমে ৩৮ বছর বয়সে বার্সিলোনার কোচ হিসেবে প্রথম মৌসুমেই গার্ডিওলা চ্যাম্পিয়ন্স লীগের শিরোপা জিতেছিলেন। ২০০৯ সালে তিনি ছয় শিরোপা জিতে অনন্য রেকর্ড গড়েছিলেন। যার মধ্যে ছিল স্প্যানিশ লা লিগা, স্প্যানিশ কাপ, স্প্যানিশ সুপার কাপ, ইউরোপিয়ান সুপার কাপ ও ফিফা ক্লাব বিশ্বকাপ। বেয়ার্নে যোগ দেয়ার পরও সাফল্যে ভাসছেন। তবে সর্বশেষ কয়েক মাসে ব্যর্থতা তাকে ঘিরে ধরেছে। যে কারণে মিউনিখে গার্ডিওলার ভবিষ্যতও অনিশ্চয়তার মধ্যে পড়েছে।

নির্বাচিত সংবাদ