১৩ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জিম্বাবুইয়ের দারুণ জয়

  • ৭ উইকেটে ধরাশায়ী নিউজিল্যান্ড

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বিশ্বকাপের ফাইনালিস্ট নিউজিল্যান্ডকে ৭ উইকেটে ধরাশায়ী করে দারুণ এক জয় তুলে নিল জিম্বাবুইয়ে। উত্তেজনাপূর্ণ হাইস্কোরিং ম্যাচে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৪ উইকেটে ৩০৩ রান করে সফরকারী নিউজিল্যান্ড। জবাবে ম্যাচের ‘নায়ক’ ক্রেইগ অরভিনের ম্যারাথন সেঞ্চুরির (১৩০*) ওপর ভর করে ৪৯ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় জিম্বাবুইয়ে। কিউইদের নাস্তানাবুদ করে তিন ওয়ানডের সিরিজে ১-০তে এগিয়ে যায় এলটন চিগম্বুরার দল। একই ভেন্যু হারারে স্পোর্টস ক্লাব মাঠে তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডে মঙ্গলবার।

জয়ের জন্য তিন শতাধিক রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ক্রিকেট খেলে স্বাগতিকরা। ১৪.৫ ওভারে ৭৪ রান এনে দেন দুই ওপেনার হ্যামিল্টন মাসাকাদজা ও চামু চিভাবা। ৪২ রান করে আউট হন চিভাবা। এরপরই মাসাকাদজার সঙ্গে যোগ দেন অরভিন। বিশ্বের অন্যতমসেরা বোলিংয়ের বিপক্ষে মনোমুগ্ধকর ব্যাটিং করেন দুজনে। দ্বিতীয় উইকেটে ২০ ওভারে ১২০ রান যোগ করে দলকে জয়ের পথে নিয়ে যান তারা। ৮৪ রান করে আউট হন মাসাকাদজা। তবে ক্যারিয়ারের প্রথম আন্তর্জাতিক সেঞ্চুরি তুলে নেন অরভিন। ১০৮ বলে ১১ চার ও ৫ ছক্কায় ১৩০ রানে অপরাজিত থেকে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি। নিউজিল্যান্ডের হয়ে ৩ উইকেটই নেন নাথান ম্যাককুলাম।

তার আগে নিউজিল্যান্ডের ব্যাটিংয়ের শুরুটা দেখে মনে হয়নি তারা এতদূর যেতে পারবে। ৩৯ রানে দুই উইকেট হারানো সফরকারীরা ১০০ রান পূর্ণ করে ২৪তম ওভারে! ততক্ষণে অবশ্য উইকেটে থিতু হয়ে দলকে রেসে ফিরিয়েয়েছেন রস টেইলর ও কেন উইলিয়ামসন। মূলত এই দু’জনের চমৎকার ব্যাটিংই বিশ্বকাপের ফাইনালিস্টদের বড় সংগ্রহের রাস্তা তৈরি করে দেয়। তৃতীয় উইকেটে ২৭.৪ ওভারে ১৩৭ রান যোগ করেন তারা। ৩ রানের জন্য ক্যারিয়ারের আট নম্বর ওয়ানডে সেঞ্চুরি পাননি উইলিয়ামসন। ১০২ বলে ১১ চার ও ১ ছক্কায় ব্যক্তিগত ৯৭ রানে পানিয়াঙ্গারার বলে বোল্ড হন কিউই অধিনায়ক। তবে অভিজ্ঞ টেইলর ঠিকই তিন অঙ্কের দেখা পেয়েছেন। ১২২ বলে ১১২ রানের দুরন্ত ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন তিনি। সাবেক অধিনায়ক তার ক্যারিয়ারের ১৫তম সেঞ্চুরির ইনিংসটি সাজান ৬ চার ও ৩ ছক্কা দিয়ে। শেষদিকে ৩২ বলে ৪৩ রানের একটি ঝড়ো ইনিংস খেলে সফরকারীদের তিন শ’র কোটা পেরোতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা গ্রান্ট ইলিয়টের। ৯.৩ ওভারে দলের ভা-ারে ৭৯ রান যোগ করেন ইলিয়ট-টেইলর। জিম্বাবুইয়ের হয়ে দুই পেসার তিনাশে পানিয়াঙ্গারা ২ ও চামু চিভাবা নেন ১ উইকেট।

স্কোর ॥ নিউজিল্যান্ড ৩০৩/৪ (৫০ ওভার), জিম্বাবুইয়ে ৩০৪/৩ (৪৯ ওভার)

ফল ॥ জিম্বাবুইয়ে ৭ উইকেটে জয়ী।

ম্যাচসেরা ॥ ক্রেইগ অরভিন (জিম্বাবুইয়ে)

সিরিজ ॥ তিন ওয়ানডের সিরিজে জিম্বাবুইয়ে ১-০তে এগিয়ে।