২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ছয় মাসে সর্বোচ্চ সূচকের রেকর্ড পুঁজিবাজারে

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবসে দেশের উভয় পুঁজিবাজারে সূচকের উত্থানে শেষ হয় লেনদেন। এই নিয়ে টানা তৃতীয় দিনের মতো সূচক বেড়েছে পুঁজিবাজারে। এদিন শুরু থেকেই শেষ পর্যন্ত সূচকে উর্ধমুখী প্রবণতা লক্ষ্য করা গেছে। সোমবার সূচকের পাশাপাশি বেড়েছে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ার দর। আর টাকার অঙ্কেও উভয় বাজারে কিছুটা বেড়েছে লেনদেন। এদিকে গত ছয় মাসের সর্বোচ্চ রেকর্ড গড়ল ডিএসইর সার্বিক সূচক। তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ শেষ হতে চলা এবং জুন ক্লোজিং কোম্পানিগুলোর অর্থবছর শেষ হওয়ায় লভ্যাংশ ঘোষণাকে কেন্দ্র করে বাজারে বিশেষ চাহিদা তৈরি হয়েছে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, পুঁজিবাজারে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরের ছুটির চার কার্যদিবস থেকেই বাড়ছে সূচক ও লেনদেন। এ ধারা বিদ্যমান থাকলে দেশের পুঁজিবাজার আবারও স্থিতিশীলতার দিকে যাবে। পাশাপাশি বিনিয়োগকারীদের মনে স্বস্তি ফিরে আসবে বলে মনে করছেন বাজার সংশ্লিষ্টরা।

সকালে ইতিবাচক প্রবণতা দিয়ে শুরুর পরে প্রধান বাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সার্বিক সূচক আগের দিনের চেয়ে ৬০ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৪ হাজার ৮৬২ পয়েন্টে। যা গত ছয় মাসের সর্বোচ্চ। এর আগে চলতি বছরের গত ১৯ জানুয়ারি ডিএসইর সার্বিক সূচক অবস্থান করে ৪ হাজার ৮৬৭ পয়েন্টে।

এদিকে ডিএসই শরিয়াহ সূচক ১০ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১২০৩ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ১৫ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ১৯০১ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩১৯টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে বেড়েছে ২০১টি, কমেছে ৮২টি আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৬টি কোম্পানির শেয়ারদর। যা টাকায় লেনদেন হয়েছে ৮১১ কোটি ৭১ লাখ ৪৩ হাজার টাকা।

ডিএসইর লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো : এপোলো ইস্পাত, স্কয়ার ফার্মা, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, বেক্সিমকো ফার্মা, যমুনা ওয়েল, খুলনা পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড, বেক্সিমকো, শাশা ডেনিমস, তিতাস গ্যাস ও ইউনাইটেড পাওয়ার।

দরবৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলো : বিচ হ্যাচারি, ইসলামী ব্যাংক, বিডি ওয়েল্ডিং, জেমিনি সী ফুড, বিডি ল্যাম্পস, লিব্রা ইনফিউশন, লিগ্যাসি ফুটওয়ার, এ্যাপেক্স ফুটওয়ার, এ্যাপোলো ইস্পাত ও প্রাইম ব্যাংক।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো হলো : ফাস্ট বাংলাদেশ ফিক্সড ইনকাম ফান্ড, জুটস স্পিনার্স, সোনারগাঁও টেক্সটাইল, প্রগতি লাইফ, ৭ম আইসিবি, হাক্কানী পাল্প, আইসিবি ২য় এনআরবি ও ন্যাশনাল পলিমার।

এদিকে ঢাকার মতো দেশের অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক একচেঞ্জেও সব ধরনের সূচকের সঙ্গে লেনদেন বেড়েছে। সকালে দরবৃদ্ধি দিয়ে শুরুর পরে দিনশেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সাধারণ মূল্যসূচক ১০৪ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৯ হাজার ৮২ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ২৫৭টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৪৫টির, কমেছে ৭৯টির ও দর অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৩টির। যা টাকায় লেনদেন হয়েছে ৬১ কোটি ৬২ লাখ ৩৫ হাজার টাকা। এর আগের কার্যদিবস অর্থাৎ রবিবার সিএসইর সাধারণ মূল্যসূচক ৩০ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৮ হাজার ৯৯০ পয়েন্টে। ওই দিন লেনদেন হয় ৬০ কোটি ৭৬ লাখ ২৩ হাজার টাকা।

সিএসইর লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো : ইউনাইটেড পাওয়ার, অলিম্পিক এক্সেসরিজ, এপোলো ইস্পাত, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, বিএসআরএম লিমিটেড, খুলনা পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড, ইসলামী ব্যাংক, বেক্সিমকো, স্কয়ার ফার্মা ও বেক্সিমকো ফার্মা।