২৪ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নতুন কমিটি দাবিতে বাকৃবি ছাত্রলীগের ৭৯ নেতার পদত্যাগ

বাকৃবি সংবাদদাতা ॥ বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (বাকৃবি) শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ কমিটির উচ্চ পর্যায়ের কয়েকজন নেতার বিরুদ্ধে অপরাজনীতির অভিযোগ এনে ক্যাম্পাসে তাদের অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে কমিটির ৭৯ নেতা পদত্যাগ করেছেন। সোমবার সংবাদ সম্মেলন করে পদত্যাগের কথা জানান ছাত্রলীগের ওই নেতারা। এ সময় তারা বর্তমান কমিটিকে মেয়াদোত্তীর্ণ ও সন্ত্রাসী উল্লেখ করে তা ভেঙ্গে দিয়ে অবিলম্বে নতুন কমিটি গঠনের দাবি জানান। জানা যায়, দুপুর ২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রে সংবাদ সম্মেলন করেন ছাত্রলীগের বর্তমান কমিটির এবং পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা। সংবাদ সম্মেলনের লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সংগঠনের যুগ্ম-সম্পাদক খন্দকার তায়েফুর রহমান। লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, ২০১৩ সালের ৮ মে মুর্শেদুজ্জামান খান বাবুকে সভাপতি ও সাইফুল ইসলামকে সাধারণ সম্পাদক করে এক বছরের জন্য ৫ সদস্যের কমিটি ঘোষণা করা হয়। ১ বছর ৩ মাস ধরে কমিটির মেয়াদ শেষ হয়ে গেলেও বাবু-সাইফুল তার অনুগত কিছু ক্যাডার নিয়ে ক্যাম্পাসে মাদক, শিক্ষার্থী নির্যাতন, শিক্ষক লাঞ্ছিত করা, টেন্ডার ও চাঁদাবাজি, ছাত্রীদের যৌন হয়রানিসহ বিভিন্ন ধরনের সন্ত্রাসী কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছিল। তারা বিভিন্ন সময় তাদের স্বার্থের সংগঠনের অন্য নেতাদের মত প্রকাশের স্বাধীনতা না দিয়ে বিভিন্ন ভিত্তিহীন অভিযোগে মারধর করে সাংগঠনিক কাজ থেকে বিরত করে রাখে। সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক কয়েকজন ক্যাডার নিয়ে দুই বছরেরও বেশি সময় ধরে ক্যাম্পাসে অরাজকতা, সন্ত্রাসী কার্যক্রম ও অপরাজনীতি করে আসছিল। ইতোমধ্যে সন্ত্রাসী হামলা, ভাংচুর, চাঁদাবাজি, অস্ত্র মামলাসহ বিভিন্ন মামলায় সহ-সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, যুগ্ম-সম্পাদকসহ ৭ জন নেতা জেলহাজতে আছেন এবং দুই সহ-সভাপতি ও একজন যুগ্ম-সম্পাদক চার্জশীটভুক্ত আসামি রয়েছেন। লিখিত বক্তব্যে, বর্তমান কমিটির সভাপতি সাধারণ সম্পাদকসহ তার অনুসারীদের ক্যাম্পাসে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেন এবং মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি ভেঙ্গে দিয়ে ক্যাম্পাস ছাত্রলীগের নতুন কমিটি দেয়ার জন্য কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের কাছে দাবি জানান। বর্তমান কমিটি থেকে পদত্যাগকারীর মধ্যে সহ-সভাপতি ১ জন, যুগ্ম-সম্পাদক ৩ জন, সাংগঠনিক সম্পাদক ৩ জন, সম্পাদকীয় পদে ১৯ জন, উপ-সম্পাদক ১৬ জন, সহ-সম্পাদক ৪ জন, কার্যকরী সদস্য ২১ জন এবং বিভিন্ন আবাসিক হল কমিটির ১২ জন সভাপতিও সাধারণ সম্পাদক রয়েছেন।