২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

এখনও নিখোঁজ ৬১ যাত্রী

মীর নাসির উদ্দিন উজ্জ্বল, মুন্সীগঞ্জ থেকে জানান, সরকারী হিসেবে এখনও নিখোঁজ রয়েছে ৬১ যাত্রী। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে এই দুর্ঘটনায় ৪৯ যাত্রীর লাশ উদ্ধার হয়। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোতে এখনও কান্না থামেনি। অনেক নিখোঁজের স্বজন পদ্মা পাড়ে এসে চোখের জল ফেলে আর আহাজারি করে এখনও। এই চাঞ্চল্যকর দুর্ঘটনার তদন্ত কমিটির রিপোর্টে যে সব সুপারিশ করা হয়েছে তা বাস্তবায়িত হচ্ছে না। তাই উত্তাল পদ্মায় আবারও এমন দুর্ঘটনার আশঙ্কা করছে সংশ্লিষ্টরা।

দুর্ঘটনার পরের দিন ৫ আগস্ট রাতে “অধিক মুনাফার আশায় ক্ষমতার অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাই করে বেপোরোয়া লঞ্চ চালিয়ে অবহেলাজনিত নরহত্যার” অপরাধে ছয় জনকে আসামি করে লৌহজং থানায় হত্যা মামলা দায়ের করে বিআইডব্লিউটিএ। এর আগে ৪ আগস্ট মেরিন কোর্টে পাঁচ জনের বিরুদ্ধে প্রথম মামলা করে সমুদ্র পরিবহন অধিদফতর। পরে গ্রেফতার করা হয় পিনাকের মালিক আবু বক্কর সিদ্দিক কালু ও তার পুত্র ওমর ফারুক লিমনকে।

নির্বাচিত সংবাদ