২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই ঘন্টায়    
ADS

বোলিং নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ার হুঙ্কার কোহলির

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ পুরনো সত্যটা সামনে তুলে আনলেন বিরাট কোহলি। ভারত টেস্ট অধিনায়ক পরিষ্কার জানিয়ে দিলেন, ব্যাটিং নয়, শ্রীলঙ্কা সফরে বোলিংই হবে তার প্রধান শক্তি। এ জন্য পাঁচ বোলার নিয়ে নামার পরিকল্পনা তার! নিজের আফ-ফর্ম কাটিয়ে স্বভাবসুলভ আক্রমণাত্মক ক্রিকেট খেলার প্রত্যয় কোহলির কণ্ঠে। শ্রীলঙ্কাগামী বিমানে চড়ার আগে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমকে এমনটাই জানিয়েছেন সেনসেশনাল ভারতীয় এই ব্যাটসম্যান। গলে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্ট শুরু ১২ তারিখ। তার আগে বৃহস্পতিবার থেকে রয়েছে একটি তিনদিনের প্রস্তুতি ম্যাচ।

‘টেস্ট ম্যাচ জিতে হলে আপনাকে শক্তিশালী বোলিং আক্রমণ নিয়ে নামতে হবে।’Ñ বলেন মোড়ল দেশের টেস্ট অধিনায়ক। শ্রীলঙ্কার কন্ডিশন স্পিন সহায়ক হবে বলে সেখানে দুই পেসারের পাশাপাশি তিন বিশেষজ্ঞ স্পিনারের পক্ষে নিজের যুক্তি তুলে ধরে কোহলি আরও যোগ করেন, ‘প্রয়োজন মনে করলে আমরা তিন স্পিনারকেও খেলাতে পারি। আইডিয়াটা হলো টেস্ট জেতার জন্য প্রতিপক্ষের ২০ উইকেট তুলে নেয়া। আমি দারুণভাবে বিশ্বাস করি, সেরা বোলারদের প্রথম একাদশে রাখতে আর তাদের উইকেট তুলে নেয়ার সুযোগ করে দিতে হবে।’

তবে ব্যাটসম্যানদেরও সতর্ক করে দিয়েছেন কোহলি। সরাসরিই বলেছেন, ‘পাঁচ বোলার খেলাতে যাচ্ছি মানে এই যে, টপঅর্ডারের ছয় ব্যাটসম্যানকে বাড়তি দায়িত্ব নিতে হবে।’ বোলারদের কার কাছ থেকে কি চাইছেন, সেই ছকটাও তৈরি করে ফেলেছেন ভারতের তরুণ এই অধিনায়ক। রবিচন্দ্রন আশ্বিন, ভুবনেশ্বর কুমার ও হরভজন সিংয়ের ওপর অগাধ আস্থাশীল কোহলি বলেন, ‘অশ্বিন, ভাজ্জি আর ভুবি কেবল অন্যতমসেরা বোলারই নয়, প্রয়োজনে ওর চমৎকার ব্যাটিংও করে থাকে। অশ্বিনের টেস্ট গড় ৪০, ভাজ্জিও পরীক্ষিতÑ আমি জানি না কেন ওদের অলরাউন্ডার বলব না? এটাই তো চ্যালেঞ্জ।’

শ্রীলঙ্কার মাটিতে ভারতের রেকর্ড ভাল নয়। তাই চাপ থাকছে। তবে অতীত নিয়ে মাথা ঘামাতে চান না কোহলি, ‘অতীত বা ভবিষ্যত নয়। আমরা একেকটা টেস্ট টার্গেট করে এগোতে চাই। যাতে মনোসংযোগ ধরে রেখে মাঠে সেরাটা দেয়া যায়।’ দলে সেরা ব্যাটসম্যান হলেও ব্যাট হাতে কোহলির সম্প্রতি অবস্থা ভাল নয়। সর্বশেষ ১৭ ইনিংসে কোন হাফসেঞ্চুরি নেই টেস্ট অধিনায়কের, সেঞ্চুরি ১টি! বিশ্বকাপের পর বাংলাদেশ সফরে চার ইনিংস মিলিয়ে করেছেন ৬৩ রান। টেস্টের দায়িত্ব পাওয়ার পর পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে এই প্রথম দল নিয়ে শ্রীলঙ্কায় যাচ্ছেন, রান পেতে মারিয়া কোহলি স্বেচ্ছায় অংশ নেন ঘরের মাটিতে অস্ট্রেলিয়া ‘এ’ দলের বিপক্ষে দ্বিতীয় আনঅফিসিয়াল টেস্টে।

সেখানে দুই ইনিংসে সাজঘরে ফিরেছেন ১৬ ও ৪৫ রানে। ১২ আগস্ট শুরু তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্ট। কোহলি চিন্তিত নন ‘ব্যাটসম্যান হিসেবে আমি সব সময় দায়িত্ব নিয়েই খেলি। দলকে জেতানোর জন্য খেললে আপনাকে দায়িত্বশীল হতেই হবে। তাই আমার খেলার ধরন পরিবর্তনের কোন কারণ দেখছি না।’ রানে ফিরতে কোহলির ব্যাটিংয়ের ধরন বদলানো উচিত, অনেকের এমন মন্তব্যের জবাবে তার উত্তর। ‘শেষ পর্যন্ত আপনি কিভাবে খেলছেন, সেটাই গুরুত্বপূর্ণ। আমি এভাবেই ক্রিকেট খেলি। তাই ব্যাটিংয়ে আমাকে আলাদাভাবে কোন কিছু করার প্রয়োজন নেই। সব সময় দলের জন্য খেলেছি, যতদিনই ক্রিকেট খেলি না কেন, এভাবেই খেলব।’

বিশ্বকাপের আগে অস্ট্রেলিয়া সফরে এ্যাডিলেডে মহেন্দ্র সিং ধোনির ‘স্ট্যান্ডবাই’ অধিনায়ক ছিলেন। ‘ফুলটাইম’ ক্যাপ্টেন্সি করেছেন কেবল সিডনির শেষ টেস্টে। বাংলাদেশে একমাত্র টেস্টটি ভেস্তে গিয়েছিল বৃষ্টিতে। সে অর্থে সাদা পোশাকে ‘অধিনায়ক’ কোহলির আসল চ্যালেঞ্জটা শুরু হচ্ছে শ্রীলঙ্কা সফর দিয়ে। ‘এটা দলনেতা হিসেবে আমার প্রথম পূর্ণাঙ্গ সিরিজ। বাংলাদেশ সফরে কেবল একটাই ম্যাচ খেলেছি। সুতরাং এবারের সিরিজটা আমার জন্য বেশ বড় একটা চ্যালেঞ্জ। দলের খেলোয়াড়রা এখনও বেশ তরুণ। সবাই ওদের ক্যারিয়ার মাত্র শুরু করল। নতুন শুরুর একটা আকর্ষণও আছে। শ্রীলঙ্কা সফর দিয়েই দল হিসেবে গড়ে ওঠার মিশনটা শুরু করতে চাই।’