২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নাখোশ কোচ মরিনহো...

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ সেই ২০০৪ সাল থেকে জোশে মরিনহোর সঙ্গে সাক্ষাতের শুরু আর্সেন ওয়েঙ্গারের। কিন্তু প্রতিবারই স্পেশাল ওয়ানের মুখোমুখি হয়ে হতাশ হতে হয়েছে ফরাসী কোচকে। অবশেষে রবিবার মরিনহোকে প্রথমবারের মতো হারিয়েছেন ওয়েঙ্গার।

এই দুই তারকা কোচের সম্পর্ক এমনিতেই সাপে-নেউলে। ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে ম্যাচ শেষে আরেকবার এ প্রমাণ মিলেছে। মরিনহোর সঙ্গে হাত মেলাননি ওয়েঙ্গার। পরে সংবাদ সম্মেলনে এ নিয়ে গোসসা প্রকাশ করেছেন চেলসি কোচ। শুধু তাই নয়, আর্সেনালের নেতিবাচক খেলারও নিন্দা জানান ৫২ বছর বয়সী এই কোচ।

মরিনহো বলেন, আমি বিশ্বাস করি এই পেশাটা খুব কঠিন। এখানে থেকে সবাইকে সম্মান জানাতে হয়। কিন্তু অনেকের ক্ষেত্রেই এমনটি দেখা যায় না। ম্যাচে আর্সেনালের অতিমাত্রায় রক্ষণাত্মক ফুটবলেরও দুয়ো দেন মরিনহো। বলেন, কোন দল যদি নিজেদের ডিফেন্সেই নয় ফুটবলার রাখে তাহলে তো কিছু করার থাকে না। অন্যদিকে আর্সেনাল কোচ ওয়েঙ্গার বলেন, এই জয় নতুন মৌসুমে ফুটবলারদের আত্মবিশ্বাস যোগাবে। আশা করছি ইপিএলে দল ভাল করবে। গানার্স কোচ রিয়াল মাদ্রিদের করিম বেনজেমাকে নিয়ে গুঞ্জনেরও জবাব দেন। বলেন, বেনজেমাকে দলে ভেড়াতে ৬৫ মিলিয়ন ইউরো দর হাঁকানোর বিষয়টি সম্পূর্ণই গুজব। সত্য কথা বলতে, এ ধরনের কোন কিছুই হয়নি। এসব সংবাদের কোন ভিত্তি নেই। উল্লেখ্য, গ্রীষ্মকালীন দল বদলের বাজারে স্ট্রাইকার কেনার বিষয়ে ওয়েঙ্গার নিজেই আগ্রহ দেখিয়েছিলেন। অবশ্য নির্দিষ্ট কারও নাম উল্লেখ করেননি। পরবর্তীতে বেনজেমার প্রতি আর্সেনালের আগ্রহের বিষয়টি আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমে বেশ আলোচিত হয়। মরিনহোর বিপক্ষে আগের ১৩ ম্যাচের সাতটি হেরেছেন, ছয়টি ড্র হয়েছিল। এই ১৩ ম্যাচের মরিনহোর দলের কাছে ওয়েঙ্গারের দল ২১ গোল হজম করেছে, দিতে পেরেছে মাত্র ছয়টি। এর মধ্যে আছে গত বছর মার্চে ৬-০ গোলে হেরে যাওয়া ম্যাচটি। যা আবার ছিল ওয়েঙ্গারের হাজারতম ম্যাচ। এরপরও ম্যাচের আগে কথার লড়াইয়ে মরিনহোকে ছেড়ে কথা বলেননি ওয়েঙ্গার। প্রথমবারের মতো মরিনহোকে কাবু করে পাল্টা জবাব দেয়ার আরও মন্ত্র পেয়ে গেছেন ফরাসী এই কোচ। ১৯৯৬ সাল থেকে আর্সেনালের কোচের দায়িত্বে আছেন ওয়েঙ্গার। এত বছর পর প্রবল প্রতিপক্ষকে হারিয়ে তাই তৃপ্ত তিনি।