১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

খুলনায় বর্বরতার বলি শিশু রাকিব

স্টাফ রিপোর্টার, খুলনা ॥ পৈশাচিক নির্যাতনে শিশু সামিউল আলম রাজনের অকাল মৃত্যুর পর এবার খুলনায় নির্যাতনে প্রাণ গেল মটরসাইকেল গ্যারেজের কর্মচারী শিশু রাকিবের। এক কর্মস্থল ছেড়ে অন্যস্থানে যোগ দেয়ায় তাকে নির্মভাবে প্রাণ হারাতে হলো। বিদ্যুৎচালিত মেশিন দিয়ে তার মলদ্বার হতে পেটে হাওযা দেয়ায় গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় সোমবার রাতে হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। রাকিব নগরীর টুটপাড়া সেন্ট্রাল রোডের দিনমজুর আলম হাওলাদারের ছেলে।

এই ঘটনায় বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী শিশুটিকে নির্যাতনকারী গ্যারেজ মালিক শরীফ ও সহযোগী মিন্টুকে আটক করে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে। তাদের দুইজনকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের প্রিজন সেলে রেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

খুলনা সদন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুকুমার বিশ্বাস জানান, কিশোর রাকিবকে নগরীর টুটপাড়া কবর খানা সংলগ্ন শরীফের মটর সাইকেল গ্যারেজে নিয়ে মটর সাইকেলের টায়ারে হাওয়া দেয়া মেশিন মলদ্বারে ঢুকিয়ে পেটে হাওয়া দেয় শরীফ ও মিন্টু। এক পর্যায়ে শিশু রাকিব পেটসহ শরীরের বিভিন্ন অংশ ফুলে ফেপে ওঠে। এসময় গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে রাকিব। এ সময় নির্যাতনকারীরা রাকিবের শরীরের বিভিন্ন অংশে চাপ প্রয়োগ করে বাতাস বের করার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। উপায়ন্তর না দেখে রাকিবকে একটি প্রাইভেট ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেও অবস্থার কোন উন্নতি না হওয়ায় তাকে ঢাকায় নেয়ার পথে সে মারা যায়।