২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মশালা

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মশালা

নিজস্ব সংবাদদাতা, গাজীপুর ॥ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক আয়োজিত স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের ইতিহাস’ শীর্ষক প্রশিক্ষণ কর্মশালার ৮ম দিন মঙ্গলবারের বক্তৃতায় প্রথম বক্তা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. হারুন-অর-রশিদ বলেছেন, ভাষা আন্দোলন পাকিস্তান রাষ্ট্রে বিচ্ছিন্ন কোন ঘটনা ছিল না, ভাষা বিতর্ক নিয়েই পাকিস্তান রাষ্ট্রের সৃষ্টি। ভাষা আন্দোলন ছিল বাঙ্গালীর স্বতন্ত্র্য জাতিসত্ত্বার বহিঃপ্রকাশ। ১৯৫৪ সালের যুক্তফ্রন্টের নির্বাচন সম্পর্কে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি বলেন, নির্বাচনে ক্ষমতাসীন মুসলিম লীগের ভরাডুবি এবং যুক্তফ্রন্টের বিজয় পাকিস্তানের ঔপনিবেশিক রাষ্ট্রের ভিত্তিমূলে আঘাত হেনেছিল।

গাজীপুরের বোর্ডবাজারে অবস্থিত বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট হলে কলেজ শিক্ষকদের প্রথম ব্যাচের এ প্রশিক্ষণ কর্মশালার ৮ম দিনে (মঙ্গলবার) জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. হারুন-অর-রশিদ এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক ড. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন বক্তব্য রাখেন।

বাংলাদেশের অভ্যুদয়ে বিশ্ব সম্প্রদায় ও প্রচার মাধ্যমের ভূমিকা প্রসঙ্গে এদিনের কর্মশালায় ২য় বক্তা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক ড. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন বলেন, মুক্তিযুদ্ধ কোন বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছিল না, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ছিল একটি গণতান্ত্রিক, ন্যায়সংগত বাঙ্গালীর জাতীয় মুক্তির সংগ্রাম। যে কারণে বিশ্ব সম্প্রদায় ও প্রচার মাধ্যমে এর পক্ষে অবস্থান নিয়েছিল। জেনারেল আইয়ুব-ইয়াহিয়ার সেনা-আমলা ভিত্তিক স্বৈরশাসন পাকিস্তান ভেঙ্গে স্বাধীন বাংলাদেশ রাষ্ট্রের অভ্যুদয়কে অবশ্যম্ভাবী করে তুলেছিল। ’৬৯ এর গণ অভ্যুত্থানে আইয়ুব খানের পতনের পর স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয় ছিল সময়ের ব্যাপার মাত্র।