২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

১৬ বছর পর দৃষ্টিশক্তি

১৬ বছর পর দৃষ্টিশক্তি

টানা ১৬ বছর দৃষ্টিশক্তি ছিল না যে নারীর, আজ তিনি সুন্দর পৃথিবীটা দেখতে পারছেন। এ জন্য বিজ্ঞানের উত্তরোত্তর উন্নতি কামনা করেছেন তিনি। আর ধন্যবাদ জানিয়েছেন ‘বায়োনিক আই’কে। সেই বায়োনিক ওম্যান-এর কথা মনে আছে আপনাদের। আমেরিকার দক্ষিণ ফ্লোরিডার কারমেন টোরেস পুরোপুরি বায়োনিক ওম্যান হতে পারেননি। তবে একটি চোখ তার বায়োনিক। মাত্র ১৮ বছর বয়সে দৃষ্টিশক্তি হারান। তার ‘রেটিনিটিস পিগমেন্টোসা’ রোগ হয়েছিল। এ রোগে খুব দ্রুত দৃষ্টিশক্তি নষ্ট হয়ে যায়।

এখন তার বয়স ৪৫ বছর। তিনি বলেন, জীবনটাকে নিয়ে এগিয়ে যেতে হয়। আর এগিয়ে যেতেই বিজ্ঞানের কল্যাণে আবারো হারানো দৃশ্যমান পৃথিবীটাকে ফিরে পেলেন। টোরেস নিজের অভিজ্ঞতা সম্পর্কে বলেন, এখন আমি আগের মতোই দেখতে পারছি। রাস্তা, বাড়ি, জানালা, দরজা সবই দেখতে পারছি। দারুণ আবেগময় সময় কাটছে আমার। তবে আমি কাঁদিনি। আমি পাগলের মতো হেসেছি আর আনন্দ উপভোগ করেছি।

তার একটি চোখে বায়োনিক আই ইমপ্ল্যান্ট করা হয়েছে। এ প্রক্রিয়ায় চোখের সঙ্গে একটি বিশেষ গ্লাস পরছেন টোরেস। এই গ্লাসের সঙ্গে রয়েছে একটি ভিডিও ক্যামেরা। এর মাধ্যমে সামনের ধারণকৃত দৃশ্য ছোট্ট একটি কম্পিউটারের মাধ্যমে গৃহীত হয়। এই ছোট কম্পিউটার হাতের ব্যাগে বা বেল্টের সঙ্গে লাগানো থাকতে পারে। এই ছবি কম্পিউটারের মাধ্যমে স্থাপিত বায়োনিক চোখে চলে যায়।

সূত্র: ইন্টারনেট