২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আইএস সংশ্লিষ্টতায় আটক ৩ যুবকের বিরুদ্ধে চার্জশীট

  • জিজ্ঞাসাবাদে চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছে তারা

শংকর কুমার দে ॥ বাংলাদেশ থেকে শতাধিক যুবক ও তরুণ সিরিয়াভিত্তিক উগ্রপন্থী জঙ্গী সংগঠন ইসলামিক স্টেটে (আইএস) যোগদানের চেষ্টা চালিয়েছে। তাদের চিহ্নিত করেছে গোয়েন্দারা। গত ছয় মাসে বিশজনকে আটক করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এর মধ্যে ঢাকায় আইএস সংশ্লিষ্টতায় আটক তিনজনের বিরুদ্ধে পুলিশ তদন্তপূর্বক চার্জশীট দিয়েছে আদালতে। বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত যুক্তরাজ্যের নাগরিক সামিউন রহমান ইবনে হামদান, হাইকোর্টের এক সাবেক বিচারপতির ছেলে আসিফ আদনান এবং সাবেক এক যুগ্মসচিবের ছেলে ফজলে এলাহি তানজিলের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশীট দাখিলের আগে জিজ্ঞাসাবাদ করে চাঞ্চল্যকর ও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পেয়েছে পুলিশ।

পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে পাওয়া তথ্যে জানা গেছে, এই প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে আইএস সদস্যদের বিরুদ্ধে তদন্তপূর্বক চার্জশীট দেয়ার ঘটনা। গত বছরের ২৬ মে, কমলাপুর রেলস্টেশন এলাকা থেকে প্রথমে হামদানকে গ্রেফতার করে তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী অন্য সহযোগীদের গ্রেফতারপূর্বক রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে গত ২৩ জুলাই পুলিশ ঢাকা মহানগর হাকিমের আদালতে গ্রেফতারকৃত তিনজনের বিরুদ্ধে চার্জশীট দাখিল করা হয়। চার্জশীট দাখিলের বিষয়টি প্রকাশ পায় দুই দিন আগে গত ৩ আগস্ট। সিরিয়া অথবা ইরাকে গিয়ে আইএসে যুক্ত হয়ে জিহাদে অংশ নিতে ব্যাকুল ছিলেন আটক হওয়া যুবক ও তরুণরা। আইএস সংশ্লিষ্টতায় চার্জশীটভুক্ত তিনজনকে আটকের পর গ্রেফতার করা হয় উচ্চশিক্ষিত ও প্রযুক্তিবিদ্যায় পারদর্শী আমিনুল ইসলাম বেগ (৪৫) ও সাকিব বিন কামাল নামের দু’জনকে। রবিবার রাজধানী ঢাকা থেকে গ্রেফতারের পর রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে সিরিয়াভিত্তিক জঙ্গী সংগঠন আইএসে যোগ দিতে যুবক ও তরুণরা মরিয়ার বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পেয়েছে গোয়েন্দারা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক, টুইটারের মাধ্যমের ছদ্মনামের বিভিন্ন ধরনের পেজ খুলে বিশ্বের অন্তত ৮০টি দেশের ১৫ হাজার যোদ্ধার নামের সঙ্গে সংযুক্ত হচ্ছে বাংলাদেশ। কাল্পনিক ইসলামিক রাষ্ট্রের প্রলোভনের টোপে পড়ে আইএসে যোগ দিচ্ছে ইউরোপ-আমেরিকাসহ পশ্চিমা বিশ্বের মেয়েরাও। আইএসে যোগদানে উদ্বুদ্ধ করে জঙ্গী কর্মী সংগ্রহ করার অভিযোগে গ্রেফতারকৃত মোঃ আমিনুল ইসলাম বেগ ও সাকিব বিন কামালকে গ্রেফতারের পর রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদে এই ধরনের তথ্য পেয়েছে গোয়েন্দারা।

জিজ্ঞাসাবাদ ও তদন্তের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট গোয়েন্দা কর্মকর্তা জানান, ইউটিউবে প্রকাশিত এক ভিডিওতে দেখা গেছে, ইসলামিক স্টেট (আইএস) প্রধান আবু বকর আল বাগদাদির কাছে জিহাদের শপথ নিচ্ছেন পাঁচ ‘বাংলাদেশী’ যুবক। তারা শপথ নেন বাংলায়। সুন্নিপন্থী সশস্ত্র সংগঠন ইসলামিক স্টেটের (আইএস) সঙ্গে বাংলাদেশের যুবক ও তরুণরা মূলত ফেসবুক আর টুইটারের মাধ্যমেই যোগাযোগ করে। আর এখন এই পেজগুলো থাকে ছদ্মনামে।