২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিশ্ব সাঁতারে মহিলাদের দাপট

বিশ্ব সাঁতারে মহিলাদের দাপট

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ তার নাম আইরন লেডি। কিন্তু নামের সার্থকতা দেখাতে পারছিলেন না অনেক দিন। যে কারণে নামটা পেয়েছিলেন সেটাই যেন ভুলতে বসেছিল সবাই। তবে আবার নিজেকে প্রমাণ করলেন তিনি। নিজের নামের প্রতি সুবিচারটা অবশেষে করতে পেরেছেন। আইরন লেডি খ্যাতি পাওয়া হাঙ্গেরির কাটিঙ্কা হসজু বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপ সাঁতারের ২০০ মিটার ব্যক্তিগত মিডলেতে নতুন রেকর্ড গড়ে স্বর্ণ জিতেছেন। কাজানে তিনি এ ইভেন্টের সোনা ছিনিয়ে নেন ২ মিনিট ৬.১২ সেকেন্ড সময় নিয়ে। এটি বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপের ইতিহাসের নতুন রেকর্ড। এবার বিশ্ব সাঁতারের পুলে রীতিমতো ঝড় তুলেছেন মহিলা সাঁতারুরা। নতুন কিছু রেকর্ড গড়েই চলেছেন তারা। হসজু ছাড়াও ১০০ মিটার বাটারফ্লাইয়ে নতুন বিশ্বরেকর্ড গড়েছেন সুইডেনের সারা সিওস্ট্রম। আর পুরুষদের ইভেন্টে ৪০ বছরের ইতিহাস পাল্টে দিয়েছেন এডাম পিয়েটি। ১০০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোকে গত ৪০ বছরে এই প্রথম কোন ব্রিটিশ সাঁতারু স্বর্ণ জিতলেন। আর ৫০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোকে নতুন বিশ্বরেকর্ড গড়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার ক্যামেরন ভ্যান ডার বার্গ।

ভ্যান ডার বার্গ গত বিশ্ব আসরেও স্বর্ণ জিতেছিলেন ৫০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোকে। এবারও তিনি সেটা ধরে রাখলেন ২৬.৬২ সেকেন্ড সময় নিয়ে। ভেঙ্গে দিলেন বিশ্বরেকর্ড। ২০০৯ সালের বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপ আসরে এরচেয়ে ০.০৫ সেকেন্ড বেশি সময় নিয়েছিলেন তিনি। অবশ্য এবার যে টাইমিং গড়েছেন সেটা গত বছর আগস্টে বার্লিনে অনুষ্ঠিত ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপেও ছিল। তবে এখন পর্যন্ত সেটা বিশ্ব সাঁতারের সর্বোচ্চ সংস্থা কর্তৃক স্বীকৃত হয়নি। তবে একইদিনে ১০০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোকে অন্যতম প্রতিদ্বন্দ্বী পিয়েটির কাছে হেরে গেছেন ভ্যান ডার বার্গ। এ ইভেন্টের বর্তমান অলিম্পিক চ্যাম্পিয়ন ভ্যান ডার বার্গকে হারিয়ে দেয়ার মাধ্যমে পুরনো ইতিহাস পাল্টে দিয়েছেন পিয়েটি। বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপে গত চার বছরে আর কোন ব্রিটিশ সাঁতারু স্বর্ণ জিততে পারেননি। ২০১১ সালে সাংহায়ের বিশ্ব আসরে ৫০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোকে শেষ ব্রিটিশ সাঁতারু হিসেবে স্বর্ণ জিতেছিলেন লিয়াম ট্যানকক। আর এবার ২০ বছর বয়সী পিয়েটি তার বিশ্ব আসরের অভিষেকেই ৪০ বছর পর কোন ব্রিটিশ সাঁতারু হিসেবে ১০০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোকের স্বর্ণ জিতলেন।

পুরুষদের ইভেন্টে এ দুটিই ছিল উল্লেখযোগ্য ঘটনা এবার বিশ্ব সাঁতারের আসর শুরুর পর। তবে মহিলাদের ইভেন্টে পুরোপুরি ঝড় উঠেছে পুলে। আগের দিন ১৫০০ মিটার ফ্রিস্টাইলের হিটে নিজের বিশ্বরেকর্ড আবার ভেঙ্গেছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের সাঁতার বিস্ময় কেটি লিডেকি। এবার আইরন লেডিও যোগ দিলেন তার সঙ্গে। অবশ্য হসজু বিশ্বরেকর্ড গড়েননি, শুধু বিশ্ব সাঁতারের ইভেন্টে নিজেকে সর্বোচ্চ উচ্চতায় নিয়ে গেছেন তিনি। ২৬ বছর বয়সী হসজু ০.০৩ সেকেন্ড পেছনে ফেলেছেন আগের বিশ্ব সাঁতারের রেকর্ডটাকে। ২০০৯ সালে রোমে অনুষ্ঠিত বিশ্ব সাঁতারের আসরে যুক্তরাষ্ট্রের আরিয়ানা কুকোর্স ২ মিনিট ৬.১৫ সেকেন্ড সময় নিয়েছিলেন ২০০ মিটার ব্যক্তিগত মিডলেতে। এই ইভেন্টে জাপানের কানাকো ওয়াতানাবে রৌপ্য জিতেছেন হসজুর চেয়ে ২.৩৩ সেকেন্ড পিছিয়ে থেকে। আর ব্রিটিশ তারকা সিওভান ম্যারি ও’কনোর ব্রোঞ্জ জয় করেন ২.৬৫ সেকেন্ড পিছিয়ে থেকে। এই ইভেন্টে চাইনিজ তারকা ইয়ে শিয়েন অষ্টম স্থান নিয়ে হয়েছেন সর্বশেষ।

অপরদিকে, সুইডিশ তারকা সিওস্ট্রম ১০০ মিটার বাটারফ্লাইয়ে নতুন বিশ্বরেকর্ড গড়েছেন। তিনি নিজের পূর্বতন রেকর্ডটাকে ভেঙ্গে এবার স্বর্ণ জিতেছেন ৫৫.৬৪ সেকেন্ড সময় নিয়ে। এই ইভেন্টের সেমিতে তিনি বিশ্বরেকর্ড গড়েছিলেন, তার চেয়ে ০.১৫ সেকেন্ড কম নিয়েছেন ফাইনালে। ডেনমার্কের জিনেট ওটেসেন ৫৭.০৫ সেকেন্ড টাইমিংয়ে দ্বিতীয় এবং চীনের লু ইং ৫৭.৪৮ সেকেন্ড টাইমিংয়ে ব্রোঞ্জ জিতেছেন। বার্সিলোনায় দুই বছর আগেও এ ইভেন্টের স্বর্ণ জিতেছিলেন সিওস্ট্রম। এবারও সেটা ধরে রাখলেন এবং তা বিশ্বরেকর্ড স্থাপন করে।