২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সিলেটে সাত মাসে ২৮ হাজার আসামি গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার, সিলেট অফিস ॥ সিলেট বিভাগে গত সাত মাসে ২৮ হাজার ৭৮৭ আসামি গ্রেফতার ও ৬৮টি অস্ত্র উদ্ধার করেছে রেঞ্জ পুলিশ। এর মধ্যে গ্রেফতারি ও সাজা পরোয়ানার আসামি রয়েছে। এছাড়া বিস্ফোরক উদ্ধার ও চোরাচালানের ঘটনায় ৬৬টি মামলা হয়েছে।

জানা যায়, গত জানুয়ারি থেকে জুলাই মাস পর্যন্ত বিভাগের চারটি জেলায় অভিযান চালিয়ে এসব আসামি গ্রেফতার ও অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতারি পরোয়ানা নিষ্পত্তি করা হয়েছে ২৭ হাজার ৯৩৩টির। এর মধ্যে জানুয়ারি থেকে মার্চ মাস পর্যন্ত জিআর মামলার ৬ হাজার ৭৮০টি ও সিআর মামলার ৩ হাজার ৬৬৭টি, এপ্রিল থেকে জুন মাস পর্যন্ত জিআর মামলার ৮ হাজার ৬৭টি ও সিআর মামলার ৫ হাজার ১৯০টি এবং জুলাই মাসে জিআর মামলার ২ হাজার ৬২৫টি ও সিআর মামলার ১ হাজার ৫৯৪টি পরোয়ানা নিষ্পত্তি হয়। এছাড়া সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেফতার করা হয়েছে ৮৫৪ জন। জানুয়ারি থেকে মার্চ পর্যন্ত জিআর মামলার ১৬৯টি ও সিআর মামলার ১৫৬টি, এপ্রিল থেকে জুন মাস পর্যন্ত জিআর মামলার ২০১টি ও সিআর মামলার ১৯৭টি এবং জুলাই মাসে জিআর মামলার ৫৯টি ও সিআর মামলার ৭২টি সাজা পরোয়ানা নিষ্পত্তি করে সিলেট, সুনামগঞ্জ, মৌলভীবাজার ও হবিগঞ্জ জেলা পুলিশ।

মেয়েকে জিম্মি করে মুক্তিপণ আদায়ের চেষ্টা

স্টাফ রিপোর্টার, সিরাজগঞ্জ ॥ জেলার তাড়াশ উপজেলার নওগাঁ থেকে নিজের মেয়েকে জিম্মি করে মুক্তিপণ আদায় করার অভিযোগে জামিরুল ইসলাম নামের এক বাবাকে জনতা আটক করে পুলিশে দিয়েছে। সে তার তালাক দেয়া প্রবাসী স্ত্রী নীলুফারের মেয়েকে জিম্মি করে মুক্তিপণ চেয়েছিল। আটক জামিরুল ইসলামের বাড়ি পার্শ্ববর্তী উল্লাপাড়া উপজেলার প্রতাব গ্রামে। এলাকাবাসী জানান, দুই বছর আগে তিন বছরের শিশু মেয়েকে তাড়াশ উপজেলার পংরোহালী গ্রামের বাবার বাড়িতে রেখে নিলুফা খাতুন দুবাই চলে যান। এতদিন মেয়েটি তার নানা নওয়াব আলীর কাছেই ছিল। মেয়েটির বাবা জামিরুল ইসলাম কিছুদিন আগে স্ত্রীকে তালাক দেয়। গত বৃহস্পতিবার দাওয়াত খাওয়ানোর কথা বলে নানাবাড়ি থেকে জামিরুল তার মেয়েকে নিয়ে আসে। পরে মেয়েকে জিম্মি করে তাকে দিয়েই প্রবাসী মায়ের কাছে মোবাইল করিয়ে এক লাখ টাকা দাবি করে।