২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জঙ্গি দমনে যুক্তরাষ্ট্রকে পাশে চায় চীন

অনলাইন ডেস্ক ॥ চীনের শিনজিয়াং অঞ্চলের মুসলিম জঙ্গিদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তা চেয়েছে চীন। তারা বলছে, এই জঙ্গিরা যুক্তরাষ্ট্রের জন্যও হুমকি।

মঙ্গলবার চীনা উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী চেং গুয়োপিং ও যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সন্ত্রাসবিরোধী ব্যুরোর অ্যাম্বাসেডর অ্যাট লার্জ টিনা কাইদানাউ এর মধ্যে বৈঠকের পর এ সহায়তা চাওয়া হয়। খবর রয়টার্সের।

বৈঠকে উভয়পক্ষ সাইবার সন্ত্রাস ও সহিংস চরমপন্থার বিরুদ্ধে লড়াই এবং সন্ত্রাসবিরোধী গোয়েন্দা কার্যক্রম শক্তিশালী করার বিষয়ে একমত হয়।

এই বৈঠকের পর এক বিবৃতিতে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, “সন্ত্রাসের হুমকি দিনে দিনে আরো জটিল ও তীব্র হয়ে উঠছে।”

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, “চীন, যুক্তরাষ্ট্র এবং বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি ইস্ট তুর্কিস্তান ইসলামিক মুভমেন্ট (ইটিআইএম) এবং পূর্ব তুর্কিস্তানের অন্যান্য সন্ত্রাসী সংগঠনগুলোর গুরুতর হুমকির বিষয়টি চীন তুলে ধরছে। পাশাপাশি পূর্ব তুর্কিস্তানের সন্ত্রাসী বাহিনীগুলোর বিরুদ্ধে লড়াইয়ের উদ্যোগে যুক্তরাষ্ট্রের জোর সমর্থন ও চীনের সঙ্গে সহযোগিতার অনুরোধ করছে।”

চীনা কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ইটিআইএম শিনজিয়াংয়ের সংখ্যালঘু মুসলিম উইঘুরদের সংগ্রহ করে সিরিয়া ও ইরাকের জঙ্গিদের দিয়ে প্রশিক্ষণ দিচ্ছে।

চীনে ফিরে ‘পবিত্র যুদ্ধ’ শুরু করার অভিপ্রায় নিয়েই এসব করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন চীনা কর্মকর্তারা।

তবে চীনের দাবি অনুযায়ী ইটিআইএম-এর অবস্থান এত শক্ত কিনা, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেক বিদেশি নিরাপত্তা বিশ্লেষক।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে কয়েকশত থেকে কয়েক হাজার উইঘুর অবৈধভাবে চীনা সীমান্ত অতিক্রম করে দক্ষিণপূর্ব এশিয়া হয়ে তুরস্কে গেছেন।

মানবাধিকার গোষ্ঠীগুলো বলছে, এই অভিবাসীরা শিনজিয়াংয়ের সংখ্যালঘু সহিংসতা ও তাদের ধর্ম এবং সংস্কৃতির ওপর চীনা নিয়ন্ত্রণের কারণে পালিয়ে যাচ্ছে। অপরদিকে এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছে চীন।

শিনজিয়াংয়ে তিন বছরের সহিংসতায় কয়েকশত মানুষ নিহত হয়েছেন। এসব সহিংসতার জন্য মুসলিম জঙ্গিদের দায়ী করেছে বেইজিং।