১৯ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

‘লিখে নিন, আমি এ্যাশেজের পরও খেলব’

  • সমালোচনার জবাবে অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ সময় কত দ্রুতই না বদলে যায়। অস্ট্রেলিয়াকে বিশ্বকাপ উপহার দেয়ায় চার মাস আগেও মাইকেল ক্লার্কের প্রশংসায় পঞ্চমুখ ছিল অসিরা। এ্যাশেজে দুটি ম্যাচ হারেই এবার সেই অধিনায়ককে তুলোধোনা করে ছাড়ছে নিন্দুকেরা। ২-১এ পিছিয়ে থাকায় সিরিজ বাঁচিয়ে রাখতে ট্রেন্ট ব্রিজে আজ থেকে শুরু হওয়া চতুর্থ টেস্টে জিততেই হবে। ব্যাটে রান নেই, দল কোণঠাসা, এমন অবস্থায় মাইকেল ক্লার্কের শেষ দেখছেন তারা। অনেকে স্টিভেন স্মিথের হাতে দায়িত্ব তুলে দিয়ে তাকে অবসরের পরামর্শও দিচ্ছেন। তবে দৃঢ়চেতা ক্লার্ক সেই সম্ভাবনা নাকচ করে দিয়েছেন। অনেকটা ক্ষুব্ধ কণ্ঠে বলেছেন, ‘লিখে নিন, আমি এ্যাশেজের পরও অস্ট্রেলিয়ার হয়ে খেলব!’

আলোচিত চতুর্থ টেস্টের আগে যেন মেজাজ হারান আধুনিক অস্ট্রেলিার অন্যতম সফল এই ক্রিকেটার। ক্লার্ক বলেন, ‘আমার খেলা নিয়ে সমালোচনা হবে, এটা স্বাভাবিক। এটা আমার প্রাপ্য, কারণ আমি অধিনায়ক। কিন্তু কোন একটা কাগজে লেখা হয়েছে যে আমার এখন রানের খুদা নেই। সেটা নাকি ব্যাটিং দেখলেই বোঝা যায়। এটা অত্যন্ত বাজে কথা। ১৩ বছর জাতীয় দলে খেলার পরও আমি নিজের ব্যাটিং-নেতৃত্ব উন্নতি করতে কঠোর পরিশ্রম করি। ভাল স্কোর গড়ার লক্ষ্যে মাঠে নামি। সুতরং দেশ ও ক্রিকেটের প্রতি আবেগ নিয়ে প্রশ্ন তুললে খারাপ লাগা স্বাভাবিক।’ এই পর্যন্ত ঠিকই ছিল। এরপরই যুক্তি দিয়ে সংবাদ মাধ্যমকে আক্রমণ করে বসেন তিনি।

ক্লার্ক যোগ করেন, ‘আপনাদের মনে করিয়ে দিতে চাই যে ক্রিস রজার্স জীবনের দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচটা খেলার জন্য ৩৫ বছর বয়স পর্যন্ত অপেক্ষা করেছিল। আমার বয়স ৩৪, ৩৭ নয়। আমি এ্যাশেজের পরও অস্ট্রেলিয়ার হয়ে খেলব। অবসর নেয়ার প্রশ্নই ওঠে না, এটা লিখে নিন!’ শেষ ছয় ইনিংসে ক্লার্কের ব্যাট থেকে এসেছে মোটে ৯৪ রান, গড় ১৯! ফল অসি মিডিয়া তার ওপর ঝাঁপিয়ে পড়েছে। ব্যাট হাতে ব্যর্থতার দায় মাথায় নিয়ে তৃতীয় টেস্ট হারের পর তিনি বলেছিলেন, ‘আমি ফর্মে নেই, তার অর্থ অস্ট্রেলিয়া ১০ জন নিয়ে খেলছে। আমি আসলেই দুঃখিত, রানে ফিরতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাচ্ছি।’ তারপর পরই ‘দ্য অস্ট্রেলিয়ান’ পত্রিকার ক্রিকেট রিপোর্টার পিটার লালর বক্তব্য, ‘চতুর্থ টেস্ট শুরু হচ্ছে এটা ধরে নিয়ে যে, ক্লার্কের জীবনের শেষ টেস্ট এটা। ও নিজে এক কথাটা সবচেয়ে ভাল জানে। চাইবে সব বড় বড় ক্রিকেটারের মতো মাথা উঁচু করে বিদায় নিতে।’ ক্ষুব্ধ ক্লার্কের তাই অমন জবাব।

অন্যভাবে অধিনায়ককে নিয়ে কটাক্ষও করা হচ্ছে। ‘দ্য অস্ট্রেলিয়ান’ লিখেছে, ‘ক্লার্কের সময় শেষ হয়ে এলেও ওকে হয়ত বাংলাদেশ সফরের আগে বাদ দেয়া হবে না। কারণ ও বরাবরই স্পিন এবং সেøা উইকেটে ভাল ব্যাটিং করে। কিছুটা স্টিভেন স্মিথকে বাদ দিলে এই দলে আর কেউ নেই যে ক্লার্কের চেয়ে স্পিন ভাল খেলে। তাই বাংলাদেশ সফরে হয়ত ক্লার্কের অভিজ্ঞতা কাজে লাগানো হবে।’ কি হবে না হবে, সময়ই তার উত্তর দেবে। তবে সমালোচনার একটাই জবাব, যেটা ব্যাট হাতে করে দেখাতে পারেন ক্লার্ক। সেই সমর্থ্য তার ভালমতোই রয়েছে। ২০০৩-০৪ এ অভিষেকের পর দলের হয়ে টেস্টে ৮,৬০৫ ও ওয়ানডেতে করেছেন ৭,৯৮১ রান; দুই ভার্সন মিলে সেঞ্চুরি ৩৬।

স্পোর্টস ইনজুরি নিয়ে বিওএর ওয়ার্কশপ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশ অলিম্পিক এ্যাসোসিয়েশনের (বিওএ) মেডিক্যাল এ্যান্ড এন্টি ডোপিং কমিটির উদ্যোগে আগামী ১০ আগস্ট বেলা সাড়ে ১১টায় বিওএ অডিটোরিয়াম, অলিম্পিক ভবনে স্পোর্টস ইনজুরি, রিহ্যাবিলিটেশন, সাইকোলজি এ্যান্ড এন্টি ডোপিংয়ের ওপর একটি ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত হবে। বর্তমান বিশ্বের প্রেক্ষাপটে প্রতিটি আন্তর্জাতিক ও জাতীয় ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় খেলোয়াড়দের ডোপ টেস্ট বাধ্যতামূলক এবং খেলোয়াড়দের মনোবল, আত্মবিশ্বাস, মানসিক শক্তি বৃদ্ধি ইত্যাদি বিষয়ে সম্যক জ্ঞান লব্ধ করা প্রতি খেলোয়াড়, প্রশিক্ষক এবং কর্মকর্তাদের অতীব জরুরী। ওয়ার্কশপে ভারতের বিখ্যাত স্পোর্টস মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডাঃ রাজীব রামান স্পোর্টস ইনজুরি এবং রিহ্যাবিলিটেশনের গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য রাখবেন।