২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ছদ্মনামে প্রেম-বিয়ে, হত্যা, অতঃপর...

অনলাইন রিপোর্টার ॥ ছদ্মনামে গড়েছেন প্রেমের সম্পর্ক। ছদ্মনামেই সেরেছেন বিয়ে। প্রতারণায় প্রতিষ্ঠিত এ ‘মধুর’ সম্পর্ক বেশিদিন থাকলো না। তারপর গোপনে আরেক বিয়ে। জানাজানি হয়ে গেল দুই স্ত্রীর মধ্যে। শুরু হয়ে গেল বিবাদ। অতঃপর আর সহ্য হলো না তার। ছদ্মনামে বিয়ে করা প্রথম স্ত্রীকে মেরেই ফেললেন জুয়েল বিশ্বাস।

রাজধানীর কামরাঙ্গীরচরে স্ত্রী হত্যায় অভিযুক্ত জুয়েল বিশ্বাস (৩০) পুলিশের কাছে এমনই স্বীকারোক্তি দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানানো হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে কথা বলেন লালবাগ জোনের উপ-পুলিশ কমিশনার মো. মফিজউদ্দিন আহমেদ।

উপ-পুলিশ কমিশনার বলেন, হত্যাকাণ্ডটি প্রথমে আমাদের কাছে ক্লু-লেস ছিল। তবে ঘরের আলামতের ভিত্তিতে তদন্ত করি। ঘটনার একমাস পর আমরা এই হত্যাকাণ্ডের মূল রহস্য উদঘটন করতে সক্ষম হয়েছি।

এ হত্যাকাণ্ডের আরও তদন্ত চলছে বলেও জানান তিনি।

স্থানীয়দের খবরের ভিত্তিতে গত ৩০ জুন কামরাঙ্গীরচর থানার পশ্চিম রসুলপুর কামাল সুপার মার্টের পেছনের আনোয়ার মিয়ার বাড়ির একটি কক্ষ থেকে অজ্ঞাতপরিচয় এক নারীর লাশ উদ্ধার করে সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশ। পরে পুলিশ মৃতদেহ শনাক্ত করতে তদন্তে নামে। ওই তদন্তের ধারাবাহিকতায় বুধবার (৫ আগস্ট) মধ্যরাতে অভিযান চালিয়ে রাজধানী থেকে ওই নারীর স্বামী জুয়েলকে আটক করা হয়। তার কাছ থেকে জানা যায়, ওই নারীর নাম নাসিমা বেগম (২৪)