২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সেরেনাকে চ্যালেঞ্জ স্টোসারের

সেরেনাকে চ্যালেঞ্জ স্টোসারের

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ইউএস ওপেনের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন সেরেনা উইলিয়ামস। শুধু তাই নয়, শেষ তিনবার টানা শিরোপা জিতেছেন আমেরিকান এই টেনিস তারকা। চার বছর আগে ফ্ল্যাশিং মিডোজে সেরেনাকে পরাজয়ের স্বাদ উপহার দিয়েছিলেন সামান্থা স্টোসার। ২০১১ সালে অস্ট্রেলিয়ান এই টেনিস তারকার কাছে পরাজয়ের পরের তিন আসরে দুর্দান্ত পারফর্মেন্স উপহার দিয়েছেন বিশ্বটেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের নাম্বার ওয়ান তারকা। ইউএস ওপেনের আগে তাই টেনিসের এই দুই তারকাই এখন আলোচনায়। সেরেনা তার ক্যারিয়ারের গৌরবময় সময় কাটাচ্ছেন। আর সামান্থা স্টোসার খোঁজছেন নিজেকে হারিয়ে। তবে পারফর্মেন্স যেমনই হোক না কেন সেরেনার বিপক্ষে সবসময়ই দুর্বার তিনি। আমেরিকান টেনিস তারকার বিপক্ষে খেলাটা সবসময়ই উপভোগ করেন বলে জানান স্টোসার।

এ বিষয়ে ৩১ বছর বয়সী স্টোসার বলেন, ‘সেরেনার বিপক্ষে আমি আসলে সবসময়ই খুব উপভোগ করি। তাকে তো একটি ম্যাচে আমি রীতিমতো চূর্ণ-বিচূর্ণই করে দিয়েছিলাম। তার বিপক্ষে সব ম্যাচেই আমি খুব ভাল খেলি। প্রকৃতপক্ষে টেনিস কোর্টে আমার এমন কিছু অস্ত্র আছে যা তাকে খুবই বিরক্তিকর করে তুলে।’ আগামী ৩১ আগস্ট থেকে শুরু হবে মৌসুমের শেষ গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট। অস্ট্রেলিয়ার স্টোসারের বিশ্বাস। আবার যদি প্রতিপক্ষ হিসেবে সেরেনাকে পান তিনি। তাহলে আমেরিকান তারকা চাপের মধ্যে থাকবে। এ বিষয়ে স্টোসারের অভিমত হলো, ‘টানা চার গ্র্যান্ডসøাম জিতেছেন সেরেনা। ইউএস ওপেনে পঞ্চম মেজর শিরোপা জয়ের লক্ষ্য নিয়ে কোর্টে নামবেন তিনি। কিন্তু তারপরও এ বিষয়ে কোন সন্দেহ নেই যে সে খুবই চাপের মধ্যে থাকবে। এই মুহূর্তে ক্যালেন্ডার সøাম জয়ের সামনে দাঁড়িয়ে আছে সে। তারপরও সে চাপমুক্ত কিংবা নির্ভার নয়।’

অস্ট্রেলিয়ার সাবেক নাম্বার ওয়ান টেনিস তারকা স্টোসার। সুদীর্ঘ ক্যারিয়ারে একটিমাত্রই মেজর শিরোপা জিতেছেন তিনি। চার বছর আগে জেতা ইউএস ওপেনের পর আর কখনই নিজেকে সেভাবে মেলে ধরতে পারেননি তিনি। কিন্তু সম্প্রতি কোর্টে ভাল খেলছেন তিনি। যা তাকে অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাস যোগাচ্ছে। বর্তমানে সামান্থা স্টোসার ওয়াশিংটন ওপেনে খেলছেন। এই ইভেন্টে শুরু থেকেই দারুণ খেলছেন তিনি। বুধবার আমেরিকান টেনিস খেলোয়াড় ইরিনা ফ্যালকোনির বিপক্ষে কোর্টে নেমেছিলেন স্টোসার। প্রতিপক্ষকে ৬-১ এবং ৭-৫ গেমে হারিয়ে টুর্নামেন্টের কোয়ার্টার ফাইনালের টিকেট নিশ্চিত করেন তিনি। তার লক্ষ্য এখন ওয়াশিংটন ওপেনের শিরোপা জয়। কেননা এই ইভেন্টে চ্যাম্পিয়ন হতে পারলে ফেবারিটের তকমাটা গায়ে মেখেই ইউএস ওপেনের কোর্টে নামতে পারবেন তিনি। যা তাকে শিরোপা পুনরুদ্ধারের জন্য অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাস হিসেবে কাজ করবে। তবে গত এক বছর ধরেই টেনিস কোর্টে এককভাবে রাজত্ব করছেন সেরেনা উইলিয়ামস। গত বছর ইউএস ওপেন জিতেছিলেন তিনি। এরপর চলতি মৌসুমের প্রথম তিন মেজর টুর্নামেন্টের সবই চ্যাম্পিয়ন। দ্বিতীয়বারের মতো ‘সেরেনা সøাম’ জয়ের রেকর্ড গড়েন তিনি। সেইসঙ্গে গড়েন ২১ গ্র্যান্ডসøাম জয়ের মাইলফলক। এই মুহূর্তে অবিস্মরণীয় কীর্তির সামনে দাঁড়িয়ে আছেন আমেরিকান টেনিসের জীবন্ত কিংবদন্তি। ইউএস ওপেন জিততে পারলে ‘ক্যালেন্ডার সøাম’ জয়ের বিস্ময়কর কীর্তি গড়বেন তিনি। স্টেফিগ্রাফের পর আবারও ক্যালেন্ডার সøাম জিততে সেরেনা উইলিয়ামস ও মরিয়া। সেইসঙ্গে স্টেফিগ্রাফের ২২ গ্র্যান্ডসøাম জয়ের রেকর্ডে ভাগও বসাবেন টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ তারকা। এরপর তাদের সামনে থাকবেন কেবল ২৪ গ্র্যান্ডসøাম জেতা মার্গারেট কোর্ট। টেনিস বোদ্ধাদের ধারণা সেরেনা যেভাবে খেলছেন কোর্টকে ছাড়িয়ে যাওয়াটা এখন তার জন্য কেবলই সময়ের বিষয়। সেরেনার পারফর্মেন্সে মুগ্ধ তাই স্টোসারও। আমেরিকান তারকাকে এই প্রজন্মের সেরা খেলোয়াড় হিসেবে মন্তব্য করেছেন তিনি। এ বিষয়ে অস্ট্রেলিয়ান তারকা বলেন, ‘সেরেনা যা অর্জন করেছে তা আসলেই অবিশ্বাস্য। এই প্রজন্মের সেরা খেলোয়াড় সেরেনা উইলিয়ামস।’