১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ফেলপসের দৃষ্টি রিওতে

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ উত্তেজনায় স্থির থাকতে পারছেন না। চোখের সামনে বিজয়ীদের উল্লাস দেখছেন আর মনে মনে প্রতিজ্ঞা করছেন পরবর্তী সুযোগে সবাইকে হারিয়ে দেয়ার। রাশিয়ার কাজানে চলমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপস সাঁতারে শুধুই একজন দর্শক কিংবদন্তি হয়ে যাওয়া যুক্তরাষ্ট্রের সাঁতারু মাইকেল ফেলপস। ‘ফ্লাইংফিশ‘ খ্যাতি পাওয়া এ ১৮ অলিম্পিক স্বর্ণজয়ী সাঁতারু নিষেধাজ্ঞার কারণে প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারছেন না। তবে আগামী বছর রিও ডি জেনিরোতে অনুষ্ঠিতব্য অলিম্পিকে দারুণ কিছু করার শপথ আঁটছেন। মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালানোর অপরাধে এবার বিশ্ব সাঁতারে নামা হয়নি। কিন্তু ফেলপস জানালেন রিওতে দারুণ কিছু করতে মরিয়া থাকবেন। অতীত ভুলে তাই এখন পরবর্তী অলিম্পিক নিয়েই ভাবনা শুরু করে দিয়েছেন তিনি।

লন্ডনে ২০১২ অলিম্পিকে সাফল্যের পরই সাঁতারকে গুডবাই জানিয়েছিলেন। কিন্তু পুল দেখলেই সেখানে প্রতিযোগিতায় নামার জন্য যে উত্তেজনা বোধ করেন সে জন্য আর নিজেকে আটকে রাখতে পারলেন না। অবসর নেয়ার দুই বছর পূর্তির আগেই আবার ফেরার ঘোষণা দিয়ে পুলে নেমে পড়লেন। তারপর নিজেকে ফিরে পেতে অনেক ঘাম ঝরানো পরিশ্রম করতে হয়েছে ফেলপসকে। ইউএস জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপস ও প্যান প্যাসিফিক সাঁতারে নিজেকে পুরনো রূপে ফিরে পাওয়ার ইঙ্গিতও দিচ্ছিলেন। এর মধ্যেই ঝামেলায় জড়িয়ে পড়লেন যেটা তার নিজস্ব সৃষ্ট। জীবনে দ্বিতীয়বারের মতো মদ্যপ হয়ে হাইস্পিডে গাড়ি চালানোর পর জরিমানা ও শাস্তি জুটেছে। এমনকি মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রে চিকিৎসার জন্যও পাঠানো হয়েছে গত সেপ্টেম্বরের সেই ঘটনার পর। এ বছর এপ্রিলে এসব শাস্তিকে বড় ধরনের বর্বরতা বলে অভিহিত করেন। কিন্তু এ কারণে নিজেকে আরও শান্তিদায়ক অবস্থায় আবিষ্কার করেছেন বলেও দাবি করেন ফেলপস। তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয় আমি এসব কারণে বুঝতে পেরেছি যে আমি আসলে কে। এখন আমি প্রতিদিন সকালে উঠতে পারি এবং যেভাবে দিন কাটাই সেটাতে সন্তুষ্ট হতে পারি। ওই ঘটনার পর থেকেই আমার দৃষ্টি শুধুই নিবদ্ধ রিওর দিকে। আমি মনে করি এখন এটা আমার জন্য পরীক্ষা। আমি যদি আগের অবস্থানে পৌঁছতে পারি সেক্ষেত্রে মনে হয় না পুলে কে প্রতিপক্ষ সেটা নিয়ে ভাবনার কিছু থাকবে।’