১৪ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিশ্ব সাঁতারে স্বর্ণালী সাফল্যে উদ্ভাসিত লিডেকি

বিশ্ব সাঁতারে স্বর্ণালী সাফল্যে উদ্ভাসিত লিডেকি
  • যুক্তরাষ্ট্রের এ তরুণীর সামনে এবার ইতিহাস গড়ার হাতছানি, ১ বছর পর আবার বিশ্ব সাঁতারে স্বর্ণ সিসেহর

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ দশ বছর পেরিয়ে গেছে স্বর্ণ জয়ের। কিন্তু হাল ছাড়েননি লাজলো সিসেহ। ২০০৫ সালে মন্ট্রিলে স্বর্ণ জিতেছিলেন। মন্ট্রিল থেকে ঘুরে রাশিয়ার কাজান, মাঝে ১০ বছর চলে যাওয়ার পর আবার বিশ্ব সাঁতার চ্যাম্পিয়নশিপসে স্বর্ণ জিতেছেন হাঙ্গেরির ২৯ বছর বয়সী এ তারকা সাঁতারু। মন্ট্রিলে ৪০০ মিটার ব্যক্তিগত মিডলেতে সোনা জিতেছিলেন আর এবার জিতলেন ২০০ মিটার বাটারফ্লাইয়ে। একইদিনে ব্রিটিশ সাঁতারু এডাম পিয়েটি পুরুষদের ব্রেস্টস্ট্রোকে ডাবল জয় সম্পন্ন করেছেন। তিনি ১০০ মিটারের পর এবার ৫০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোকেও স্বর্ণ জিতেছেন। আর মহিলাদের ইভেন্টের ফ্রিস্টাইলে যুক্তরাষ্ট্রের বিস্ময় কিশোরী কেটি লিডেকির একক আধিপত্য এখনও আছে। ১৮ বছর বয়সী এ তরুণী ২০০ মিটার ফ্রিস্টাইলে স্বর্ণ জিতে চলমান বিশ্ব আসরে তৃতীয় সাফল্য পেয়েছেন। ৪০০ ও ১৫০০ মিটার ফ্রিস্টাইলেও স্বর্ণ জিতেছেন তিনি। ৮০০ মিটারেও স্বর্ণ জিততে পারলে বিশ্ব সাঁতারের ইতিহাসে সব ফ্রিস্টাইল ইভেন্টে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার অনন্য ইতিহাস গড়বেন তিনি।

কান্নাটা চেপে রাখবেন কী করে সিসেহ? যে জন্য গত ১০ বছর অপেক্ষায় ছিলেন, সেটা শেষ পর্যন্ত করতে পারলেন। ২০০৫ সালে বিশ্ব আসরে সর্বশেষ স্বর্ণ জিতেছিলেন এবার কাজানে চলমান বিশ্ব সাঁতারের আসরেও তিনি সোনা জিতলেন। ২০০ মিটার বাটারফ্লাইয়ে তিনি অলিম্পিক ও বিশ্বচ্যাম্পিয়ন দক্ষিণ আফ্রিকার চ্যাড লি ক্লসকে পেছনে ফেলে স্বর্ণ জয় করেন। সময় নিয়েছেন ১ মিনিট ৫৩.৪৮ সেকেন্ড। মাত্র ০.২০ সেকেন্ড পিছিয়ে ছিলেন ক্লস। পোল্যান্ডের জ্যান সুইটকোভস্কি ব্রোঞ্জ জিতেছেন। ২০০৮ বেজিং অলিম্পিকে মাইকেল ফেলপসের দাপটের কাছে নতি স্বীকার করে তিন রৌপ্য জিতেছিলেন সিসেহ। দুই বছর আগে বার্সিলোনায় অনুষ্ঠিত বিশ্ব সাঁতারে ১০০ মিটার ফ্লাইয়ে রৌপ্য জেতেন তিনি। সে কারণে এবার ২০০ মিটারে স্বর্ণ জয়ের পর অশ্রুজল চোখে সিসেহ বলেন, ‘আমি জানুয়ারি মাসেও ভাবতে পারিনি ২০০ মিটার ফ্লাইয়ে আমি কখনও স্বর্ণ জিততে পারব। কিন্তু আমি শীর্ষস্থান নিয়ে শেষ করার জন্য শেষ প্রচেষ্টা চালাতে চেয়েছিলাম। আমি সে কারণে কোচ ও অনুশীলন পদ্ধতিতেও পরিবর্তন এনেছি। আমি কান্না কোনভাবেই ধরে রাখতে পারছিলাম না। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সামলেছি। কারণ আপনাদের জানাতে চাই আমি অনেক শক্ত মানসিকতার।’ পুরুষদের ইভেন্টে একই দিনে চলমান আসরে ডাবল সম্পন্ন করেছেন পিয়েটি। দু’দিন আগে ১০০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোকে স্বর্ণ জয়ের পর ৫০ মিটারেও সোনা জিতেছেন এ ব্রিটিশ তারকা সাঁতারু। ২০ বছর বয়সী পিয়েটি এ ইভেন্টের সেমিফাইনালেই গড়ে ছিলেন বিশ্বরেকর্ড। তখনই সবাই বুঝে গিয়েছিলেন স্বর্ণপদকটা তার গলাতেই ঝুলবে এবার। শেষ পর্যন্ত ফাইনালে ২৬.৫১ সেকেন্ড সময় নিয়ে স্বর্ণ জিতলেন। ২০১৩ সালের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন দক্ষিণ আফ্রিকার ক্যামেরন ভ্যান ডার বার্গ রৌপ্যপদক জয় করেন ০.১৫ সেকেন্ড পিছিয়ে থেকে। যুক্তরাষ্ট্রের কেভিন কোরডেস ০.৩৫ সেকেন্ড পিছিয়ে থেকে জিতে নেন ব্রোঞ্জ। মহিলাদের ইভেন্টে আধিপত্য ধরে রেখেছেন ফ্রিস্টাইলের সম্রাজ্ঞী ১৮ বছরের তরুণী লিডেকি। ৪০০ ও ১৫০০ মিটার ফ্রিস্টাইলে স্বর্ণ জয়ের পর ২০০ মিটারেও স্বর্ণপদক গলায় ঝুলিয়েছেন তিনি। এবার নতুন ইতিহাস গড়ার হাতছানি তার সামনে। ফ্রিস্টাইল ইভেন্টের শুধু ৮০০ মিটারে স্বর্ণ জেতা বাকি তার।

সেটাতে চ্যাম্পিয়ন হতে পারলেই বিশ্ব আসরের ইতিহাসে প্রথম সাঁতারু হিসেবে চার ফ্রিস্টাইল ইভেন্টেই স্বর্ণ জয়ের অনন্য রেকর্ড গড়বেন তিনি। ২০০ মিটার ফ্রিস্টাইলে অবশ্য স্বর্ণ জয়ের জন্য চ্যালেঞ্জেই পড়তে হয়েছে তাকে। কারণ ছিলেন বিশ্বরেকর্ডধারী ফেডেরিকা পেলেগ্রিনি ও আরেক বিস্ময় তারকা যুক্তরাষ্ট্রের সতীর্থ মিসি ফ্র্যাঙ্কলিন। শেষ পর্যন্ত ১ মিনিট ৫৫.১৬ সেকেন্ড সময় নিয়ে স্বর্ণ জয় করেন লিডেকি। ০.১৬ সেকেন্ড পিছিয়ে থেকে পেলেগ্রিনি টানা দ্বিতীয়বারের মতো বিশ্ব আসরের এ ইভেন্টে জিতেছেন রৌপ্য। আর ০.৩৩ সেকেন্ড পিছিয়ে থেকে ফ্র্যাঙ্কলিনের গলায় ঝুলেছে ব্রোঞ্জ। কাজানের পুলে ঝড় তোলা লিডেকি এবার ইতোমধ্যেই ১৫০০ মিটারে নিজের গড়া পূর্বের বিশ্বরেকর্ড দুইবার ভেঙ্গেছেন। এবার ইতিহাস গড়ার পালা তার ৮০০ মিটার ফ্রিস্টাইলে স্বর্ণ জিতে।