২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নেশার টাকা দেয়নি বলে এতিম শিশুর ওপর নির্মম নির্যাতন, ১৪ দিন পর মৃত্যু

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ রাজবাড়ী জেলার পাংশায় নির্যাতিত হয়ে দু’সপ্তাহ ভুগে মারা গেছে ১৪ বছরের এক এতিম শিশু। জয়নাল নামে এক নেশাখোরের হাতে নির্মমভাবে নির্যাতিত হওয়ার ১৪ দিন পর বৃহস্পতিবার রাতে তার মৃত্যু হয়। অন্যদিকে লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে ৯ বছরের আরেক শিশুকে ইট মেরে গুরুতর আহত করার দায়ে দিদার হোসেন নামে একজন গ্রেফতার হয়েছে। শিশুটি এখন ঢাকা মেডিক্যাল কলেজে চিকিৎসাধীন রয়েছে। খবর নিজস্ব সংবাদদাতাদের।

রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার মাছপাড়া গ্রামে নির্যাতনের ১৪ দিন পর বৃহস্পতিবার রাতে মিজু নামে ১৪ বছরের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। সে মাছপাড়া ইউনিয়নের বাহাদুরপুর গ্রামের মৃত মুসা সরদারের ছেলে। মাত্র দুই বছর বয়সে মিজু বাবাকে হারায়। সাত বছর বয়সে তার মাও পৃথিবীর মায়া ছেড়ে চলে যায়। এরপর হতদরিদ্র শিশুটি মানুষের বাসা বাড়িতে কাজ করত। কিছুদিন আগে কাজ নেয় মাছপাড়া স্টেশন সংলগ্ন আজাদের বাড়িতে। সেখানে জয়নাল (৪০) নামে এক ব্যক্তি কাজ করতো। ১৪ দিন আগে একদিন জয়নাল মিজুর কাছে নেশা করার জন্য টাকা চায়। টাকা না দেয়ায় তাকে বেধড়ক মারপিট করা হয়। এরপর তার চিকিৎসার ব্যবস্থাও করা হয়নি। বৃহস্পতিবার বিকেলের দিকে রাস্তার পাশে শিশুকে ফেলে রাখা হয়। পরে এলাকাবাসী তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। বৃহস্পতিবার রাত ১২টার দিকে মারা যায় মিজু।

পাংশা থানার এএসআই ননী গোপাল জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ ব্যাপারে তদন্ত চলছে। দোষীদের দ্রুত গ্রেফতার করা হবে।

ঢামেকে মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছে দিদার ॥ এদিকে লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে শিশু নির্যাতনের অভিযোগে দিদার হোসেন নামে একজনকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। চার আসামির মধ্যে অপর তিন আসামি পলাতক রয়েছে।

কমলনগর থানার পুলিশ জানায়, গত ২৭ জুলাই কমলনগর উপজেলার চরজগবন্ধু গ্রামে পুুকুরে মল ত্যাগ করার ঘটনায় শিপন (৯) নামে এক শিশুকে ইট মেরে গুরুতর আঘাত করা হয়। এতে তার মাথায় গুরুতর যখম হয়। ওই দিনই শিশুটিকে গুরুতর অবস্থায় স্থানীয় কমলনগর উপজেলা স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি ঘটলে পরের দিন তাকে নোয়াখালী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে অবস্থার আরও অবনতি ঘটলে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় শিশুটিকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। এ ব্যাপারে শিপনের চাচা মোঃ হাসান নিজে বাদী হয়ে দিদার হোসেনকে প্রধান করে চারজনের বিরুদ্ধে কমলনগর থানায় শিশু নির্যাতন আইনে বৃহস্পতিবার বিকেলে একটি মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ রাতেই এলাকা থেকে প্রধান আসামি দিদারকে গ্রেফতার করে।