২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

৪৩ বছরে সরকারি হয়নি ডিগ্রি কলেজটি

৪৩ বছরে সরকারি হয়নি ডিগ্রি কলেজটি

স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল ॥ সরকারি করণের আশ্বাসে প্রতিষ্ঠার ৪৩ বছরে পাঁচবার নাম পরিবর্তন করার পরেও অদ্যবর্ধি সরকারি করণ করা হয়নি জেলার একমাত্র সংখ্যালঘু অধুষ্যিত আগৈলঝাড়া উপজেলা সদরে অবস্থিত একমাত্র ডিগ্রি কলেজটি। যার বর্তমান নাম শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত ডিগ্রি কলেজ। দীর্ঘদিনেও জনগুরুত্বপূর্ণ এ কলেজটি সরকারি করন না হওয়ায় কলেজের স্টাফসহ পুরো উপজেলাবাসীর মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, জেলার অবহেলিত বিলাঞ্চলের জনসাধারনের শিক্ষা-দীক্ষায় জ্ঞান অর্জন করে প্রকৃত মানুষ হিসাবে গড়ে ওঠার প্রয়াসে স্থানীয় শিক্ষাবিদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত, বিভূতি ভূষন বিশ্বাস, মতিয়ার রহমান তালুকদার, ওহাব আলী ফকির, অতুল চন্দ্র মালাকার, নওয়াব আলী ফকির ও তপন কুমার বিশ্বাসের প্রচেষ্ঠায় ১৯৭২ সালে ৫ একর জমির ওপর ‘বাংলাদেশ মহাবিদ্যালয়’ নামে কলেজটি প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৯৭৪ সালে কলেজটি সরকারি মঞ্জুরীপ্রাপ্ত হয়। ১৯৭৫ সালে রাজনৈতিক পট পরিবর্তনের সাথে সাথে কলেজটির নাম পরিবর্তন করে রাখা হয় ‘আগৈলঝাড়া মহাবিদ্যালয়’। ১৯৮২ সালে সরকার পরিবর্তনের সাথে পূর্নরায় কলেজটি সরকারি করনের আশ্বাসে নাম পাল্টে রাখা হয় ‘পল্ল¬¬ীবন্ধু এরশাদ কলেজ’। ওই সময় যদিও সাইন বোর্ড ছাড়া এই নামটি কোন কাগজ কলমে ছিলনা। এরশাদ সরকারের পতনের রাতে কালো রং দিয়ে ওই নামটিও মুছে দেয়া হয়। ১৯৮৪ সালে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমতিক্রমে ডিগ্রি কোর্স চালু করার পর কলেজের নাম করন করা হয় ‘আগৈলঝাড়া ডিগ্রি কলেজ’। সর্বশেষ ১৯৯৮ সালের ১০মে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অনুমতিক্রমে কলেজের নতুন নাম করন করা হয় ‘শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত ডিগ্রি কলেজ’।

সূত্রে আরও জানা গেছে, শুধুমাত্র সরকারি করনের জন্য এলাকার রাজনৈতিক নেতাদের আশ্বাসে পাঁচবার কলেজটির নাম পরিবর্তন করা হলেও আজো সেই দাবি আলোর মুখ দেখেনি।