২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

তিস্তা চুক্তি নিয়ে মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি মমতার

  • বিবিসির সঙ্গে সাক্ষাতকার

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি বলেছেন, আমি বাংলাদেশকে ভালবাসি। ভারতবর্ষে যারা বাংলায় কথা বলেন, তাদের ভাষা এক, অন্তর এক। আমি চাই না তাদের কোন সমস্যা হোক। সম্প্রতি বিবিসি বাংলাকে দেয়া একান্ত সাক্ষাতকারে তিনি এ মন্তব্য করেন। তবে সাক্ষাতকারে বাংলাদেশের সঙ্গে তিস্তার পানিবণ্টন নিয়ে কোন মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানান মমতা।

গতমাসে কলকাতায় মুখ্যমন্ত্রীর কার্যালয় নবান্নতে বসে মমতার ব্রিটেন সফরের দুই দিন আগে সাক্ষাতকারটি নেয় বিবিসি। সাক্ষাতকারে ছিটমহল বিনিময়, বাংলাদেশী অভিবাসী এবং ভারতে ধর্মনিরপেক্ষতা নিয়ে বিস্তারিত কথা বলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি।

এ সময় তিস্তা প্রসঙ্গ উঠতেই মমতা বলেন, তিস্তা নিয়ে আমি এই মুহূর্তে কোন কথা বলব না। এটা ভারত-বাংলাদেশের ব্যাপার। তাই এটা নিয়ে এ মুহূর্তে কোন কথা বলার অধিকার আমার নেই।

চলতি বছর দু’বার বাংলাদেশ সফরে আসেন মমতা। একবার আসেন একুশে ফেব্রুয়ারিতে শেখ হাসিনার আমন্ত্রণে শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা জানাতে এবং আরেকবার ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের সময়। একুশে ফেব্রুয়ারিতে আমন্ত্রণ জানানোর জন্য শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান মমতা।

ভারত-বাংলাদেশ ছিটমহল বিনিময়ের পর যারা ভারতের নতুন অধিবাসী হয়েছেন, তাদের সব ধরনের সহযোগিতা করা হবে বলে জানান মমতা। তিনি বলেন, সীমান্তের দিক থেকে ‘বাংলা’ আর

‘পশ্চিমবাংলা’ আলাদা হতে পারে, কিন্তু মনের দিক থেকে তাদের কোন তফাৎ নেই। বাংলাদেশের যারা এখানে থাকতে চাইবে (ছিটমহল বিনিময়ের পর) তাদের আমরা নিজেদের ঘরের আপনজন করে রাখব।

মোদির নির্বাচনী প্রচারের সময় বাংলাদেশী অভিবাসীদের সম্পর্কে যেসব কথা বলা হয়েছে সে প্রসঙ্গে মমতা বলেন, আমার একটা সেন্টিমেন্ট আছে, আমি বাংলাদেশকে ভালবাসি। তিনি বলেন, ভারতবর্ষে যারা বাংলায় কথা বলেন, তাদের ভাষা এক, অন্তর এক। আমি চাই না তাদের কোন সমস্যা হোক।