২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

১১ আগস্ট বাগেরহাটের দুই রাজাকারের বিরুদ্ধে রায়

  • যুদ্ধাপরাধী বিচার

স্টাফ রিপোর্টার ॥ একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে অভিযুক্ত বাগেরহাটের তিন রাজাকারের মধ্যে দুই রাজাকার কসাই সিরাজ মাস্টার ও খান আকরাম হোসেনের বিরুদ্ধে রায় ঘোষণা করা হবে ১১ আগস্ট। ৫ আগস্ট রায় ঘোষণার জন্য এ দিন নির্ধারণ করা হয়েছে। এ মামলায় অপর আসামি আব্দুল লতিফ তালুকদার অসুস্থ হয়ে মারা যাওয়ায় তার মামলার কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এ মামলার পর সিএভিকৃত আর কোন মামলা নেই। এর আগে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছিলেন যে সমস্ত মামলা সিএভিকৃত আছে সেগুলোর রায় ঘোষণার পর দুটি ট্রাইব্যুনালের স্থলে একটি ট্রাইব্যুনাল করা হবে। অন্যদিকে ট্রাইব্যুনালে মামলার সংখ্যাও তুলনামূলকভাবে। জামায়াতে ইসলামী, বিএনপি, জাতীয় পার্টিসহ অন্যান্য দলের তারকাখচিত আসামিদের মামলার রায় হয়েছে। উচ্চ আদালতে এর মধ্যে কয়েকটি চূড়ান্ত রায় হয়েছে। অন্যগুলো চূড়ান্ত আপীলের নিষ্পত্তির অপেক্ষায় আছে।

বর্তমানে দুটি ট্রাইব্যুনালে মোট ৮টি মামলা শুনানির জন্য বিভিন্ন পর্যায়ে রয়েছে। এর মধ্যে নেত্রকোনার রাজাকার কমান্ডার মোঃ ওবায়দুল হক তাহের ও আতাউর রহমান ননীর বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ চলছে। বাদবাকি ৬টি মামলার প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে। এ মামলাগুলোর মধ্যে রয়েছে শরীয়তপুর, জামালপুরের ৮ রাজাকার, যশোরের জামায়াতে ইসলামীর সাবেক এমপিসহ ১২ রাজাকার, কিশোরগঞ্জের ৫ রাজাকার মহেশখালীতে ১৮ রাজাকারসহ অন্যদের বিরুদ্ধে এখনও তদন্ত চলছে। তদন্ত সংস্থা সূত্রে জানা গেছে তাদের হাতে এখনও প্রায় ৬ শতাধিক অভিযোগ রয়েছে, এ থেকে গুরুত্ব অনুসারে আসামিদের বিরুদ্ধে তদন্ত করা হচ্ছে। তদন্ত সংস্থা সূত্রে আরও জানা গেছে শীঘ্রই বেশ কিছু মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করা হবে।

এদিকে বাগেরহাটের তিন রাজাকারের বিরুদ্ধে বিচারিক কার্যক্রম শেষে রায় ঘোষণার জন্য ১১ আগস্ট দিন নির্ধারণ করা হয়েছে। অভিযুক্তদের মধ্যে আব্দুল লতিফ তালুকদার ২৮ জুলাই অসুস্থ হয়ে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মারা গেছেন। এখন বাদবাকি দুই রাজাকারের বিরুদ্ধে রায় ঘোষণা করা হবে।