২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

‘সামনে আরও ভাল কিছু করতে চাই’

‘সামনে আরও ভাল কিছু করতে চাই’
  • সাতক্ষীরায় মুস্তাফিজকে উষ্ণ সংবর্ধনা

মিজানুর রহমান, সাতক্ষীরা ॥ ক্রিকেট বিশ্বের বিশ্বয় সাতক্ষীরা এক্সপ্রেস হিসেবে খ্যাত সাতক্ষীরার কৃতীসন্তান মুস্তাফিজ দীর্ঘ ৪ মাস পরে নিজ জেলায় পেলেন উষ্ণ সংবর্ধনা আর অভিনন্দন। সংবর্ধনায় নিজের অনুভূতি ব্যক্ত করতে গিয়ে এ কৃতী খেলোয়াড় বললেন, সাতক্ষীরাবাসীর দোয়া ও আশীর্বাদে আজ আমি এ পর্যন্ত আসতে পেরেছি। সুযোগ পেলে সামনে আরও ভাল কিছু করতে চাই। যশোর বিমানবন্দর থেকে সড়কপথে সাতক্ষীরা সার্কিট হাউসে এসে পৌঁছার পর শনিবার জেলা বাসীর পক্ষে দেয়া সংবর্ধনায় তাঁর মুখে মিষ্টি আর হাতে ফুলের তোড়া তুলে দেন সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক মোঃ নাজমুল আহসান। এর আগে সড়কপথে সাতক্ষীরায় আসার পথে যশোরের কেশবপুরসহ বিভিন্ন এলাকায় গাড়ি থামিয়ে তাঁকে ভক্তরা শুভেচ্ছা জানান।

মুস্তাফিজ এখন শুধু সাতক্ষীরাবাসীর গর্ব নন। তিনি এখন বাংলাদেশের গর্ব। গত ২৪ এপ্রিল পাকিস্তানের বিপক্ষে একমাত্র টি২০ ম্যাচে অভিষেক হওয়ার পর তাঁকে আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি। ভারত, আফ্রিকা বধের নায়ক হয়েছেন তিনি। তিনি এখন ক্রিকেটের বিস্ময়কর বালক। সুন্দরবনঘেঁষা কালিগঞ্জ তারালি এবং সাতক্ষীরার যে মুস্তাফিজকে মানুষ চিনত, সেই ছেলেটির খ্যাতি এখন বিশ্বব্যাপী। সর্বশেষ যখন বাড়ি এসেছিলেন আর এবারের বাড়ি ফেরার মুস্তাফিজ অনেক আলাদা। পেয়েছেন তারকাখ্যাতি। মুস্তাফিজের আগমন উপলক্ষে নিজগ্রাম কালিগঞ্জ উপজেলার তেঁতুলিয়া গ্রামে বইছে আনন্দের বন্যা। রোজার ঈদে তাকে না পেয়ে তার পরিবারসহ বন্ধুদের ঈদের আনন্দে ভাটা পড়েছিল। আজ তার আগমনে ঈদের আনন্দে ভাসছে তারা। দীর্ঘ ৪ মাস পর মায়ের কোলে ফেরা আদরের ছেলের জন্য মা মাহমুদা খাতুন তৈরি করেছেন মুস্তাফিজের প্রিয় খাবার। ভাইপো-ভাইজিদের দিনভর অপেক্ষায় কেটেছে প্রিয় চাচার নিয়ে আসা উপহারের জন্য।

আগামী ২২ আগস্ট থেকে শুরু হতে যাওয়া ফিটনেস ক্যাম্পের ঠিক আগের দিন মুস্তাফিজ ফিরবেন ঢাকায়। এ কদিন তাঁর চির চেনা নিজের বেড়ে ওঠা মুক্ত আকাশে ঘুরবেন তিনি। কিছুদিন শুধু বিশ্রামই নিতে চান। প্রকৃতির বাতাস গায়ে লাগিয়ে ঘুওে বেড়াতে চান মুস্তাফিজ। সাংবাদিকদের কাছে অনুভূতি ব্যক্ত করতে গিয়ে বলেন, যাদের সহযোগিতায় জাতীয় দলে সুযোগ পেয়েছেন তাঁদের কাছে তিনি কৃতজ্ঞ। ক্রিকেট নিয়ে তাঁর ভবিষ্যত কোন সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনার কথা না থাকলেও দেশের জন্য ভাল কিছু করার প্রত্যয় আছে তার।

শনিবার দুপুরে সাতক্ষীরা সার্কিট হাউসে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে অন্য উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সার্বিক এএফএম এহতেশামূল হক, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান বাবু, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক শেখ নিজামউদ্দীন মুস্তাফিজের ক্রিকেট গুরু মোফাসিনুল হক তপু, তার সেজ ভাই মোখলেসুর রহমান পল্টুসহ জেলা প্রশাসন, ক্রীড়া সংস্থার কর্মকর্তাবৃন্দ এবং তার গ্রামের বাড়ি থেকে আসা স্বজনরা। দুপুরে সাতক্ষীরা থেকে গ্রামের বাড়ি যাওয়ার পথে কয়েক জায়গায় তাকে শুভেচ্ছা আর অভিনন্দন জানানো হয়। ১৫ আগস্ট পর্যন্ত পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে বিশ্রামে কাটাবেন মুস্তাফিজ। ১৬ আগস্ট এলাকায় সংবর্ধনা রয়েছে। ১৭ আগস্ট বিকেলে সাতক্ষীরা সার্কিট হাউসে খুলনা বিভাগীয় কমিশনারের পক্ষ থেকে মুস্তাফিজ ও অপর কৃতী ক্রিকেটার সৌম্য সরকারকে সংবর্ধনা দেয়া হবে।