২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সোনায় মোড়ানো ক্যাম্পবেল পরিবার

সোনায় মোড়ানো ক্যাম্পবেল পরিবার
  • বিশ্ব সাঁতারে একই ইভেন্টে দুই বোনের লড়াই

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ পারেননি কেট ক্যাম্পবেল। গতবার বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপস সাঁতারে ১০০ মিটার ফ্রিস্টাইলে ২৩ বছর বয়সী এ অস্ট্রেলিয়ান তরুণী জিতেছিলেন স্বর্ণপদক। এবার জিততে পেরেছেন ব্রোঞ্জ! তবে ক্যাম্পবেল পরিবারেই স্বর্ণপদক গেছে। সেটাকে ধরে রেখেছেন পরিবারের কনিষ্ঠ সদস্য ব্রনটি ক্যাম্পবেল। কেটের ছোট বোন ২১ বছর বয়সী ব্রনটি ৫২.২২ সেকেন্ড সময় নিয়ে স্বর্ণপদক লাভ করেন। একই দিনে অস্ট্রেলিয়ার সাঁতার দলের হয়ে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপস সাঁতারে ৪ ী ১০০ মিটার ফ্রিস্টাইলেও দুই সহোদরা স্বর্ণপদক জিতেছেন। যেন একদিনে সোনায় মোড়ানো হয়ে গেছে ক্যাম্পবেল পরিবার। অস্ট্রেলিয়ানদের জয়জরকার ছিল এদিন। ২০০ মিটারের পর ১০০ মিটার ব্যাকস্ট্রোকেও স্বর্ণ জিতেছেন অসি সাঁতারু মিচেল লারকিন। পুরুষদের ২০০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোকে স্বর্ণ জেতেন জার্মান তারকা মারকো কচ। ফলে ইতিহাসের দোরগোড়া থেকে ফিরে গেছেন হাঙ্গেরির ড্যানিয়েল গাইয়ুর্তা। বিশ্ব সাঁতারে এক ইভেন্টে টানা চারবার স্বর্ণজয়ের ইতিহাস আছে রায়ান লোচেট ও গ্র্যান্ট হ্যকেটের। কিন্তু তিনবার ২০০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোকের রাজা গাইয়ুর্তা এবার ব্রোঞ্জ জিততে পেরেছেন।

রাশিয়ার কাজানে চলমান প্রতিযোগিতায় এবারই ইতিহাস ছুঁয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের ৩১ বছর বয়সী সাঁতারু লোচেট। ২০০ মিটার ব্যক্তিগত মিডলেতে তিনি এবার স্বর্ণ জয়ের মাধ্যমে হ্যাকেটের টানা চারবার একই ইভেন্টে বিশ্ব সাঁতারের আসরে স্বর্ণ জয়ের ইতিহাস ছুঁয়ে ফেলেন। একই ইতিহাস গড়ার সুযোগ ছিল গাইয়ুর্তার। পুরুষদের ২০০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোকে তিনি গত তিনবার বিশ্বচ্যাম্পিয়ন। টানা চারবার সেটা করার সুযোগ ছিল এ হাঙ্গেরিয়ান সাঁতারুর। কিন্তু সেটা পারলেন না। ২ মিনিট ৭.৭৬ সেকেন্ড সময় নিয়ে জার্মান তারকা কচ স্বর্ণপদক জিতে নেন। অল্পের জন্য বিশ্বরেকর্ড ছুঁতে পারেননি তিনি। ০০.০০.২৫ সেকেন্ডের (২৫ মিলি সেকেন্ড) জন্য ভাঙতে পারেননি ২০১২ সালের সেপ্টেম্বরে জাপানের আখিরো ইয়ামাগুচির গড়া বিশ্বরেকর্ডটা। ০.২৯ সেকেন্ড পিছিয়ে থেকে যুক্তরাষ্ট্রের কেভিন করডেস রৌপ্য এবং ০.৩৪ সেকেন্ড পিছিয়ে থেকে গাইয়ুর্তা ব্রোঞ্জ জিতে নেন। তবে ইতিহাস ছুঁতে না পেরে তেমন হতাশ হননি গাইয়ুর্তা। তিনি বলেন, ‘আমি অত হতাশ নই। আমি নিজের সেরাটা দেখাতে চেয়েছিলাম। সেটা হয়নি, কিন্তু আমি যে পদকটা পেয়েছি তাতেই সন্তুষ্ট।’

অস্ট্রেলিয়ান সাঁতারুরা দাপট দেখিয়েছেন এদিন। তবে ২০০ মিটার ব্যাকস্ট্রোকে স্বর্ণ জিতেছেন জাপানের ১৮ বছর বয়সী তরুণী কানাকো ওয়াতানাবে। তিনি ২ মিনিট ২১.১৫ সেকেন্ড সময় নেন। তাঁর চেয়ে ১.২৯ সেকেন্ড পিছিয়ে থেকে যুক্তরাষ্ট্রের মিকাহ লরেন্স রৌপ্য ও স্পেনের জেসিকা ভল ১.৬১ সেকেন্ড পেছনে থেকে ব্রোঞ্জ জেতেন। বাকি ইভেন্টের মধ্যে মহিলাদের দলগত ৪ী১০০ মিটার ফ্রিস্টাইল, পুরুষদের ১০০ মিটার ব্যাকস্ট্রোক এবং মহিলাদের ১০০ মিটার ফ্রিস্টাইলের স্বর্ণ গেছে অস্ট্রেলিয়ানদের ঘরে। পুরুষদের ১০০ মিটার ব্যাকস্ট্রোকে ১ মিনিট ৫৩.৫৮ সেকেন্ড সময় নিয়ে স্বর্ণপদক জয় করেন লারকিন। বিশ্ব সাঁতারে প্রথম অস্ট্রেলিয়ান হিসেবে তিনি ১০০ ও ২০০ মিটার ব্যাকস্ট্রোকে স্বর্ণপদক জয়ের কৃতিত্ব দেখালেন। যদিও ইতোমধ্যেই তাঁর স্বদেশী মহিলা সাঁতারু এমিলি সিভম ১০০ মিটারে জয়ের পর এখন ২০০ মিটার ব্যাকস্ট্রোকেও স্বর্ণ জিতে গেলে একই রেকর্ডের অংশীদার হয়ে যাবেন। তবে এদিন সবার নজর কেড়েছেন দুই ক্যাম্পবেল বোন। ১০০ মিটার ফ্রিস্টাইলে গতবার বার্সিলোনায় এ ইভেন্টে স্বর্ণ জিতেছিলেন কেট ক্যাম্পবেল।