২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ওয়ানডের সাফল্যে সন্তুষ্ট উইলিয়ামসন

  • জিম্বাবুইয়ে-নিউজিল্যান্ড একমাত্র টি২ আজ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ স্বাগতিক জিম্বাবুইয়ে ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার একমাত্র টি২০ ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে আজ। শুক্রবার তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে ৩৮ রানের জয়ে ২-১এ সিরিজ পকেটে পোরে অতিথি কিউইরা। ফলে আজ উজ্জীবিত হয়ে মাঠে নামবে কেন উইলিয়ামসনের দল। প্রথম ওয়ানডেতে ৭ উইকেটে হেরে শুরুতেই ধাক্কা খেয়েছিল তারা। কিন্তু টানা দুই জয়ে ঘুরে দাঁড়ায় বিশ্বকাপের ফাইনালিস্টরা। দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ১০ উইকেটের জয়ে প্রতিপক্ষকে উড়িয়ে দেয়ার পর শেষটিতেও আয়েশি সাফল্য পায় উইলিয়ামসন-বাহিনী। কেবল আজকের টি২০ই নয়, এ নৈপুণ্য আসন্ন দক্ষিণ আফ্রিকা সফরেও ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে। দুর্ধর্ষ প্রোটিয়াদের সঙ্গে দুই টি২০ ও তিন ওয়ানডের লড়াইয়ে অংশ নেবে কিউইরা। ডারবানে প্রথম টি২০ শুক্রবার।

১-১এ সমতার পর শেষ ম্যাচটি হয়ে উঠেছিল সিরিজ ফয়সালার। তাতে যথারীতি ফেবারিটের মতো খেলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে উইলিয়ামসনের দল। হারারেতে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৬ উইকেটে ২৭৩ রান সংগ্রহ করে সফরকারী নিউজিল্যান্ড। জবাবে ৪৭.৪ ওভারে ২৩৫ রানে অলআউট হয় জিম্বাবুইয়ে। অতিথিদের বড় স্কোর এনে দেন উইলিয়ামসন। প্রথম ওয়ানডেতে ৩ রানের জন্য সেঞ্চুরি পাননি, এদিন বঞ্চিত হয়েছেন ১০ রানের জন্য। ১০৯ বলে ৮ চার ও ১ ছক্কায় সর্বোচ্চ ৯০ রান করে সাজঘরে ফেরেন কিউই অধিনায়ক। শেষ ছয় ওয়ানডে ইনিংসে এ নিয়ে চতুর্থ এবং চলতি বছর পঞ্চমবারের মতো নার্ভাস নাইনটিজে আউট হলেন তিনি। এক বছরে নয়বার এমন খাঁড়ায় পড়ে দুঃখজনকভাবে রেকর্ডটি শচীন টেন্ডুলকরের দখলে। ভারতীয় গ্রেটকে অনুস্মরণ করছেন উইলিয়ামসন!

প্রথম ওয়ানডেতে ৩০৩ রান করেও হারতে হয়েছিল। তাই স্বস্তিতে ছিল না সফরকারীরা। দারুণ বোলিংয়ে কাজটা সহজ করে দেন মিচেল ম্যাকক্লেনঘান (৩/৩৬) ও ইশ্ সোধি (২/৪৭)। ৪৭.৪ ওভারে গুটিয়ে যায় জিম্বাবুইয়ে। স্বাগতিকদের হয়ে সর্বোচ্চ ৬৩ রান আসে শন উইলিয়ামসের ব্যাট থেকে। হ্যামিল্টন মাসাকাদজার ৫৭, চামু চিবাভা ও ক্রেইগ অরভিন ৩২ ছাড়া আর কেউই সুবিধা করতে পারেননি। ম্যাচ ও সিরিজসেরা উইলিয়ামসন। কিউই অধিনায়ক বলেন, ‘ম্যাচটা সহজ ছিল না। প্রথমে প্রত্যাশিত রান আসেনি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ফাইটিং স্কোর পেতে গ্রান্ট ইলিয়ট, জিমি নিশাম ও নাথান ম্যাককুলাম গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। বল হাতে গুরুত্বপূর্ণ কাজটাই করেছে ম্যাক ও সোধি। শেষ পর্যন্ত সিরিজ জয় দারুণ অভিজ্ঞতা।’

টি২০তেও জয়ের ধারা অব্যাহত রাখতে আশাবাদী উইলিয়ামসন। তিনি আরও যোগ করেন, ‘জিম্বাবুইয়ে ধুরন্ধর দল। প্রথম ওয়ানডেতেই সেটি তারা দেখিয়েছে। সুতরাং আমাদের কোনরকম ঢিলেমির সুযোগ নেই। দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের আগে এখানে জয় দিয়েই শেষ করতে চাই।’ অন্যদিকে সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে হেরে হতাশ জিম্বাবুইয়ে অধিনায়ক এলটন চিগম্বুরা বলেন, ‘২৭৩ অবশ্যই অতিক্রমযোগ্য স্কোর ছিল। কিন্তু ব্যাটিংয়ে শুরুটা ভাল করেও শেষ পর্যন্ত সেটি ধরে রাখতে পারিনি। লোয়ারঅর্ডার পুরোপুরি ব্যর্থ। তবে গোটা সিরিজে পারফর্মেন্স উজ্জীবিত হওয়ার মতো। টি২০তে জয় পেতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করব, ভারতের বিপক্ষে শেষ টি২০র সাফল্য আমাদের আত্মবিশ্বাসী করে তুলেছে। নিজেদের দিনে আমরা বিশ্বের যে কোন দলকে হারাতে সক্ষম।’