২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সিলেটে আজ পর্দা উঠছে সাফ অনুর্ধ-১৬ ফুটবলের

  • উদ্বোধনী ম্যাচে মুখোমুখি ভারত-শ্রীলঙ্কা ;###;স্বাগতিক বাংলাদেশের খেলা ১১ আগস্ট

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ সাফ অনুর্ধ-১৬ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের তৃতীয় আসরের পর্দা উঠছে রবিবার। সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিতব্য কিশোর ফুটবলারদের এই লড়াইয়ে স্বাগতিক বাংলাদেশ ছাড়াও ভারত, নেপাল, শ্রীলঙ্কা, আফগানিস্তান এবং মালদ্বীপ অংশ নিচ্ছে। রবিবার উদ্বোধনী ম্যাচে এগিয়ে যাওয়ার লড়াইয়ে নামছে ভারত ও শ্রীলঙ্কা। বিকেল ৫টায় ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে। টুর্নামেন্টে অংশ নিতে গত বৃহস্পতিবার সিলেট এসে পৌঁছায় ভারত ও নেপাল ফুটবল দল। শুক্রবার সন্ধ্যায় আসে শ্রীলঙ্কা ও আফগানিস্তান ফুটবল দল। রাতে আসে মালদ্বীপ ফুটবল দল। সব দলকেই সিলেটের হোটেল নির্ভানা ইনে রাখা হয়েছে। এদিকে টুর্নামেন্টের জন্য সিলেট জেলা স্টেডিয়ামকে পুরোদমে প্রস্তুত করা হয়েছে।

প্রাথমিক অবস্থায় এই ফুটবল টুর্নামেন্টটি কক্সবাজারে করার পরিকল্পনা ছিল বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে)। কিন্তু কক্সবাজার স্টেডিয়ামে নেই ফ্লাডলাইট। তাছাড়া স্টেডিয়ামের অবস্থা খুব ভাল না হওয়ায় সেখানে প্রতিদিন ম্যাচ আয়োজন করা সম্ভব নয়। এ কারণে কক্সবাজার স্টেডিয়ামে খেলা আয়োজনের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসে বাফুফে। শেষ পর্যন্ত সব ম্যাচ সিলেটেই করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

তৃতীয়বারের মতো অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া সাফ অনুর্ধ-১৬ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের আগের দুবারই আয়োজক ছিল নেপাল। ২০১১ সালে প্রথম আসরে ৬ দলের মধ্যে বাংলাদেশ হয়েছিল চতুর্থ। আর ২০১৩ সালে দ্বিতীয় আসরে বাংলাদেশ ৭ দলের মধ্যে তৃতীয় হয়। রবিবার থেকে মাঠে গড়াতে যাওয়া টুর্নামেন্টে মুখোমুখি হচ্ছে ভারত ও শ্রীলঙ্কা। সোমবার মুখোমুখি হবে নেপাল ও মালদ্বীপ। মঙ্গলবার মাঠে নামবে স্বাগতিক বাংলাদেশ। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচটিতে জয়েই চোখ করে রেখেছে বাংলাদেশ। বুধবার মুখোমুখি হবে মালদ্বীপ ও আফগানিস্তান। বৃহস্পতিবার মাঠে নামবে সাফ ফুটবলের অন্যতম দুই প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী বাংলাদেশ ও ভারত। শুক্রবার টুর্নামেন্টের প্রথম রাউন্ডের সর্বশেষ ম্যাচে আফগানিস্তানের মুখোমুখি হবে নেপাল।

প্রথম রাউন্ড শেষে সরাসরি সেমিফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে। ১৬ আগস্ট প্রথম সেমিফাইনাল এবং পরদিন দ্বিতীয় সেমিফাইনাল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। ফাইনালের জন্য ১৮ আগস্ট নির্ধারিত রয়েছে। টুর্নামেন্টের কোন ম্যাচ বৃষ্টি কিংবা অন্য কোন কারণে নির্ধারিত দিনে মাঠে গড়াতে না পারলে পরদিন সকালে ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে। সেমিফাইনালের আগ পর্যন্ত প্রতিটি ম্যাচই বিকেল ৫টায় অনুষ্ঠিত হবে। টুর্নামেন্ট সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থা। মাঠ সংস্কার থেকে শুরু করে আনুষঙ্গিক সব কাজই ইতোমধ্যেই শেষ করা হয়েছে। বঙ্গবন্ধু কাপ ফুটবলের পর থেকে অলস পড়ে থাকা ড্রেসিং রুম, হসপিটালিটি বক্স, ভিআইপি বক্স, মিডিয়া বক্স, গ্যালারিসহ পুরো সিলেট জেলা স্টেডিয়াম যেন পেয়েছে নতুন প্রাণ। টুর্নামেন্টটি দর্শকদের উপভোগের জন্য টিকেটও ছাড়া হয়েছে ইতোমধ্যে। গ্যালারির টিকেট ৩০ ও ৫০ টাকা, ভিআইপি গ্যালারির টিকেটের মূল্য রাখা হয়েছে ১০০ টাকা।

দুটি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে ৬টি দল অংশ নিচ্ছে এই প্রতিযোগিতায়। এর মধ্যে ‘এ’ গ্রুপে রয়েছে স্বাগতিক বাংলাদেশ ছাড়াও ভারত ও শ্রীলঙ্কা। ‘বি’ গ্রুপে রয়েছে নেপাল, মালদ্বীপ ও আফগানিস্তান। সাফ অঞ্চলের মধ্যে ভুটান ও পাকিস্তান আসর থেকে নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছে। টুর্নামেন্ট উপলক্ষে গত শনিবার এ চ্যাম্পিয়নশিপের ‘ড্র’ অনুষ্ঠিত হয়। গতবারের সেমিফাইনালিস্ট ৪ দল ও এর বাইরের দুই দলকে আলাদাভাবে রেখে ড্র অনুষ্ঠিত হয়।

স্বাগতিক দল ছাড়া টুর্নামেন্টে অংশ গ্রহণকারী প্রতিটি দলকে পার্টিশিপেশন মানি হিসেবে দেয়া হবে ৫ হাজার ডলার। আর স্বাগতিক বাংলাদেশ পাবে ৫০ হাজার ডলার পার্টিশিপেশন মানি।