২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সাড়ে তিন কোটি টাকা নিয়ে লাপাত্তা

  • ঢাকা আরবান কো-অপারেটিভ ব্যাংক

নিজস্ব সংবাদদাতা, গফরগাঁও, ময়মনসিংহ, ৯ আগস্ট ॥ গফরগাঁওয়ে দি ঢাকা আরবান কো-অপারেটিভ ব্যাংক ময়মনসিংহের আঞ্চলিক মহাব্যবস্থাপক, আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক ও গফরগাঁও শাখা ব্যবস্থাপকসহ অন্য কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে গ্রাহকদের সাড়ে তিন কোটি টাকা আত্মসাত করে ব্যাংকে তালা লাগিয়ে পালিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। গত এক সপ্তাহ ধরে পৌর এলাকার শহীদ বেলাল প্লাজার দ্বিতীয় তলায় ব্যাংকটির কার্যালয়ে ঝুলছে তালা। এ ব্যাংকটিতে টাকা আমানত রাখায় অনেক প্রবাসীর স্ত্রীর সংসার ভেঙ্গেছে। অনেকে হয়েছেন স্বামী-সন্তানহারা। এ অবস্থায় ওই ব্যাংকের গ্রাহকরা টাকা ফেরতের দাবিতে রবিবার সকালে গফরগাঁও প্রেসক্লাবের সামনে ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন করেন।

জানা যায়, ২০০৯ সালের ৪ এপ্রিল দি ঢাকা আরবান ব্যাংক গফরগাঁওয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের কার্যক্রম শুরু করে। পরে এই ব্যাংকের প্রতিটি গ্রাহককে এক লাখ টাকার বিপরীতে প্রতি মাসে দেড় হাজার টাকা মুনাফার কথা বলে এক হাজার ৯৯৪ জন গ্রাহকের কাছ থেকে দি ঢাকা আরবান ব্যাংক গফরগাঁও শাখা সাড়ে তিন কোটি টাকা আমানত সংগ্রহ করে।

আরবান ব্যাংক গফরগাঁও শাখার সহকারী ব্যবস্থাপক (লোন) জাহাঙ্গীর আলম রিপন বলেন, প্রতিষ্ঠানটির ময়মনসিংহ আঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক লুৎফর রহমান কয়েস, আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক ওয়ালিদুল ইসলাম ও গফরগাঁও শাখা ব্যবস্থাপক শরিফুল হোসেন ইমনের নেতৃত্বে দীর্ঘদিন ধরে চক্রটি গ্রাহকদের আমানতের টাকা ফেরত না দিয়ে উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রতারণা করে টাকা আদায় করে হঠাৎ ব্যাংকের কার্যালয়ে তালা ঝুলিয়ে দিয়ে পালিয়ে গেছে। এ অবস্থায় গতকাল রবিবার সকালে প্রতারিত গ্রাহকরা তাদের আমানত ফেরতের দাবিতে গফরগাঁও প্রেসক্লাবের সামনে ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন করেন।