১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কুকের প্রশংসা ইংল্যান্ড জুড়ে

  • এক ম্যাচ হাতে রেখে এ্যাশেজ পুনরুদ্ধার- ইংল্যান্ড অধিনায়ক নিজেও যেন বিশ্বাস ;###;করতে পারছেন না

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ অস্ট্রেলিয়া দলে যখন কেবলই হাহাকার, তখন এ্যাশেজ পুনরুদ্ধার করে আনন্দে ভাসছে গোটা ইংল্যান্ড। ট্রেন্ট ব্রিজের চতুর্থ টেস্ট জয়ে এক ম্যাচ হাতে রেখেই ঐতিহ্যের ট্রফি ফিরিয়ে আনে এ্যালিস্টার কুকের দল। ব্যর্থতার দায় মাথায় নিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকেই বিদায়ের ঘোষণা দিয়েছেন অতিথি অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক। বিপরীতে প্রশংসার পুষ্পমাল্যে ভাসছেন স্বাগতিক সেনাপতি কুক। বরা বার ঠোঁটকাটা বলে পরিচিত সাবেক অধিনায়ক জিওফ বয়কটও মুগ্ধ। আরেক সাবেক অধিনায়ক পল কলিংউড বলেছেন, ‘দারুণ, কুক তুমি চালিয়ে যাও।’ যাকে এভাবে স্তুতিতে ভাসানো হচ্ছে সেই স্বাগতিক অধিনায়ক নিজেও নাকি তা ভাবেননি, সাফল্যটা এত সহজে আসবে!

‘আমার মনে হয়, কোনরকম সাত-পাঁচ না ভেবে কুকের এভাবে চালিয়ে যাওয়া উচিত। তারুণ্য নির্ভর একটা দল নিয়ে সে অসাধারণ খেলেছে। অনেকের মতো আমিও ভাবতে পারিনি অস্ট্রেলিয়াকে এভাবে দুমড়ে-মুচড়ে দেয়া যাবে। ক্যারি অন কুকি।’ বলেন কলিংউড। এই ইংল্যান্ড ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলছে বলেই এমন সাফল্য বলে মনে করছেন তিনি। ‘বিশ্বকাপ ভরাডুবির পর কম কথা হয়নি। জিমি (এ্যান্ডারসন), বেল (ইয়ান) ও কুকি (কুক) ছাড়া দলটির বেশিরভাগই তরুণ, ওরা ভয়হীন ক্রিকেটে খেলেছে, তাই সাফল্যের আনন্দটাও বেশি।’ কুকের নির্ভার মানসিকতারও প্রশংসা করেন তিনি। বলেন, ‘এজবাস্টনে তৃতীয় টেস্ট জয়ের পর ওর সঙ্গে ছিলাম, দেখেছি কতটা নির্ভার সে। একদমই চিন্তা না করে কেবল সামনে এগিয়ে গেছে।’

আর বয়কট বলেন, ‘কুকের নেতৃত্ব ও দলের খেলা দেখে প্রশংসা না করে পারছি না। এ্যান্ডারসনের অনুপস্থিতি সত্ত্বেও ট্রেন্ট ব্রিজে আমাদের পেসাররা অসাধারণ বোলিং করেছে। যেখানে শুরুটা করে দিয়েছে স্টুয়ার্ট ব্রড। ব্রড-বেন স্টোকসকে খেলার কোন পথই খুঁজে পায়নি মাইকেল ক্লার্কের দল। এটা দারুণ। আশা করছি ওভালের শেষ ম্যাচেও এই ধারা অব্যাহত থাকবে।’ গত এ্যাশেজে অস্ট্রেলিয়ার কাছে ৫-০তে হোয়াইটওয়াশ হয় ইংলিশরা। একদিকে যখন বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নেয় ইংল্যান্ড, অন্যদিকে বিশ্বকাপ পুনরুদ্ধার করে এবারের এ্যাশেজে নিশ্চিত ফেবারিট হিসেবে নামে অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু মাঠে বিপরীত দৃশ্যের অবতারণা হয়। এক ঝাঁক তরুণ ক্রিকেটার নিয়ে কার্ডিফের প্রথম টেস্টেই ১৬৯ রানের বড় জয়ে এগিয়ে যায় ইংল্যান্ড।

লর্ডসের দ্বিতীয় ম্যাচে যদিও হেরে বসে তারা। কিন্তু এজবাস্টনের তৃতীয় ম্যাচে ৮ উইকেট ও সর্বশেষ ট্রেন্ট ব্রিজে ইনিংস ব্যবধানের জয়ে এক ম্যাচ হাতে রেখে ট্রফি পুনরুদ্ধার করে ইংলিশরা। ব্যাট হাতে বাজে ফর্মের জন্য বিশ্বকাপের দল থেকেই বাদ পড়েছিলেন কুক। টেস্টেও খ—গ ঝুলছিল। কঠিন সেই পরিস্থিতি পেছনে ফেলে নিজে উড়লেন, ওড়ালেন দলকেও। কুক বলেন, ‘যে জায়গায় থেকে গত আঠারো মাসে আমরা যা অর্জন করেছি, এর জন্য সতীর্থ খেলোয়াড়, কোচ-সাপোটিং স্টাফ সবাই প্রশংসা পাওয়ার যোগ্য। সত্যি বলতে, আমি ভাবতেও পারিনি প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়ার জন্য গুরুত্বপূর্ণ এই ম্যাচটা আমার তিনদিনেই জিতে নিতে পারব। সঙ্গে এক ম্যাচ হাতে রেখে এ্যাশেজ পুনরুদ্ধারÑ গ্রীষ্মের শুরুতে এমনটা কল্পনাও করিনি। আমি দারুণ খুশি।’ গত আঠারো মাস বলে কুক আসলে কঠিন সময়ের দিকেই ইঙ্গিত করেছেন।