২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

‘প্রতিদ্বন্দ্বী নিয়ে ভাবার সময় নেই’

  • সাকিব আল হাসান

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ওয়ানডে হোক কিংবা টেস্ট; এখন আর বাংলাদেশ ক্রিকেট দল কোন প্রতিদ্বন্দ্বীকে নিয়ে ভাবে না। ভাবে শুধু নিজেদের নিয়ে। রবিবার একটি প্রতিষ্ঠানের প্রচারমূলক অনুষ্ঠানে এমনটিই জানিয়েছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। যখনই অক্টোবরে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে অনুষ্ঠেয় ২ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে, তখনই সাকিব বলেছেন, ‘দেখুন আমরা এখন যে কোন সিরিজেই নিজের সেরাটা দেয়ার কথা ভাবি। তাই প্রতিদ্বন্দ্বীকে নিয়ে ভাবার সময় নেই। হ্যাঁ, প্রতিদ্বন্দ্বীকে নিয়ে একটা পরিকল্পনা থাকেই। তবে এখন আমরা বেশি মনোযোগী নিজেদের নিয়েই।’

সেই জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে গত বছর নবেম্বর থেকে একচেটিয়া ক্রিকেট খেলছে বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা। জিতেও চলেছে। জিম্বাবুইয়েকে সিরিজে হারানোর পর বিশ্বকাপেও দল বাজিমাত করেছে। এরপর পাকিস্তানের বিপক্ষেও দুর্দান্ত খেলেছে। ভারতকেও সিরিজে হারিয়েছে। সর্বশেষ দক্ষিণ আফ্রিকাকেও ওয়ানডে সিরিজে হারিয়ে দিয়েছে। জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে সিরিজ থেকে বিশ্বকাপ বাদ দিয়ে ঘরের মাঠে ১৪ ওয়ানডে খেলেছে বাংলাদেশ। জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে ৫, পাকিস্তানের বিপক্ষে ৩, ভারতের বিপক্ষে ২ ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ২টিসহ মোট ১২ ওয়ানডে জিতেছে। সব ওয়ানডে সিরিজে জিতেছে। আর টেস্টে জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে ৩টির সব জিতেছে, পাকিস্তানের বিপক্ষে দুটি ম্যাচের একটি ড্র ও একটি হার হয়েছে। ভারতের বিপক্ষে ১টি টেস্টের ১টিতেই ড্র হয়েছে। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষেও ২ টেস্টই ড্র হয়েছে। ৮ টেস্টের একটিতে হেরেছে বাংলাদেশ। সাফল্যই শুধু মিলেছে। সামনে এবার অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজে খেলতে নামবে বাংলাদেশ। তবে আপাতত ক্রিকেটাররা দীর্ঘ ছুটিতেই আছেন। তা উপভোগও করছেন।

আপাতত ক্রিকেটকে একপাশে রেখে স্ত্রী শিশির, বাবা-মা আর বোনের জন্য সময়টাকে বরাদ্দ করেছেন সাকিব। আবার ২৭ আগস্টের পরে ক্রিকেট নিয়ে ভাবতে শুরু করবেন। ২৬ আগস্ট পর্যন্ত যে ছুটিই রয়েছে তার। ১০ আগস্ট আবার ছুটি উপভোগ করতে স্ত্রীকে নিয়ে আমেরিকা যাচ্ছেন সাকিব। সেখান থেকে ফিরবেন ২৭ আগস্ট। শনিবার নিজের রেস্টুরেন্টের উদ্বোধন ঘোষণা করতে গিয়ে এমন জানান।

সাকিবের রেস্টুরেন্ট “সাকিব’স অলরাউন্ডার ডাইনিং” চালু হয়েছে প্রায় তিন মাস আগে। কিন্তু সাংবাদিকদের ডেকে উদ্বোধন ঘোষণা দিলেন শনিবার রাতে। এখানে ঘোষণা এলো আরও একটি, সাকিব-শিশির জুটি নবেম্বরে সন্তানের মুখ দেখতে চলেছেন। এ কারণেই ১০ আগস্ট আমেরিকায় যাচ্ছেন এই জুটি। সাকিব ২৭ আগস্ট ঢাকায় ফিরলেও শিশিরের ওই সময় আর দেশে ফেরা হচ্ছে না। ছুটিটি ভালভাবেই উপভোগ করতে চান সাকিব। বলেছেন, ‘অনেকদিন পর আমরা ছুটি পেয়েছি। এখন কেউ নেটে যাবে বলে মনে হয় না। ছুটিটা ঠিকমতো পালন করব। ছুটির দিনগুলো মজা করবে সবাই। এরপর যখন আমরা আবার ফিরব। তখন ফিটনেস ক্যাম্পে যাব, এরপর আবার ক্রিকেট নিয়ে ভাবব। আমি এখন ক্রিকেটারের ভাবনায় নেই। সবারই উচিত ছুটির এই সময়টা মজা করার। উপভোগ করা জরুরী। আমি দুই সপ্তাহের জন্য আমেরিকায় যাচ্ছি ঘুমাতে। মাঝে-মধ্যে একটু ফুটবলও খেলব। কিন্তু ক্রিকেট থেকে একদমই বাইরে থাকব।’

সাকিব অবশ্য একটু নিকট অতীত নিয়েও কথা বলেছেন। সেটি দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ নিয়ে। জানিয়েছেন, ‘বৃষ্টি যদি না হতো, তাহলে আমরা হয় তো অনেক কিছুই দেখতে পেতাম। সবাই বুঝতে পারত আমরা কতটা উন্নতি করেছি। ওয়ানডেতে আমরা ভাল করছি দেখেই আমাদের উন্নতির চিত্রটা পরিষ্কার। টেস্টেও যদি এভাবে ফলাফল আসা শুরু করে তাহলে এই ফরম্যাটে আমাদের উন্নতি সবার চোখে পড়বে।’

সাকিব একটি মহৎ উদ্যোগের কথাও জানিয়েছেন। সুবিধাবঞ্চিতদের জন্য নতুন উদ্যোগ নিয়েছেন সাকিব। ‘সাকিব ফাউন্ডেশন’ করার কথাও ভাবছেন। কিভাবে কাজ হবে? সাকিবের কণ্ঠেই শোনা যাক, ‘যমুনা ফিউচার পার্কে কসমিক জাভিয়ানোর (সাকিবের কসমেটিক্স শো রুম) লাভের একটি অংশ সুবিধাবঞ্চিতদের জন্য ব্যবহার করা হয়। এখান (রেস্টুরেন্ট) থেকে আমার একটা ইচ্ছা আছে সাকিব আল হাসান ফাউন্ডেশন করার। লাভের একটি অংশ সুবিধাবঞ্চিতদের জন্য ব্যয় করার ইচ্ছা থেকেই এটি করা। এছাড়া এই ধরনের মানুষদের মাসে একবার হলেও সকালের নাস্তা কিংবা দুপুরে খাওয়ানোর ইচ্ছা রয়েছে। অনেকের ইচ্ছা থাকলেও কিছু আয়োজন করার সামর্থ্য নেই; কিন্তু আমার এখান থেকে তাদের জন্য আয়োজনের করার ব্যবস্থা করব।’

নির্বাচিত সংবাদ