২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ক্লসকে ফেলপসের জবাব

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ এবার বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপস সাঁতারে নেই যুক্তরাষ্ট্রের কিংবদন্তি সাঁতারু মাইকেল ফেলপস। নিষেধাজ্ঞার কারণে তার এই অনুপস্থিতিতে সব ইভেন্টেই ফেলপসের চরম প্রতিপক্ষরা স্বর্ণপদক জিতে চলেছেন। বিশেষ করে বাটারফ্লাই ইভেন্টের অবিসংবাদিত সম্রাট ফেলপস না থাকায় যেন লড়াইটাই তেমন জমছে না। ১০০ মিটার বাটারফ্লাইয়ে কাজানে চলমান বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপসে স্বর্ণ জিতেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার চ্যাড লি ক্লস। তবে সঙ্গে সঙ্গেই তাকে জবাব দিয়েছেন অলিম্পিক সম্রাট ফেলপস। ক্লসের চেয়ে ০.১১ সেকেন্ড কম সময় নিয়ে ১০০ মিটার বাটারফ্লাইয়ে জিতেছেন ফেলপস শুরু হওয়া ইউএস জাতীয় সাঁতার চ্যাম্পিয়নশিপসে। আর ফেলপসের নৈপুণ্যই বলে দিচ্ছে আগামী বছর রিও ডি জেনিরোয় প্রতিপক্ষদের জন্য আগের মতোই অনেক বড় চ্যালেঞ্জ তিনি।

আগের দিন জবাব দিয়েছিলেন ফেলপস হাঙ্গেরির লাজলো সিসেহকে। ১০ বছর পর আবারও বিশ্ব আসরে কোন স্বর্ণ জিতেছিলেন সিসেহ। ওই ইভেন্টে এতদিন বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপস কিংবা অলিম্পিক কোন আসরেই ফেলপসের সঙ্গে কুলিয়ে উঠতে পারেননি। কিন্তু এবার ফেলপসের অনুপস্থিতি যেন তার জন্য দ্বার খুলে দিয়েছিল। তিনি ১ মিনিট ৫৩.৪৮ সেকেন্ড সময় নিয়ে স্বর্ণ জয় করেন ২০০ মিটার বাটারফ্লাইয়ে। তবে জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপসে ০.৫৪ সেকেন্ড সময় নিয়ে শেষ করে সিসেহকে মোক্ষম জবাবটাই দিয়েছিলেন ফেলপস। বছরের সেরা টাইমিং গড়েন তিনি। সিসেহ হারিয়েছিলেন ক্লসকে। এবার ক্লস প্রতিশোধ নেন সিসেহকে হারিয়েভ ১০০ মিটার বাটারফ্লাইয়ে দু’জনের লড়াইটা বেশ জমে গিয়েছিল। লি ক্লস ৫০.৫৬ সেকেন্ড সময় নিয়ে শেষ করেন। এটি ছিল নয়া আফ্রিকান রেকর্ড। ০৩১ সেকেন্ড পিছিয়ে থাকেন সিসেহ। আর সিঙ্গাপুরের জোসেফ স্কুলিং নতুন এশিয়ান রেকর্ড গড়লেও জিতেছেন ব্রোঞ্জ। তিনি সময় নেন ৫০.৯৬ সেকেন্ড। ২০০ মিটারে অলিম্পিক চ্যাম্পিয়ন ক্লস চরম প্রতিশোধই নিলেন সিসেহর ওপরে। ২০১৩ সালেও বার্সিলোনায় ক্লসের কাছে এ ইভেন্টে হেরে গিয়েছিলেন সিসেহ। ২৩ বছর বয়সী ক্লস জয়ের পর নিজের অনুভূতিটা লুকাতে পারেননি। তিনি পানিতে দু’হাত দিয়ে সজোরে আঘাত করে উল্লাস প্রকাশ করেন। ফেলপস নেই। ক্লস-সিসেহ যখন শ্রেষ্ঠত্বের লড়াই নিয়ে ব্যস্ত সেটা দূর থেকেই অবলোকন করতে হচ্ছে সাঁতার সম্রাটকে। তবে দূর থেকেই এবার ক্লসকেও জবাব দিয়ে দিলেন। যেভাবে আগের দিন সিসেহকে বুঝিয়ে দিয়েছিলেন তিনি থাকলে আর বিশ্ব সাঁতারে স্বর্ণ জেতা হতো না এ হাঙ্গেরিয়ানের সেভাবেই এবার ক্লসকেও বুঝিয়ে দিলেন। ইউএস চ্যাম্পিয়নশিপসের তৃতীয় দিনে ১০০ মিটার বাটারফ্লাইয়ে ‘ফ্লাইং ফিশ’ ঝড় তুললেন। এবার তিনি শেষ করলেন ৫০.৪৫ সেকেন্ড সময় নিয়ে। এর ৮ ঘণ্টা আগেই ক্লস কাজানে ৫০.৫৬ সেকেন্ড সময় নিয়েছিলেন একই ইভেন্টে। সেটা দেখেই যেন পুলে নেমে ঝড়োগতি পেয়ে গেলেন ফেলপস। ক্লসের চেয়ে কম সময় নিলেন। যদিও দক্ষিণ আফ্রিকান এ সাঁতারু কাজানের পুলে সাঁতরানো আর সান এ্যান্টোনিওতে সাঁতরানোকে কোনভাবেই একই পর্যায়ের নয় বলে দাবি করেছেন। কিন্তু ফেলপস নিজে দারুণ খুশি। তিনি বলেন, ‘এটা আমাকে আরও উজ্জীবিত করেছে। আমি সত্যিই এটাকে খুব পছন্দ করছি। পুলে আমি যা করছি সেটাই আমার হয়ে কথা বলছে। আমার মনে হয় আমি এখন যে অবস্থানে আছি সেখানেই থাকতে চেয়েছিলাম।’ ফেলপসের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন জ্যাক কঞ্জার। তিনি সময় নেন ৫১.৩৩ সেকেন্ড।