২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ব্যাংকের সুদের হার ৯ শতাংশের নিচে রাখার দাবি এফবিসিসিআইয়ের

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দেশের উৎপাদন ব্যবস্থাকে গতিশীল করার জন্য ব্যাংকের সর্বোচ্চ সুদের হার ৯ শতাংশের নিচে নামিয়ে আনতে অনুরোধ জানিয়েছে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই। সংগঠনটি বলছে, ব্যাংকিং খাতে নন-পারফর্মিং লোন কমিয়ে আনতে না পারলে সুদের হার হ্রাস করা কঠিন হবে। এ লক্ষ্যে ব্যাংক গড় সুদহার রেট ৫ শতাংশের নিচে রাখার প্রস্তাব করা হয়। এছাড়া ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ব্যালান্সশীটের মানোন্নয়নের তাগিদ দেয়া হয়। সোমবার এফবিসিসিআই সম্মেলনকক্ষে ‘দেশে শিল্পায়নে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহের ভূমিকা’ শীর্ষক এক মতবিনিময় সভায় বক্তরা এসব কথা বলেন। সভায় সভাপতিত্ব করেন এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি আব্দুল মাতলুব আহমাদ। এতে বক্তব্য রাখেনÑ এ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশের চেয়ারম্যান আলী রেজা ইফতেখার, সোনালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রদীপ কুমার দত্ত, বাংলাদেশ লিজিং এ্যান্ড ফাইন্যান্স কোম্পানিজ এ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান আসাদ খান, এফএএস ফাইন্যান্স এ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাশেদ শাহরিয়ার ও এফবিসিসিআইয়ের প্রথম সহ-সভাপতি সফিউল ইসলাম (মহিউদ্দিন)। এফবিসিসিআই সভাপতি আব্দুল মাতলুব আহমাদ বলেন, দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে আর্থিক খাতের ব্যাপ্তি বেড়েছে বহুগুন।

বাংলাদেশের ব্যাংকিং খাত ক্রমেই সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। বৈশ্বিক মন্দাপরবর্তী অবস্থা, দেশীয় বাস্তবতা এবং যুগের চাহিদার প্রেক্ষাপটে সাম্প্রতিক সময়ে দেশের ব্যাংকিং ব্যবস্থাকে ডিজিটালাইজড করার মাধ্যমে বিশেষ করে অনলাইন ব্যাংকিং, অটোমেটেড পেমেন্ট সিস্টেম, মোবাইল ব্যাংকিং প্রভৃতির মাধ্যমে ব্যাংকিং ব্যবস্থাকে পেপারলেস ব্যাংকিং জগতে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হয়েছে। এছাড়াও ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা ও অভ্যন্তরীণ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থাপনাসহ সামগ্রিক কর্পোরেট সুশাসনের বিষয়ে নজর দেয়ার ফলে ব্যাংকিং খাতে শৃঙ্খলা জোরদার হয়েছে। সেই সঙ্গে দেশের আর্থিক ও বাণিজ্যিক কার্যক্রমের সঙ্গে ব্যাংকিং ব্যবস্থার সম্পৃক্ততা আরও বেড়েছে। সভায় বক্তারা বলেন, উৎপাদনশীল খাতকে কার্যকর করার জন্য ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠাসমূহের ভূমিকা অনস্বীকার্য।